সিলেটে ঈদের রাত থেকেই গ্যাস সরবরাহ বন্ধ

gas stationসুরমা টাইমস ডেস্কঃ সিলেটে ঈদুল আযহার দিবাগত রাত ১২টা থেকে পরদিন দিবাগত রাত ১২টা পর্যন্ত ২৪ ঘন্টা সিএনজি ফিলিং স্টেশনসমূহে বন্ধ থাকবে গ্যাস সরবরাহ। কারণ ওই সময় রক্ষণবেক্ষণ ও সংস্কার কাজের জন্য দেশের তিনটি গ্যাস ক্ষেত্র থেকে গ্যাস উত্তোলন বন্ধ থাকবে।
এ তিনটি গ্যাস ক্ষেত্রের মধ্যে দুটিরই অবস্থান সিলেটে। সংস্কার কাজের কারণে আবাসিক গ্যাস সরবরাহও বিঘ্নিত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এ নিয়ে বেশ শঙ্কার মাঝে আছেন সিলেটসহ সারাদেশের গ্যাস ব্যবহারকারিরা।
দেশের তিনটি গ্যাসক্ষেত্রে জরুরি রক্ষণাবেক্ষণ ও সংস্কার কাজ করা হবে ঈদের দিন দিবাগত রাত ১২ টা থেকে পরদির রাত ১২ টা পর্যন্ত। এর মধ্যে দু’টি গ্যাসক্ষেত্রের অবস্থান সিলেটে। এগুলো হল দেশের সর্ববৃহৎ গ্যাসক্ষেত্র হবিগঞ্জের নবীগঞ্জের ‘বিবিয়ানা’ ও লাক্কাতুরাস্থ সিলেট গ্যাস ক্ষেত্র।
কাজ চলমান অবস্থায় দেশের সকল সিএনজি সকল সিএনজি ফিলিং স্টেশনসশূহে গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকবে। একটানা ২৪ ঘন্টা গ্যাসের সরবরাহ বন্ধ থাকায় বেশ সমস্যা পোহাতে হবে মানুষদেরকে।
বিশেষ করে ঈদের পরদিন মানুষরা আত্মীয় স্বজনের বাড়ি, পর্যটন কেন্দ্রসমূহে বেড়াতে যান। এসময় যাত্রাপথে তাদেরকে গ্যাসচালিত যানবাহনই ব্যবহার করতে হয়। দীর্ঘদিন ধরে দেশের পরিবহন সেক্টর গ্যাসের উপর নির্ভরশীল।
ঈদের মতো গুরুত্বপূর্ণ সময়ে টানা ২৪ ঘন্টা গ্যাস সরবরাহ না থাকায় দেশের সকল সিএনজি ফিলিং স্টেশনসমূহের সাথে বন্ধ থাকবে সিলেটের সকল স্টেশনসমূহও। তাই কোনো যানবাহন ওই সময়ে গ্যাস পাবে না। মারাত্মক দুর্ভোগের মুখোমুখি হবেন সিলেটে আগত পর্যটকরা। সমস্যার মাঝে পড়বেন ঈদের ছুটিতে বিভিন্ন স্থানে বেড়াতে যাওয়া মানুষরা।
এদিকে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের গণবিজ্ঞপ্তিতে জানা গেছে, এসময় সকল শ্রেণীর গ্যাস ব্যবহারকারিদের গ্যাস সরবরাহেও সাময়িক বিঘ্ন ঘটতে পারে।
প্রসঙ্গত, সারাদেশে এই গ্যাস বন্ধ থাকার কথা কয়েকদিন থেকে গণবিজ্ঞপ্তি আকারে প্রচার করছে দেশের বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়।
এ ব্যাপারে সিএনজি ফিলিং স্টেশন ওনার্স এসোসিয়েসনের সিলেট’র সভাপতি জোবায়ের আহমদ চৌধুরী বলেন, গুরত্বপূর্ণ সময়ে এরকম একটি সিদ্ধান্ত জনগণকে চরম সমস্যার মধ্যে ফেলবে। গ্যাস লাইনে গ্যাস থাকবে, কিন্তু যানবাহনে গ্যাস সরবরাহ করা যাবে না।
তিনি বলেন, সারাদেশে গ্যাস সরবরাহ বন্ধ রাখার কোনো মানে নেই। যে এলাকায় সংস্কার কাজ করা হবে সে এলাকায় গ্যাস সরবরাহ বন্ধ রাখা উচিত। কর্তৃপক্ষের এরকম সিদ্ধান্তে সারাদেশের মানুষদের ঈদের আনন্দে, ঈদ ভ্রমণে ব্যাঘাত সৃষ্টি হবে।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close