সিলেট বিভাগীয় হোমিওপ্যাথিক চিকৎসক সম্মেলন সম্পন্ন

জাতীয় স্বাস্থ্যনীতিতে ও জাতীয় বাজেট হোমিওপ্যথির যথাযথ স্থান চাই

01 copyসিলেট বিভাগীয় হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসক সম্মেলন ও পদক বিতরণ ২০১৫ এর বক্তারা এ দাবি জানান। অদ্য ৮ই মে শুক্রবার ১ম পর্বে সকাল ১০ টায় বর্ণাঢ্য র‌্যালী শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। অতঃপর জেলা পরিষদ মিলনায়তনে বিজ্ঞানী হেরিং এর আরোগ্য নীতির উপর প্রবন্ধ উপস্থাপনা করেন, বিশিষ্টি হোমিও চিকিৎসক লেখক ও গবেষক ডা: শেখ ফারুক এলাহী। আলোচনায় অংশনেন প্রফেসর ডা: পরিমল চন্দ্র দেব, প্রফেসর ডা: শিব্বির আহমদ শিবলী, অধ্যক্ষ ডা: মোঃ আব্দুল হান্নান চৌধুরী ও ডা: মোঃ আনোয়ার আলী। দ্বিতীয় অধিবেশনে আলোচনা সভা ও হ্যানিম্যানীয় সম্মাননা প্রধান করা হয়। বিভাগীয় আহবায়ক ও বহোপ সিলেটের সভাপতি ডা: বীরেন্দ্র চন্দ্র দেবের সভাপতিত্বে, ড. এম শহীদুল ইসলাম শহীদ ও সদস্য সচিব ডা: এ এ এম শিহাব উদ্দিনের যৌথ পরিচালনায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ হোমিওপ্যাথিক পরিষদ কেন্দ্রীয় সংসদের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অধ্যক্ষ ডা: আব্দুল করিম। বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন ডা: শেখ ফারুক এলাহী, প্রফেসর ডা: শিব্বির আহমদ, বাহোপ কেন্দ্রীয় সংসদের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ডা: অঞ্জন কুমার দাশ। এ বছর যাদের হ্যানিম্যানীয় সম্মাননা দেওয়া হয় তারা হলেন ডা: সারওয়ার আহমদ, শ্রী বীরেশ্বর ভট্রাচার্য্য, ডা: সমরেন্দ্র নারায়ন দাস (মুকুল), ডা: মামুন বখত ও ডা: বিশ্বজিত রায় মন্তোষ। অন্যান্যেদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন আহবায়ক কমিটির সদস্য ডা: ক্ষিতিশ রায় ভানু (সুনামগঞ্জ), ডা: ছরত আলী তরফদার (হবিগঞ্জ), ডা: প্রনব কুমার দলপতি (মৌলভীবাজার), শহীদ সাগ্নিক, ডা: দীলিপ কুমার দাস, ডা: গুপিকা রঞ্জন চক্রবর্তী, ডা: আব্দুর রশিদ লুলু, ডা: বিভাংশু গুন বিভু, ডা: কানুপদ দত্ত, ডা: আয়েশা আক্তার, ডা: পলি রানী মজুমদার, ডা: প্রকৃতি রানী দেব, ডা: মুজাহিদুল ইসলাম (মুগল) প্রমুখ।

বক্তারা স্বাস্থ্যনীতিতে হোমিওপ্যাথির যথাযথ স্থান দেওয়ার দাবি জানান। আসন্ন জাতীয় বাজেটে আনুপাতিক হারে বরাদ্ধেরও দাবি জানান। বক্তারা আরো বলেন আদর্শ হোমিও চিকিৎসক হতে হলে আদর্শ সংগঠনের প্রয়োজন। বাংলাদেশের হোমিওপ্যাথিক পরিষদ জন্মলগ্ন থেকে কাসিক্যাল চিকিৎসা ব্যবস্থার চর্চা, চিকিৎসক ও ছাত্রদের প্রশিক্ষণ কাশের মাধ্যমে মানোন্নয়ন করে যাচ্ছে। এ দেশে শুধু মাত্র প্রচলিত এলোপ্যাথিক চিকিৎসা ব্যবস্থার মাধ্যেমে জনগনের স্বাস্থ্য সেবা দেওয়া সম্ভব নয়। তাই প্রত্যেক বিভগীয়, জেলা সদর হাসপাতাল ও ১৮ হাজার কমিউনিটি কিনিকে হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসক নিয়োগ সময়ের দাবি।বিজ্ঞপ্তি

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close