প্রথম প্রহরে শহীদ মিনারে মানুষের ঢল ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো…’

0314সুরমা টাইমস ডেস্কঃ বিনম্র শ্রদ্ধা আর ভালোবাসায় ভাষা শহীদদের স্মরণ করলেন সিলেটের মানুষ। একুশে ফেব্রুয়ারির প্রথম প্রহর শনিবার রাত ১২ টায় সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে আসা সর্বস্তরের মানুষের হাতে ছিল ফাগুনে ফোটা ফুলের স্তবক, কণ্ঠে একাত্তরের ঘাতক রাজাকারদের ফাঁসির দাবি, গগণবিদারি শ্লোগান আর বিষাদমাখা চিরচেনা সেই গান ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি/আমি কি ভুলিতে পারি…।’ এই গানে শহীদ মিনার এলাকায় অন্যরকম এক পরিবেশ সৃষ্টি হয়। আজ সেই অমর একুশে ফেব্রুয়ারি। আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও শহীদ দিবস। বিনম্র শ্রদ্ধায় সিলেটের সর্বস্তরের ভাষা প্রেমিক স্মরণ করছে ১৯৫২ সালের এই দিনে বাংলা ভাষার জন্য আত্মদানকারী জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানদের। আজকের এই দিনে সালাম, বরকত, রফিক, জব্বার, সফিউদ্দিনসহ নাম না জানা আরো কয়েকজন মৃত্যুঞ্জয়ী ভাইয়ের রক্ত আর ত্যাগের বিনিময়ে মায়ের ভাষা হিসেবে প্রতিষ্ঠা পায় বাংলা ভাষা। তাদের ত্যাগের বিনিময়ে এখন আমরা সবাই স্বাধীনভাবে কথা বলছি বাংলায়। ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে রাত ১২ টা ১ মিনিট থেকে একুশের প্রথম প্রহরে সিলেটের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে নামে হাজার-হাজার জনতার ঢল। ফুল নিয়ে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে শহীদ মিনারে জড়ো হয় সব শ্রেণী পেশার মানুষ। ঘড়ির কাটা যখন ১২টা ১ মিনিটে ২১ ফেব্রুয়ারির প্রথম প্রহরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের বেদীতে ফুল দিয়ে শুরু হয় ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন। প্রথমে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন শহীদ মিনার বাস্তবায়ন পরিষদ, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ জেলা ও মহানগর কমান্ড ইউনিট। এরপর একে একে সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার, পুলিশের সিলেট রেঞ্জের ডিআইজি, জেলা প্রশাসক, সিলেট মহানগর পুলিশ কমিশনার, পুলিশ সুপার, আওয়ামী লীগ সিলেট জেলা ও মহানগর, বিএনপি সিলেট জেলা ও মহানগর, সিলেট জেলা ও মহানগর, জাসদ, ওয়ার্কার্স পার্টি, গনতান্ত্রিক পার্টি, সিলেট জেলা প্রেসক্লাব, দৈনিক সবুজ সিলেট, উদীচী শিল্পি গোষ্ঠি সিলেট, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট, সম্মিলিত নাট্য পরিষদ, যুবলীগ সিলেট জেলা ও মহানগর শাখা, ছাত্রলীগ জেলা ও মহানগর শাখা, আওয়ামী মুক্তিযুদ্ধা প্রজন্ম লীগ জেলা ও মহানগর শাখা, জাতীয় পার্টি জেলা ও মহানগরসহ বিভিন্ন গণমাধ্যম, মানবাধিকার এবং রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও পেশাজীবী সংগঠনের পক্ষ থেকেও পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শহীদদের শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।
এদিকে, অমর একুশে ফেব্রুয়ারি উপলক্ষ্যে শহীদ মিনার এলাকায় সিলেট মহানগর পুলিশের পক্ষ থেকে কড়া নিরাপত্তা ব্যাবস্থা গ্রহণ করা হয়। শহীদ মিনার এলাকার বিপুলসংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়। পাশাপাশি র‌্যাব ও সাদাপোশাকধারী বিভিন্ন সংস্থার সদস্যরাও নিরাপত্তার জন্য নিয়োজিত ছিলেন।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close