প্রাসাদ ছাড়তে হচ্ছে রানি এলিজাবেথকে

Buckingham+Palace-Queen+Elizabethসুরমা টাইমস ডেস্কঃ ৩০০ বছরের পুরনো বাকিংহাম প্যালেসে সংস্কার কাজের জন্য কিছু দিনের জন্য প্রাসাদ ছাড়তে হতে পারে রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথকে। তা যদি হয় তাহলে দ্বিতীয় এলিজাবেথ হিসেবে ১৯৫২ সালে রাজমুকুট নিয়ে সিংহাসনে বসার পর এবারই প্রথম প্রাসাদের বাইরে থাকবেন তিনি। বাকিংহাম প্যালেস সংস্কারের সময়টাতে থাকার জন্য রানি চারটি স্থানের যে কোনো একটি বেছে নিতে পারেন। এগুলো হচ্ছে লন্ডনের পশ্চিম পাশের উইন্ডসর ক্যাসেল, নরফোকের সানড্রিনগাম হাউস এডিনবরার হলিরুড প্যালেস অথবা স্কটল্যান্ডের বালমোরাল ক্যাসল।
রাজপ্রাসাদ সূত্র জানিয়েছে, ছাদ ঠিকঠাক করতে হবে, সেই সঙ্গে বৈদ্যুতিক লাইন পাল্টাতে হবে এবং কাঠের কাজগুলোরও সারাই প্রয়োজন। এজন্য খরচ হবে ২৪ কোটি ডলার। তবে এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি। ব্রিটিশ রাজপরিবারের এই আবাসস্থলটি রাজা তৃতীয় জর্জ কিনেছিলেন তার রানি শার্লটের জন্য। ১৮৩৭ সাল থেকে এটি লন্ডনে রাজার আবাস হিসেবে ব্যবহার হচ্ছে। সুবিশাল বাকিংহাম প্যালেসে মোট ৭৭৫টি কক্ষ রয়েছে। এর মধ্যে ৫২টি রাজকীয় কক্ষ, ১৮৮টি কক্ষ রয়েছে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের।
রাজপ্রাসাদটি সংস্কারের প্রয়োজন রাজপরিবার অনুভব করছেন না বলে যুক্তরাজ্যের আইন প্রণেতাদের অনুযোগ রয়েছে। “তহবিল সংস্থানসহ সব বিষয়গুলো বিবেচনা করে সতর্কতার সঙ্গে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে,” বলেছেন প্রাসাদের এক মুখপাত্র। রাজপরিবারের ব্যয় নিয়েও অনেক কথা উঠছে। সরকারি হিসাবে দেখা যায়, গত অর্থবছরে রাজপ্রাসাদের ব্যয় ছিল সাড়ে ৩ কোটি পাউন্ড। রাজপরিবারের জন্য জনগণের ব্যয় আগামী বছর আরও সাড়ে ৪ কোটি পাউন্ড বাড়ছে।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close