কাল মাঠে নামছে হেফাজত, টার্গেট ২ লাখ লোকের জামায়েত

allama safi_babunagari_hefajotসুরমা টাইমস রপোর্টঃ চট্টগ্রামের ঐতিহাসিক লালদীঘি ময়দানে কাল শুক্রবার সকাল থেকে রেসালত সম্মেলন শুরু করতে যাচ্ছে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ। প্রায় এক বছর নিশ্চুপ থাকার পর বড় ধরনের এই সম্মেলনের আয়োজন করে সংগঠনটি।
দুই দিনব্যাপী সম্মেলনে প্রায় দুই লাখ তৌহিদি জনতার সমাবেশ ঘটবে বলে আশা করছেন সংগঠনের নেতারা। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখবেন হেফাজতে ইসলামের আমির ও চট্টগ্রাম হাটহাজারী মাদ্রাসার পরিচালক আল্লামা শাহ আহমদ শফী।
সম্মেলনে যোগদানের জন্য সারা দেশের কওমি মাদ্রাসা থেকে শত শত ছাত্র, আলেম-ওলামা ইতোমধ্যে চট্টগ্রামে সমবেত হতে শুরু করেছেন। বিশেষ করে চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া, রাউজান, হাটহাজারী, সীতাকুন্ড, মীরসারই, সন্দ্বীপ, পটিয়া, সাতকানিয়া, বোয়ালখালি, লোহাগাড়া, চন্দনাইশ, আনোয়ারাসহ তিন পার্বত্য জেলা, কক্সবাজার, ফেনী, নোয়াখালী, কুমিল্লা, ঢাকা এবং উত্তরবঙ্গ থেকেও জমায়েত হচ্ছে।
দুই দিনব্যাপী রেসালত সম্মেলন করার জন্য চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশ লিখিত ও আনুষ্ঠানিক অনুমতি দিলেও নয়টি কঠোর শর্ত আরোপ করেছে। শর্তগুলো হল, অনুষ্ঠানের অনুমতির বিষয়ে বিধি অনুযায়ী অন্য কোনো কর্তৃপক্ষের অনুমোদন অথবা অনাপত্তি প্রয়োজন থাকলে অবশ্যই তা নিতে হবে। রাষ্ট্রবিরোধী, সামাজিক ও নৈতিকতাবিরোধী এবং ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করে এমন কার্যকলাপ করা যাবে না, সাম্প্রদায়িক অনুভূতিতে আঘাত হানে এমন কোনো বক্তব্য দেওয়া যাবে না।
অগ্নিদুর্ঘটনা রোধ করতে বাধ্যতামূলকভাবে অগ্নিনির্বাপণ সামগ্রী রাখতে হবে। রাস্তায় যানবাহন চলাচলে কোনো প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করা যাবে না, মাহফিলে নিজস্ব স্বেচ্ছাসেবকের মাধ্যমে শৃঙ্খলা রক্ষা করা এবং মেটাল ডিটেক্টরের মাধ্যমে সুইপিং করে নিশ্চিত করতে হবে কোনো বিস্ফোরক ও ক্ষতিকর দ্রব্য সম্মেলনস্থলে নেই এবং যে কোন অনাকাক্সিক্ষত ঘটনার জন্য আবেদনকারী ব্যক্তিগতভাবে দায়ী থাকবেন।
এসব শর্ত লিখিতভাবে মেনে নেওয়ার পর হেফাজতে ইসলামকে দুই দিনব্যাপী রেসালত সম্মেলন করার অনুমতি দেওয়া হয় বলে জানান চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের জনসংযোগ কর্মকর্তা ও অতিরিক্ত উপ কমিশনার (গোয়েন্দা) বাবুল আক্তার। তিনি বলেন, রাজনৈতিক নয়, ধর্মীয় অনুষ্ঠান হওয়ায় পুলিশ শর্ত সাপেক্ষে রেসালত সম্মেলনের অনুমতি দিয়েছে।
হেফাজতে ইসলামের সাংগঠনিক স¤পাদক মাওলানা আজিজুল হক ইসলামাবাদী বলেন, হেফাজতে ইসলাম কোনো রাজনৈতিক সংগঠন নয়, কোনো রাজনৈতিক দলের অ্যাজেন্ডা বাস্তবায়নেও হেফাজতে ইসলাম মাঠে নামেনি। তাই রেসালত সম্মেলনে কোনো রাজনৈতিক বক্তব্যও দেওয়া হবে না।
আজিজুল হক ইসলামাবাদী আরো বলেন, আমরা ইসলামের অধিকার ও আইন বাস্তবায়নে শান্তিপূর্ণ আন্দোলন করছি। দুই দিনের শানে রেসালত স্বতঃস্ফূর্ত ও শান্তিপূর্ণ হবে। আমরা ইতিমধ্যে সম্মেলনের যাবতীয় প্রস্তুতি স¤পন্ন করেছি। শহরজুড়ে মাইকিং করে প্রচারণা চালিয়েছি। দুই দিনের এই সম্মেলনে দুই লাখ তৌহিদি জনতা অংশ নেবেন বলেন তিনি মত প্রকাশ করেন।
সিএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (অপরাধ ও অপারেশন) বনজ কুমার মজুমদার বলেন, রেসালত সম্মেলন শান্তিপূর্ণ ও নির্বিঘœ করতে মহানগর পুলিশের পক্ষ থেকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। শুক্রবার ও শনিবার দুই দিনের এ সম্মেলন ঘিরে লালদীঘি ময়দানে অতিরিক্ত ৩০০ পুলিশ মোতায়েন থাকবে। র‌্যাব-৭-এর একাধিক টিমও কাজ করবে। সম্মেলনে আগত ব্যক্তিরা যাতে নগরীর কোথাও সড়কে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করতে না পারে কিংবা কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটাতে না পারে, সে ব্যাপারে সতর্ক থাকবে পুলিশ।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close