মহানবী (স.)-কে নিয়ে আঁকা ব্যাঙ্গচিত্র, ২ বন্দুকধারীকে হত্যা

cartoon_04-05-2015সুরমা টাইমস ডেস্কঃ ইসলাম ধর্মে সর্বোচ্চ মর্যাদাসম্পন্ন নবী ও রাসূল হযরত মুহাম্মদ (স.)-কে নিয়ে আঁকা ব্যাঙ্গচিত্রের ওপর একটি সম্মেলন কেন্দ্রের বাইরে হামলাকারী দু’জন বন্দুকধারী পুলিশের গুলিতে নিহত হয়েছে।
বিবিসি জানিয়েছে, ওই সম্মেলনকে কেন্দ্র করেই এ ঘটনা ঘটেছে কিনা তা এখনো স্পষ্ট নয়। যুক্তরাষ্ট্রের ডালাসের উপকণ্ঠে স্থানীয় সময় রোববার রাতে এ ঘটনায় একজন নিরাপত্তা কর্মীও আহত হয়েছেন। ঘটনাস্থল কার্টিস কালওয়েল সম্মেলন কেন্দ্র বন্ধ করে দিয়েছে পুলিশ এবং সরিয়ে নেয়া হয়েছে সম্মেলনে অংশগ্রহণকারীদের। সম্মেলনটির সংগঠক ছিল ইসলাম ধর্মের সমালোচক একটি গোষ্ঠী। মহানবী (স.)-এর ব্যাঙ্গচিত্র আঁকার জন্য নগদ অর্থ পুরষ্কার ঘোষণা করেছিল তারা। সম্মেলনে অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে ইসলামবিরোধী ডাচ রাজনীতিবিদ গির্ট উইল্ডারসও ছিলেন। বার্তা সংস্থা এপি-কে এক প্রত্যক্ষদর্শী জানান, প্রায় ২০টি গুলির আওয়াজ শুনেছেন তিনি।
গারল্যান্ডে অনুষ্ঠিত সম্মেলনটির উদ্যোক্তা ছিল আমেরিকান ফ্রিডম ডিফেন্স ইনিশিয়েটিভ নামের একটি সংগঠন। নিউ ইয়র্কে একটি ইসলামিক কেন্দ্রের জন্য ভবন তৈরির বিরুদ্ধে প্রচারণা চালিয়েছে সংগঠনটি। ইসলামিক কেন্দ্রটির ভবন তৈরির জন্য তহবিল গঠনের উদ্দেশ্যে গত জানুয়ারি মাসে ওই সম্মেলন কেন্দ্রেই একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল। সেই অনুষ্ঠানেরও বিরোধিতা করেছিল কট্টর ইসলামবিরোধীরা। প্রসঙ্গত, ইসলাম ধর্মের অনুসারী অনেক মুসলমানের কাছেই সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা হযরত মুহাম্মদ (স.)-এর ব্যাঙ্গচিত্র অত্যন্ত অপমানজনক। ২০০৬ সালে জিল্যান্ডস-পোস্টেন নামের একটি ড্যানিশ পত্রিকায় মহানবী (স.)-এর ব্যাঙ্গচিত্র প্রকাশিত হলে বিশ্বজুড়ে প্রবল বিক্ষোভ শুরু হয়েছিল।
চলতি বছরের জানুয়ারি মাসেও ফরাসি ব্যাঙ্গধর্মী পত্রিকা শার্লি হেব্দুর কার্যালয়ে দু’জন ইসলামপন্থী বন্দুকধারীর হামলায় সম্পাদকসহ ১২ জন নিহত হয়। ওই পত্রিকাও একই ধরনের ব্যাঙ্গচিত্র এঁকেছিল।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close