মন্ট্রিয়লে সলিডারিটির একুশে বইমেলা ২১ ফেব্রুয়ারি

বইমেলাসদেরা সুজন (সিবিএনএ) কানাডা থেকে।। মন্ট্রিয়লের সৃজনশীল সংগঠন ‘কানাডা বাংলাদেশ সলিডারিটি’র নিয়মিত আয়োজন একুশে বইমেলা অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে আগামী ২১ ফেব্রুয়ারি। ৪১৯, সেন্ট রকের মূল লবি ও মূল অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে এবারের চতুর্থ বইমেলা, কবিতা আবৃত্তির আসর ও সাংস্কৃতিক উৎসব।

একুশের চেতনায় উজ্জীবিত এ বইমেলায় অন্যান্য বারের মতো এবারও থাকবে বাংলাদেশ, মন্ট্রিয়ল, টরন্টো, অটোয়া ও নিউইয়র্কের কবি সাহিত্যিক ও লেখকদের সরব উপস্থিতি। বইমেলার উদ্বোধন করতে গতবারের মতো এবারও বাংলাদেশ থেকে আসছেন একজন খ্যাতিমান ব্যক্তিত্ব। এ অতিথির নাম খুব শিগগিরই জানানো হবে।

দিনব্যাপী এ মেলার স্টলগুলোতে থাকবে বিভিন্ন ধরনের বইয়ের সমাহার। প্রবাসী ও দেশের লেখকদের বই পাওয়া যাবে মেলায়। সাহিত্য পিপাসু মন্ট্রিয়লবাসী তাদের প্রিয় লেখকদের বইগুলো খুঁজে পাবেন। যেহেতু এবারের মেলাটিও ফেব্রুয়ারির ২১ তারিখে হবে, তাই মেলা প্রঙ্গণে এবারও থাকবে শহীদ মিনার।

শহীদ মিনারে পুষ্পাঞ্জলী দিয়ে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে মেলার উদ্বোধন করা হবে সকালে। এরপর দিনভর চলবে মেলা প্রাঙ্গণে বিভিন্ন অনুষ্ঠান মালা। মেলায় পরিবার-পরিজনসহ আগত অতিথিরাও ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে পারবেন।

বই বিকিকিনির পাশাপাশি মেলায় সারাদিন ধরে চলবে লেখক-পাঠক আড্ডা, মুক্ত আলোচনা, শুভেচ্ছা বক্তব্য, জাগরণের গান, কবিতা পাঠ, গুণীজন সংবর্ধনা, শিশু কিশোরদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা। বিকেলে মূল মঞ্চে অনুষ্ঠিত হবে একুশের চেতনাভিত্তিক সেমিনার। সেমিনারে বক্তা হিসেবে থাকবেন বাংলাদেশ ও টরন্টো থেকে আগত প্রথিতযশা ব্যক্তিত্বরা। পাশাপাশি মন্ট্রিয়লের লেখক, সাহিত্যিকরাও থাকবেন।

সেমিনারের পর শুরু হবে ৬ষ্ঠ কবিতা সন্ধ্যা ও সাংস্কৃতিক উৎসব। বর্ণিল এ পর্বে মন্ট্রিয়লের জনপ্রিয় ছড়াকার, আবৃত্তিকার, কণ্ঠ শিল্পী ও কবিরা ছাড়াও থাকবেন অটোয়া, টরন্টো ও নিউইয়র্কের খ্যাতিমান আবৃত্তিকার ও কণ্ঠ শিল্পীরা।

বইমেলার এ উৎসবকে আরও আনন্দময় করতে এবারও বাংলাদেশ থেকে আসেছেন জনপ্রিয় আবৃত্তিকার ও সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আহকাম উল্লাহ ও নন্দিত আবৃত্তিকার বিলকিস দোলা।

প্রবাসী সাহিত্যিকদের লেখা নিয়ে গতবারের মতো এবারও বইমেলা উপলক্ষে সলিডারিটি একটি একুশে সংকলন প্রকাশ করতে যাচ্ছে। মন্ট্রিয়লের সকল সামাজিক-রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন, সাহিত্যানুরাগী এবং লেখক, কবি, সাহিত্যিক ও সকল প্রিন্ট, অনলাইন ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকদের সহযোগিতা ও উপস্থিতিতে বিগত মেলার মতো এবারের মেলাও সফল হবে বলে আয়োজক সংগঠন কানাডা-বাংলাদেশ সলিডারিটি আশা প্রকাশ করেছে।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close