সান্ধ্য আইন বাতিলসহ ১২ দফা দাবীতে রাস্তায় সিকৃবি’র ছাত্রীরা

sylhet agricultural universityসুরমা টাইমস ডেস্কঃ হলে প্রবেশের সময়সীমা বৃদ্ধি, ছাত্রী হলে পুরুষ শিক্ষকদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা আরোপ, দু’জন সহকারী প্রভোষ্টের প্রত্যাহারসহ ১২ দফা দাবিতে বিক্ষোভ করছে সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীরা। বৃহস্পতিবার রাত আটটা থেকে প্রশাসনিক ভবনের সামনে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু করেন সুহাসিনী দাশ হল ও পুরাতন হলের চার শতাধিক ছাত্রী। এসময় তারা রাস্তায় জ্বালিয়ে দাবি আদায়ের লক্ষ্যে শ্লোগান দিতে থাকে।

আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা জানান, শীতকালে সাড়ে ছয়টার মধ্যে ছাত্রীদের হলে প্রবেশ করতে হয়। এছাড়া পুরুষ শিক্ষকরা অনুমতি না নিয়েই ছাত্রী হলের যখন তখন প্রবেশ করেন, ছাত্রী হলে প্রবেশের সড়কের অবস্থাও খারাপ। এছাড়া রয়েছে পানি ও গ্যাসের সমস্যা।

ছাত্রীরা অভিযোগ করেন, হলে প্রবেশের সময়সীমা বৃদ্ধিসহ বিভিন্ন সমস্যার কথা ছাত্রী হলের সহকারী প্রভোস্ট অধ্যাপক রুবায়েত নাজনীন ও অধ্যাপক পলাশ মন্ডলকে জানালে তাঁরা ছাত্রীদের সাথে দূর্ব্যবহার করেন। এছাড়া প্রায়ই তাঁরা হলের ছাত্রীদের সাথে বিনা কারনে অশালীন আচরন ও দুর্ব্যবহার করেন। এসবের প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার রাতে আন্দোলনে নামেন ছাত্রীরা।

আন্দোলনকারীরা জানান, হলে প্রবেশের ক্ষেত্রে সান্ধ্যা আইন প্রত্যাহার করে শীতকালে হলে প্রবেশের সময়সীমা সাড়ে ৭ টা পর্যন্ত ও গ্রীস্মকালে ৮ টা পর্যন্ত বৃদ্ধি, হলে পুরুষ শিক্ষকদের প্রবেশাধিকার সংরক্ষিত করা, হলে প্রবেশের সড়ক সংস্কার ও সহকারী প্রভোস্ট রুবাইয়াত নাজনিন আখন্দকে প্রত্যাহারসহ ১২ দফা দাবিতে প্রশাসনিক ভবন অবরুদ্ধ করে অবস্থান নেন তারা। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন ছাত্রীরা।

এ ব্যাপারে সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী হলের সহকারী প্রভোস্ট রুবাইয়াত নাজনিন আখন্দ’র সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি কোনো মন্তব্য করতে রাজী হননি। এ ব্যপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপচার্য প্রফেসর ড. গোলাম শাহী আলমও গনমাধ্যমের সাথে কথা বলতে রাজি হননি।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close