শিক্ষকতা জীবনের ইতি টানলেন জামেয়ার ভাইস প্রিন্সিপাল আব্দুস শাকুর

28-1-15সাবেক ও বর্তমান ছাত্রছাত্রী,সহকর্মী,শুভাকাঙ্খীদের ভালবাসা শ্রদ্ধা আর ফুলেল শুভেচ্ছা নিয়ে দীর্ঘ ৪২ বছরের শিক্ষকতা জীবনে ইতি টানলেন শাহজালাল জামেয়া ইসলামিয়া স্কুল অ্যান্ড কলেজের ভাইস প্রিন্সিপাল আবদুস শাকুর। গতকাল বুধবার তার বিদায় সংবর্ধনা উপলক্ষে জামেয়া ক্যাম্পাস পরিনত হয় নবীণ,প্রবীণ. শিক্ষানরাগী,বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রধান, শিক্ষক অভিভাবকদের মিলন মেলায়। একজন প্রকৃত শিক্ষাগুরুকে সম্মান জানাতে তারা জড়ো হন এখানে।

জামেয়ার ভারপ্রাপ্ত প্রিন্সিপাল মজির উদ্দিনের সভাপতিত্বে এবং কলেজ ইনজার্জ গোলাম রব্বানী ও সিনিয়র শিক্ষক মুহাম্মাদ মুহিব আলীর যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠিত বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ঠি শিক্ষাবিদ জামেয়া গভর্নিং বডির চেয়ারম্যান অধ্যাপক ফজলুর রহমান, সাবেক এমপি জামেয়ার প্রতিষ্ঠাতা প্রিন্সিপাল মাওলানা ফরিদ উদ্দিন চৌধরী,শাহজালাল জামেয়া ইসলামিয়া কামিল মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা লুৎফুর রহমান হুমায়দী, কাজী জালাল উদ্দিন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও শিক্ষক সমিতির নেতা আব্দুল খালিক,আব্দুল গফুর উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের প্রিন্সিপাল গোলাম আযম. মডেল স্কুলের সহকারী প্রধান শিক্ষক এ কে আজাদ চৌধুরী, বিশিষ্ঠ আইন জীবি ্ডভোকেট কুতুব উদ্দন ,জামেয়ার সাবেক ছাত্র ১৮ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর এ বি এম জিল্লুর রহমান উজ্জল,১৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল মহিত জাবেদ।
সংবর্ধনা সভায় বক্তারা বলেছেন আব্দুস শাকুর এমন একজর শিক্ষাগুরু যিনি জামেয়ার জন্য এক অতিকায় মহিরুহে পরিণনত হয়েছিলেন। জামেয়ার মৌলনীতি ও আদর্শের প্রশ্নে তিনি আপোষহীন ভুমিকা পালন করেছেন। বলা চলে তিনিি বজ্রের মতো কঠোর ছিলেন। দীর্ঘ শিক্ষকতা জীবনে তিনি জ্ঞানের মশাল জালিয়ে শত সহ¯্র গোলাপকে প্রস্ফুটিত করার সাধনা করেগেছেন। তার কর্ম সাধনাকে সকলে শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করেন এবং তার দীর্ঘায়ু কামনা করেন।
বিশিষ্ঠ শিক্ষাবিদ ও ইসলামী চিন্তাবিদ অধ্যাপক ফজলুর রহমান বলেছেন বিদায়ী শিক্ষক আব্দুস শাকুর এককজন কর্তব্যপরায়ন শিক্ষক। তিনি অবসরে যাওয়ার পরে এখন থেকে দি ইসলামিক সোসাইটির সেক্রেটারী দায়িত্ব পালন করবেন। তিনি শিক্ষার উন্নয়নে আরো কাজ কওে যাবেন।
সাবেক এমপি ও জামেয়ার প্রতিষ্ঠাতা প্রিন্সিপাল মাওলানা ফরিদ উদ্দিন চৌধরী রলেছেন নবীরা মানব জাতির সর্বোত্তম শিক্ষক। শিক্ষরা মূলত নবীদেও কাজ করে শদ্ধাভাজন হয়ে থাকেন। তিনি আব্দুস শাকুরকে একজন নিষ্ঠাবান শিক্ষক হিসেবে অভিহিত করেন।
শিক্ষকদের মধ্যে বক্ত্য রাখেন স্কুল ইনচার্জ আবুল কালাম আজাদ, ি শক্ষক প্রতিনিধি জাফর ইকবাল মাহমুদ , সিনিয়র শিক্ষক আব্দুল মোতালেব, সিনিয়র শিক্ষক আব্দুল জলিল, সিনিয়র শিক্ষক এনামুল হক, সিনিয়র শিক্ষক মোস্তফা কামাল, সাবেক ছাতদেও মধ্যে বক্তব্য রাখেন ডা, ফজলুল হক সোহেল, এমদাদুল হক সিদ্দীক,আকিফ ইফরান. মুনাজ্জির আহমদ, ১০ম শ্রেনির ছাত্র শহিদ উদ্দিন, এসএসসি পরীক্ষাথীদেও পক্ষে আব্দুল্লা সিদ্দিক মো. সাইদ ,কলেজ ছাত্রদেও পক্ষে মো: আব্দুল্লাহ হাসান প্রমুখ।
বিদায়ী শিক্ষককে উপহার ও ক্রেস্ট তুলেদেন ভারপ্রপ্ত প্রিন্সিপাল মজির উদ্দিন, সহকারী অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম মজুমদার,এঞলাছুর রহমান। মানপত্র পাঠ করেন প্রভাষক আব্দুল্লাহ আল মামুন, ১০সম শ্রেনীর ছাত্র মাহমুদুল হাসান মাহদী

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close