চিকিৎসার জন্যে ব্যাংককে লাকী আকন্দ

Lucky Akhondoসুরমা টাইমস ডেস্কঃ বাংলা গানের জনপ্রিয় শিল্পী, দেশের অন্যতম সুরকার ও সঙ্গীত পরিচালক লাকী আকন্দের ফুসফুসে ক্যান্সার ধরা পড়ার প্রেক্ষিতে উন্নত চিকিৎসার জন্যে তাঁকে ব্যাংকক নেওয়া হয়েছে। যাওয়ার আগে লাকি আকন্দ সবার প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন, তার চিকিৎসার জন্য যেন কোনো ধরনের বাড়াবাড়ি কিংবা চাঁদাবাজি করা না হয়।
গত সোমবার সব ধরনের পরীক্ষা শেষে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ডাক্তাররা বিষয়টি নিশ্চিত করেন। এ অবস্থায় তাকে দ্রুত উন্নত চিকিৎসার জন্য দেশের বাইরে থাইল্যান্ড অথবা সিঙ্গাপুরে নেয়ার পরামর্শ দিয়েছেন তারা।
১০ সেপ্টেম্বর রাতে লাকি আকন্দকে থাইল্যান্ডের ব্যাংককে নিয়ে যাওয়া হয়। দীর্ঘদিন ধরে শ্বাসকষ্টে ভুগছেন বাংলা সঙ্গীতের এ জনপ্রিয় শিল্পী।
১ সেপ্টেম্বর হঠাৎ করে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে বিএসএমএমইউ’তে ভর্তি করা হয়। প্রাথমিকভাবে কাশির সমস্যার পাশাপাশি লাকীর লিভার ও হৃদযন্ত্রে অতিরিক্ত পানি জমেছে বলে ডাক্তাররা জানিয়েছিলেন। শেষ পর্যন্ত আরও পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর তার ফুসফুসে ক্যান্সার ধরা পড়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তারা।
আশির দশকের তুমুল জনপ্রিয় এ কণ্ঠশিল্পী একাধারে সঙ্গীত পরিচালক, সুরকার ও গীতিকার। ১৯৮৪ সালে সারগামের ব্যানারে প্রথমবারের মতো একক অ্যালবাম প্রকাশ করেন লাকি আখন্দ। ওই অ্যালবামের এই নীল মণিহার, আমায় ডেকো না, রীতিনীতি জানি না, মামনিয়া, আগে যদি জানতাম, সুমনা’ শিরোনামের গান তখন ব্যাপক শ্রোতাপ্রিয়তা পায়।
১৯৮৭ সালে ছোট ভাই হ্যাপী আকন্দের’ মৃত্যুর পর সঙ্গীতাঙ্গন থেকে অনেকটাই স্বেচ্ছায় নির্বাসন যান এ গুণী শিল্পী। মাঝে প্রায় এক দশক নীরব থেকে ১৯৯৮ সালেএ ‘পরিচয় কবে হবে’ ও ‘বিতৃষ্ণা জীবনে আমার’নামে দুটি অ্যালবাম নিয়ে আবারও শ্রোতাদের মাঝে ফিরে আসেন তিনি।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close