মৌলভীবাজার জেলায় প্রায় ৯০০ পূজা : নিরাপত্তায় থাকবে বিশেষ টিম

সমগ্র বিশ্বে এক সাথে বাঁজবে ঢাঁক

শ্রীমঙ্গল নব দূর্গা পূজা,লালবাগের পূজা মান্ডবে প্রবেশ দ্বার

শ্রীমঙ্গল নব দূর্গা পূজা,লালবাগের পূজা মান্ডবে প্রবেশ দ্বার

মধু চৌবে,শ্রীমঙ্গল থেকেঃ প্রস্তুত পুজারীবৃন্দ প্রস্তুত দেশ প্রস্তুত সমগ্র বিশ্ব এক সাথে মাকে অর্ঘ্য দেওয়ার জন্য। এক সাথে বাজবে ঢাঁক এক সাথে মাকে পূষ্পাঞ্জলি দিবেন ভক্তবৃন্দ। প্রায় মন্ডপে প্রতিমা তৈরীর কাজ ইতোমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে । শ্রীশ্রী দূর্গা দেবীর ষষ্ঠী পূজার মাধ্যমে ৪দিন ব্যাপি পর্যন্ত হিন্দু ধর্মালম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দূর্গা পুজা।ব্যাপক উদ্দিপনা সাজসজ্যা পূজা ঘিরে, সব্রত আয়োজন প্রায় শেষ পর্যায়ে। আজ ৩০ সেপ্টম্বর মঙ্গলবার ষষ্ঠি(অধিবাস), ১ অক্টোম্বর বুধবার প্রথম পূজা সপ্তমি, ২ অক্টোম্বর বৃহস্পতিবার অষ্টমী, ৩ অক্টোম্বর শুক্রবার নবমী এবং ৪ অক্টোম্বর শনিবার দশমী অনুষ্ঠিত হবে। শ্রীমঙ্গল উপজেলায় এবার ১৫১টি সার্বজনীন এবং ১০টি ব্যক্তিগত পূজা অনুষ্টিত হচ্ছে।

DIGITAL CAMERAবাংলাদেশ কেন্দ্রীয় পুজা উদযাপন পরিষদের উপদ্দেষ্টা মন্ডলীর সদস্য,হিন্দু বৌদ্ধ,খ্রিষ্টান এক্য পরিষদের উপদ্দেষ্টা মন্ডলীর সদস্য, মৌলভীবাজার জেলা পুজা উদযাপন পরিষদের সদস্য, শ্রীমঙ্গল পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি উপজেলা চেয়ারম্যান রনধীর কুমার দেব, জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি মিহির কান্তি দেব, জেলা শাখার যুগ্ম সম্পাদক শিক শ্রী জহর তরফদার জানান, মৌলভীবাজার জেলার সাতটি উপজেলার মধ্যে এবারে মৌলভীবাজার সদর উপজেলায় ৬৯টি, রাজনগরে ৭৩, শ্রীমঙ্গলে ১৫১টি, কমলগঞ্জে ১২০টি, কুলাউড়ায় ১৮৮টি, জুড়ীতে ৫৮টি, বড়লেখায় ১২৪টি সহ সার্বজনীন ৭৭৭টি এবং ব্যক্তিগত ভাবে ১২২ টি মিলিয়ে সর্বমোট প্রায় ৯০০ মন্ডপে পূজা অনুষ্ঠিত হবে। প্রতিবারের ন্যায় সব পূজা মান্ডবগুলো কিছু না কিছু ভিন্ন করার চেষ্টায় মগ্ন। শ্রীমঙ্গল উপজেলা ইচ্ছামতিতে এবারও অনুষ্টিত হয়েছে ২৪ সেপ্টেম্বর থেকে নয়দিন ব্যাপী নবদূর্গার পূজা।এরই সাথে উপজেলার রঘুনাথ পুর কালীবাড়িতে ঐতিহ্যবাহী কুমারী পুজা, ৩নং ইউনিয়নের লালবাগ পূজা মান্ডব, শহরের শাপলাবাগ সহ শ্রীমঙ্গলের অধিকাংশ মান্ডব, রাজনগর উপজেলার ঐতিহ্যবাহী পাঁচগাও মান্ডবে বিভিন্ন জেলা উপজেলা থেকে আগত দর্শনার্থীর সার্বিক নিরাপত্তার ব্যবস্থা, পুজা চলাকালীন সময়ে আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি, বিদুৎ সর্বরাহ এবং সার্বিক নিরাপত্তাসহ বিশেষ করে অধিক লোক সমাগম ও ঝুঁকিপূর্ণ মান্ডব গুলোতে অধিক নিরাপত্তা প্রদানের উপর জোর দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়াও পুজাকালীন সময়ে মাদকদ্রব্য ব্যাবহারে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তরকে ব্যাবস্থা নিতে বলা হয়।। চারদিন ব্যাপী সার্বজনীন দুর্গাৎসব আয়োজনে প্রস্তুত জেলা ব্যাপি পুলিশ প্রশাসন।মৌলভীবাজার পুলিশ সুপার তোফায়েল আহমদ জানান, শারদীয় উৎসব নির্বিঘœ ও নিরাপদ করতে প্রতিটি পূজা মন্ডবে আনসার ও পুলিশের পাশাপাশি একটি বিশেষ টিম সার্বনিক নিরাপত্তায় কাজে নিয়োজিত থাকবে। পূজা শুরুর দু দিন পূর্ব থেকে সমাজকল্যান মন্ত্রী সৈয়দ মহসীন আলী জেলার পূজা কমিটির সভাপতি মিহির কান্তি দেব, কেন্দ্রীয় পুজা উদযাপন পরিষদের উপদ্দেষ্টা মন্ডলীর সদস্য রনধীর কুমার দেব, পূজা পরিষদের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ , আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ সহ আইন শৃংখলা বাহিনীর উর্ধতন কর্মকর্তা, বিভিন্ন উপজেলার নির্বাহি কর্মকর্তাকে সাথে নিয়ে জেলার বিভিন্ন পূজা মান্ডব পরিদর্শন করেন। তিনি বলেন পূজাকে ঘিড়ে নিরাপত্তায় থাকবে বিশেষ ব্যবস্থা এতে কোন সন্দেহ নেই।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close