সাবেক এম.পি মরহুম আশরাফ আলী স্মরণে শোক সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত

মরহুম আশরাফ আলী ছিলেন গরীব-দুঃখী মেহনতি মানুষের নেতা -এডভোকেট আব্দুল খালিক

Gonodabi Prisod Photo -04-04-15গতকাল শনিবার দুপুর ২.৩০ মিনিটের সময় সিলেট সিটি কর্পোরেশন মিলনায়তনে সাবেক এম.পি বৃহত্তর সিলেট গণদাবী পরিষদের সাবেক সভাপতি মহাম্মদ আশরাফ আলী স্মরণে বৃহত্তর সিলেট গণদাবী পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির পক্ষ থেকে এক আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।
উক্ত আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় সভাপতি ও সিলেট জেলা বারের সাবেক সভাপতি এডভোকেট আব্দুল খালিক। সভা পরিচালনা করেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট মোহাম্মদ বদরুল ইসলাম জাহাঙ্গীর। সভার শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন গণদাবী নেতা আ.ক.ম রফিকুজ্জামান, সভার শুরুতে সকল শহীদদের স্মরণে ১ মিনিট দাঁড়িয়ে নিরবতা পালন করা হয়। এডভোকেট মাওলানা আব্দুর রকিব-এর দোয়া পরিচালনা ও শিরনী বিতরণের মধ্য দিয়ে সভার সমাপ্তি হয়।
সভায় বক্তারা সাবেক এমপি মরহুম জননেতা মহাম্মদ আশরাফ আলীর স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা রেখে তাঁর কর্মময় জীবনের স্মৃতিচারণ করে বলেন, মরহুম আশরাফ আলী ছিলেন গরীব-দুঃখী মেহনতি মানুষের নেতা। সিলেটের দাবী-দাওয়া আদায়ের একজন নিরলস অগ্রসৈনিক। বৃহত্তর সিলেটের মানুষের দাবী-দাওয়া বাস্তবায়নে তিনি সকল ধরনের ত্যাগ স্বীকারে প্রস্তুত ছিলেন। তিনি ছিলেন স্বাধীনতার পক্ষের শক্তি। মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ পরিবারের সদস্যদের প্রতি তাঁর ছিল অকৃত্রিম শ্রদ্ধা। তিনি মৃত্যুর আগ মুহুর্ত পর্যন্ত মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ পরিবারের সদস্যরা যাতে সম্মান পায় সে দিকে সচেষ্ট ছিলেন। তিনি ছিলেন নির্লোভ ব্যক্তিত্ব। তিনি ব্যক্তিগতভাবে লোভ-লালসার উর্ধ্বে ছিলেন। বৃহত্তর সিলেটের ২১ দফা দাবী বাস্তবায়নই ছিল তাঁর স্বপ্ন। বক্তারা তাঁর বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন এবং তাঁর স্বপ্ন বাস্তবায়নে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হন।
আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন সিলেট জেলা বারের সভাপতি এডভোকেট এ.কে.এম শমিউল আলম, গণতান্ত্রিক পার্টির কেন্দ্রীয় সভাপতি ব্যারিষ্টার আরশ আলী, নেজামে ইসলামের কেন্দ্রীয় সভাপতি এডভোকেট মাওলানা আব্দুর রকিব, বৃহত্তর সিলেট জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি জিয়াউদ্দিন লালা, সিলেট জেলা বারের সাবেক সভাপতি এডভোকেট এমাদ উল্লাহ শহিদুল ইসলাম শাহীন, সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক ধিরেন সিং, ওয়ার্কাস পার্টির সাধারণ সম্পাদক কমরেড সিকান্দর আলী, রাজনীতিবিদ মাষ্টার আব্দুন নূর, মুক্তিযোদ্ধা মৃনাল চৌধুরী, আওয়ামীলীগ নেতা নুরুল আমীন, সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল গফুর খালিসাদার, ন্যাপ মহানগরের সভাপতি মো: ইসহাক আলী, এডভোকেট আব্দুল ওয়াদুদ, খলিলুর রহমান ফারুক, সাংবাদিক এম.এ. হান্নান, মরহুম আশরাফ আলীর ছেলে আতিক আশরাফ, এডভোকেট জয়ন্ত চন্দ্র ধর, সাবেক ছাত্রনেতা মাসুম বিল্লাহ চৌধুরী, নজরুল ইসলাম চুনু, হাজী লোকমান মিয়া, নারী নেত্রী হামিদা পারভিন, স্বপ্না আক্তার, নুরুন্নাহার, মাধুরী গুন, আসমা বেগম, মুক্তিযোদ্ধা মানিক মিয়া, আব্দুল মালিক রুনু, ইকবাল হোসেন আফাজ, আমিনুল ইসলাম বকুল, ডা: এ.কে.এম. শিহাব উদ্দিন, দেওয়ান মতিউর রহমান খান, ছাত্রনেতা এম. শামীম আহমদ, আব্দুল মুমিন লাহিন, রকি দেব, আব্দুর রকিব চৌধুরী (তোতা), পারভেজ হাসান সাগর, মুহিবুল ইসলাম ফটিক, নুর উদ্দিন রাসেল, আবুল কাশেম হেলাল তপাদার, সালমা আক্তার পপি, ইরশাদ আলী মেম্বার, সৈয়দ হুরুজ্জামান, ব্রজ গোপাল চৌধুরী, আফজাল হোসাইন সোহেল, এহসানুল হক মিনহাজ, সাংবাদিক শামীম আহমদ তালুকদার, কয়েছ আহমদ, মোঃ নজরুল ইসলাম রেজওয়ান, হাজী মো: আনা মিয়া, মকসুদ আলী, আব্দুল্লাহ খোকন প্রমুখ।বিজ্ঞপ্তি

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close