অর্পিত সম্পত্তি জাতির সঙ্কট, দ্রুত এর সমাধান করতে হবে : সিলেটে ভূমিমন্ত্রী

5553সুরমা টাইমস ডেস্কঃ অর্পিত সম্পত্তি সরকার ও জাতির সংকট উল্লেখ করে ভূমি মন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ এবলেছেন, ‘এই সমস্যার সমাধান করতে হবে। এক্ষেত্রে দেরি করা যাবে না এবং ব্যর্থ হওয়ার সুযোগ নেই।’
তিনি আজ বুধবার সিলেট জেলা পরিষদ মিলনায়তনে রাজস্ব কর্মকর্তাদের নিয়ে আয়োজিত অর্পিত সম্পত্তি বিষয়ক দিনব্যাপী কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানকালে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।
ভূমি মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা, সিলেট বিভাগের সকল অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (রাজস্ব), জোনাল সেটেলমেন্ট অফিসার, উপ-ভূমি সংস্কার কমিশনার, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব), চার্জ অফিসার, রেভিনিউ ডেপুটি কালেক্টর, সহকারী কমিশনার (ভূমি), সদর সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার এবং সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসারদের নিয়ে এ কর্মশালার আয়োজন করা হয়।
প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মন্ত্রী বলেন, ‘মানুষ অর্পিত সম্পত্তি সংক্রান্ত জটিলতা নিরসনে সরকারের আন্তরিকতা নিয়ে প্রশ্ন করে। এই প্রশ্ন দূর করতে হবে।’ মন্ত্রী বলেন, ‘দীর্ঘদিন পরে হলেও একাত্তরের খুনি, লুটতরাজ, ধর্ষণকারি মানবতা বিরোধী অপরাধীদের বিচার হচ্ছে, একইভাবে সরকার অর্পিত সম্পত্তি সমস্যার সমাধান করবে।’
মন্ত্রী আরো বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধ শেষে হয়েছে ১৯৭১ সালে। কিন্তু মুক্তিযুদ্ধে যে চেতনা, প্রত্যাশা ও আকাঙ্খা তা এখনো বাস্তবায়ন করতে পারি নাই।’
তিনি বলেন, ‘জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে ভাষা আন্দোলন থেকে মুক্তিযুদ্ধ পর্যন্ত দীর্ঘ সংগ্রামের মধ্য দিয়ে এদেশ স্বাধীনতা অর্জন করেছে, মুক্তি লাভ করেছে। কিন্তু বঙ্গবন্ধুকে হত্যার কারণে এই মুক্তির যথাযথ মুক্তির স্বাদ আমরা গ্রহণ করতে পারি নাই। জনগণ জাতির জনকের কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনাকে ভোটের মাধ্যমে নির্বাচিত করে প্রধানমন্ত্রী করেছে। ১৯৯৬ সাল থেকে প্রধানমন্ত্রীর প্রত্যাশা অর্পিত সম্পত্তি আইনের যথাযথ প্রয়োগ ও সমাধান।’
মন্ত্রী শামসুর রহমান বলেন, ‘অর্পিত সম্পত্তি নিয়ে সংসদে অনেক আলোচনা, তর্ক-বিতর্কের পর আইন হয়েছে, সংশোধন হয়েছে। কিন্তু আমরা দেখতে পাচ্ছি এই অর্পিত সম্পত্তি আইনের ক্ষেত্রে জনগণের প্রত্যাশা, সরকারের প্রত্যাশা ও আইনের বাস্তব প্রয়োগ রুদ্ধ হয়ে আসছে।’ ‘অনেকে প্রশ্ন করে- আসলে কি আপনারা এ সমস্যাটার সমাধান করতে চান। তখন খুব কষ্ট হয়, লজ্জা পাই।’
ভূমি মন্ত্রী বলেন, ‘এদেশে মুক্তিযুদ্ধে লক্ষ লক্ষ মানুষ জীবন দিয়েছে, গৃহে অগ্নিসংযোগ হয়েছে, মা বোনেরা সম্ভ্রম হারিয়েছে। যারা এসব কুকর্ম করেছে তাদের বিচার নিয়ে মানুষের মনে শংকা ছিল। এতদিন পরে হলেও দেশের আইনেই রাজাকারদের বিচার হচ্ছে, ক্ষতিগ্রস্থরা আজ বিচার পাচ্ছে। একইভাবে এই গণতান্ত্রিক সরকারের সময়ে অর্পিত সম্পত্তি বিষয়ে সকল সমস্যার সমাধান হবে। এটা আমাদের শেষ করতে হবে।’
মন্ত্রী ভূমি কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘অর্পিত সম্পত্তি বিষয়ে জটিলতা মুখোমুখি হলে জেলা প্রশাসক ও বিভাগীয় কমিশনারের শরণাপন্ন হবেন। তারা আপনাদের সহযোগিতা করবেন। এতে অল্প সময়ে এই সমস্যার সমাধান সম্ভব হবে। অন্যথায় মামলার পেছনে আদালত থেকে আদালতে দৌঁড়াতে দৌঁড়াতে মানুষ কেবল হয়রান হবে। বছরে পর বছর সমস্যার সমাধান হবে না।’
তিনি বলেন, ‘এটা নিয়ে দেরি করা যাবে না। এখানে ব্যর্থ হওয়ার সুযোগ নেই। এই সংকট শুধু সরকারের নয়, গোটা জাতির। এটা থেকে উদ্ধারে সবার সহযোগিতা দরকার।’
এছাড়া অগণতান্ত্রিক সরকার আর এদেশের ক্ষমতা গ্রহণ করার সুযোগ পাবেন উল্লেখ করে তিনি সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারিদের সব শংকার উর্ধ্বে আন্তরিক হয়ে কাজ করার আহ্বান জানান।
কর্মশালায় বিশেষ অতিথি ছিলেন সিনিয়র সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম। সভাপতিত্ব করেন সিলেট বিভাগের কমিশনার জামাল উদ্দীন আহমেদ। বক্তব্য রাখেন ভূমি মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব (আইন) মোহাম্মদ হাবিবুল কবির চৌধুরী, সিলেটের জেলা প্রশাসক মো. শহিদুল ইসলাম।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close