স্বনামেই বাংলা ছবির সিংহাসনে নায়ক আলমগীর

Actor Alamgir-Bসুরমা টাইমস ডেস্কঃ উপমা কিংবা খেতাব নয়, স্বনামেই বাংলা ছবির সিংহাসনে অধিষ্টিত নায়ক আলমগীর। আলমগীর মানেই অভিনয়ে ভিন্নতা, পর্দায় প্রাণবন্ত উপস্থিতি। দেশ ও দেশের গন্ডি ছাড়িয়ে অনেক ছবিতে অভিনয় করে কুড়িয়েছন প্রসংশা। তার অভিনয়ে দর্শক ভেসেছেন ভাবাবেগে, হৃদয়ের মণিকোঠায় স্থান দিয়েছে প্রিয় অভিনেতাকে। অভিনয় করেছেন সমসাময়িক প্রায় সকল নায়িকার সঙ্গে। তবে একটি পরিসংখ্যান থেকে জানা যায় যে দেশীয় চলচ্চিত্রের জুটি প্রথার ইতিহাসে ‘আলমগীর-শাবানা’ জুটি হয়ে সর্বাধিক ছবিতে অভিনয় করেছেন। এই জুটির ছবির সংখ্যা ১২৬টি এবং প্রায় সবগুলো ছবিই হিট-সুপারহিট ব্যবসা করেছে যা অন্যান্য জুটির ক্ষেত্রে ঘটেনি।
১৯৫০ সালের ৩ এপ্রিল ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে জন্মগ্রহণ করেন নায়ক আলমগীর । আলমগীরের পিতা আলহাজ কলিম উদ্দিন আহমেদ (দুদু মিয়া) ছিলেন ‘মুখ ও মুখোশ’ ছবির অন্যতম একজন প্রযোজক। গায়িকা আঁখি আলমগীর তার কন্যা। আলমগীরের প্রথম স্ত্রী ছিলেন গীতিকার খোশনুর আলমগীর। তাঁর সাথে বিবাহ বিচ্ছেদের পর আলমগীর গায়িকা রুনা লায়লাকে বিয়ে করেন।
আলমগীর অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র ‘আমার জন্মভূমি’। তার অভিনীত দ্বিতীয় চলচ্চিত্র ছিল ‘দস্যুরানি’। এরপর তিনি অনেক ছবিতে কাজ করেন। যারমধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে ‘চাষীর মেয়ে’, ‘জয় পরাজয়’, ‘লাভ ইন সিমলা’, ‘হাসি কান্না’, ‘জাল থেকে জ্বালা’, ‘জয় পরাজয়’, ‘শাপমুক্তি’, ‘গুন্ডা’, ‘মাটির মায়া’, ‘মনিহার’, ‘লুকোচুরি’, ‘হীরা’, ‘মমতা’, ‘মনের মানুষ’, ‘রাতের কলি’, ‘মধুমিতা’, ‘হারানো মানিক’, ‘মেহেরবানু’, ‘কন্যাবদল’, ‘কাপুরুষ’, ‘শ্রীমতি ৪২০’, ‘জিঞ্জির’, ‘বদলা’, ‘সাম্পানওয়ালা’, ‘কসাই’, ‘প্রতিজ্ঞা’, ‘লুটেরা’, ‘চম্পাচামেলী’, ‘গাঁয়ের ছেলে’, ‘ওস্তাদ সাগরেদ’, ‘দেনা পাওনা’, ‘মধুমালতী’, ‘আশার আলো’, ‘বড় বাড়ীর মেয়ে’, ‘আল হেলাল’, ‘সবুজ সাথী’, ‘রজনীগন্ধ্যা’, ‘ভালোবাসা’, ‘লাইলী মজনু’, ‘বাসরঘর’, ‘মান সম্মান’, ‘ধনদৌলত’, ‘নতুন পৃথিবী’, ‘হাসান তারেক’, ‘সালতানাত্’, ‘দ্বীপকন্যা’, ‘সকাল সন্ধ্যা’, ‘মহল’, ‘অগ্নিপরীক্ষা’, ‘সখিনার যুদ্ধ’, ‘ভাত দে’, ‘হিসাব নিকাশ’, ‘দুই নয়ন’, ‘অন্যায়, ‘গীত’ ‘ঘরের লক্ষ্মী’ ইত্যাদি। ১৯৮৫ সালে তিনি ‘মা ও ছেলে’ ছবিতে অভিনয়ের জন্য জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন। এরপর তিনি ১৯৮৭, ১৯৮৯, ১৯৯০, ১৯৯১, ১৯৯২ এবং সর্বশেষ ১৯৯৪ সালে একই সম্মানে ভূষিত হন।
১৯৮৬ সালে তিনি প্রথম ‘নিষ্পাপ’ ছবি নির্মাণের মধ্যদিয়ে পরিচালক হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেন। তার নির্দেশনায় নির্মিত সর্বশেষ ছবি হচ্ছে ‘নির্মম’। তার দীর্ঘদিনের চলচ্চিত্রের ক্যারিয়ারে একজন সংগীত শিল্পী হিসেবেও তিনি চলচ্চিত্রে গান গেয়েছেন। ‘আগুনের আলো’ ছবিতে তিনি প্রথম প্লে-ব্যাক করেন। এরপর তিনি ‘কার পাপে’, ‘ঝুমকা’ ও ‘নির্দোষ’ ছবিতেও প্লে-ব্যাক করেন।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close