ভিসির মধ্যস্ততায় শাবি ছাত্রলীগে সমঝোতা

সুsChhatroleage SUSTসুরমা টাইমস ডেস্কঃ শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের কমিটি পক্ষ ও কাঙ্খিত পদ না পাওয়া পক্ষের নেতাকর্মীদের মধ্যে সমঝোতায় কোন্দলের অবসান হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির কনফারেন্স কক্ষে আয়োজিত এক বৈঠকে সংগঠনটির উভয় পক্ষের অনুসারীরা একে অপরকে মিষ্টি খাইয়ে সমঝোতায় আসেন। এতে করে ২০১৩ সালের ৮ মে সংগঠনিটর কমিটি হওয়ার প্রায় ২ বছর পর কমিটি পক্ষ ও কাঙ্খিত পদ না পাওয়া পক্ষের অনুসারীদের মধ্যে কোন্দলের অবসান হল। তবে ছাত্রলীগের পদবঞ্চিত আরেক পক্ষ রেদুয়ান-মিসবাহ ও রানা’র অনুসারীরা পৃথকভাবে কর্মসূচি চালিয়ে যাবে বলে জানিয়েছে।
জানা গেছে, ২০১৩ সালের ৮ মে ছাত্রলীগের সাত সদস্য বিশিষ্ট কমিটি হলেও ক্যাম্পাসে প্রবেশ করতে পারেনি কমিটির নেতারা। আবাসিক হলগুলোর দখলে ছিল পদবঞ্চিত উত্তম কুমার দাশ, কাঙ্খিত পদ না পাওয়া শাবি ছাত্রলীগে সহ সভাপতি অন্জন রায় অনুসারি ছাত্রলীগ কর্মীদের। এনিয়ে বিবদমান গ্রুপগুলোর মধ্যে বিভিন্ন সময় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ ও পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি পালন করেছে। মঙ্গলবার দুপুরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৫তম জন্মদিবস উপলক্ষে মিনি অডিটোরিয়ামে বিশ্ববিদ্যালয় আয়োজিত আলোচনা সভায় ছাত্রলীগের তিনটি পক্ষ একসাথে অংশ নেয়।
পরে ভিসির কনফারেন্স কক্ষে ভিসি প্রফেসর আমিনুল হক ভুঁইয়ার সভাপতিত্বে শাবি ছাত্রলীগের সভাপতি সঞ্জীবন চক্রবর্তী পার্থ, সহ-সভাপতি আবু সাইদ আকন্দ, সাধারণ সম্পাদক ইমরান খান ও যুগ্ম-সম্পাদক সাজিদুল ইসলাম সবুজ এবং পদবঞ্চিত উত্তম কুমার দাশ, শাবি ছাত্রলীগে সহ সভাপতি অন্জন রায়ের সাথে মিটিং করে একে অপরকে মিষ্টি খাইয়ে সমঝোতায় আসেন। এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষক সমিতির সভাপতি মো. কবির হোসেন, সাধারন সম্পাদক মো. আব্দল গণি, ছাত্র উপদেশ ও নির্দেশনা পরিচালক মো আনোয়ারুল ইসলাম দিপু, ভারপ্রাপ্ত প্রক্টও এমদাদুল হক, হল প্রভোস্ট মো. ফারুক উদ্দিন ও সঞ্জয় কৃষ্ণ বিশ্বাস। এনিয়ে সিলেটের স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাদেরসহ আগামী ২৫মার্চ আবারো আলোচনায় বসা হবে বলে সভায় সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এর আগে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মদিবস উপলক্ষে ছাত্রলীগের তিনটি পক্ষ পৃথক কর্মসূচি পালন করে।
শাবি ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি অন্জন রায় জানান, আমাদের অভ্যন্তরীন সমস্যা কাটাতে সমঝোতার চেষ্টা চলছে। পাশাপাশি তিনি ২০ নভেম্বরের ঘটনায় সুমন দাশ হত্যার খুনিদের বিচারের দাবি জানান।
শাবি ছাত্রলীগের সভাপতি সঞ্জীবন চক্রবর্তী পার্থ জানান, ক্যাম্পাসে ছাত্রলীগের কার্যক্রমকে সুসংগঠিত করতে আমরা একসাথে কাজ করার অঙ্গিকার করেছি। যারা এতো দিন ভুল বুঝেছিল আশা করি তাদের শুভবুদ্ধির উদয় হয়েছে। তাদেরকে এবং বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে তিনি ধন্যবাদ জানান।
শাবি ভিসি প্রফেসর আমিনুল হক ভুঁইয়া জানান, বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ বঙ্গবন্ধুর আদর্শে বিশ্বাস করে তাদেরকে সহনশীল হয়ে পড়াশুনায় মনেযোগী হওয়ার আহবান জানান। ছাত্রলীগ নিজেদের মধ্যে বিবাদ ভুলে এক হওয়ায় তাদের ধন্যবাদ জানান। পাশাপাশি বিভিন্ন অনাকাঙ্খিত ঘটনাগুলো তদন্ত সাপেক্ষে বিচার কাজ চলবে বলে তিনি জানান।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close