ছাত্রলীগের কমিটি নিয়ে কোটি টাকার বানিজ্য : সুরঞ্জিতের বক্তব্য নিয়ে তোলপাড়

সুমন হত্যা নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর তদন্ত দাবি সুরঞ্জিতের : প্রতিবাদ জানালেন ছাত্রলীগ সভাপতি

Suronjeet-Suhagসুরমা টাইমস ডেস্কঃ শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের দু’পক্ষে রক্তক্ষয়ী বন্দুকযুদ্ধে ছাত্রলীগ কর্মী সুমন চন্দ্র দাসকে হত্যার পর ‘সে দলের কেউ নয়’ বলে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের অস্বীকার করা নিয়ে চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামন্ডলীর সদস্য সুরঞ্জিত সেন গুপ্ত এমপি। তিনি বলেন, ছাত্রলীগ কর্মী সুমন হত্যার পর আবার তড়িঘড়ি করে বলা হয় সে ছাত্রলীগ না। অথচ সুমনের পরিবার আজন্ম আপাদমস্তক আওয়ামী লীগ ও বঙ্গবন্ধুর সৈনিক। প্রধানমন্ত্রীকে এ হত্যাকান্ড নিয়ে তদন্তের অনুরোধ করে তিনি বলেন, তদন্ত করে দেখুন এখানে ছাত্রলীগের কতটা কমিটি বাণিজ্য রয়েছে।
শাবিতে ছাত্রলীগের বন্দুকযুদ্ধে নিহত সুমন সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির বিবিএ’র ছাত্র। সুমনের গ্রামের বাড়ি সুরঞ্জিত সেন গুপ্তের নির্বাচনী এলাকা দিরাই উপজেলায়। সোমবার দুপুরে আইডিইবি ভবনে দেশের চলমান রাজনীতি নিয়ে বক্তব্যে শুরুতেই তিনি সুমন হত্যা নিয়ে কথা বলেন। নৌকা সমর্থক গোষ্টী নামে একটি সংগঠন এ আলোচনার আয়োজন করে।
সুমনকে ব্যক্তিগতভাবে চিনেন উল্লেখ করে সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত বলেন, ‘তাকে নির্মমভাবে হত্যা করার পর আবার ছাত্রলীগ বলছে সে ছাত্রলীগ না। এই বিষয়টি নিয়ে সিলেটবাসী ও আমার মনে বড় কষ্ট।’
প্রধানমন্ত্রীর কাছে সুমন হত্যাকান্ডের তদন্ত দাবি করে সুরঞ্জিত বলেন, দলের প্রধান ও দেশের প্রধানমন্ত্রী তদন্ত করে দেখুন এখানে ছাত্রলীগের কতটা নিয়োগ বাণিজ্য, কতটা ভর্তি বাণিজ্য, কতটা নীতি আদর্শের ন্যায্যতা। সুরঞ্জিত বলেন, সুমনের পরিবার অত্যন্ত রাজনৈতক সচেতন।
আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন নৌকা সমর্থক গোষ্টী সংগঠনের সভাপতি আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয কমিটির সহ-সম্পাদক ব্যারিষ্টার জাকির আহমদ। আরও বক্তব্য দেন, আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য সতিশ চন্দ্র রায়, ঢাকা মহনগর আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ফয়েজ উদ্দিন আহমদ, সাম্যবাদী দলের নেতা বীরমুক্তিযোদ্ধা হারুণ চৌধুরী প্রমুখ।
এদিকে রঞ্জিত সেন গুপ্ত এমপির দেয়া বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়েছেন সিলেট মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি রাহাত তরফদার। সোমবার এক বিবৃতিতে তিনি এই প্রতিবাদ জানান। রাহাত তরফদার এই বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, ‘সিলেট মহানগর ছাত্রলীগের কমিটি নিয়ে কখনো কোনো বাণিজ্য হয়নি। বাণিজ্যের সুযোগ নেই। মহানগর ছাত্রলীগে ছাত্রত্ব, মেধা ও ত্যাগীদের নিয়েই কমিটি গঠিত হয়েছে। কোনো আর্থিক লেনদেনের মাধ্যমে হয়নি।’
নিজ সংগঠনের পদ বাণিজ্য নিয়ে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের দেওয়া বক্তব্যক নিয়ে কেন্দেও চলছে তোলপাড়। সুরঞ্জিতের বক্তব্যকে চ্যালেঞ্জ করেছে ছাত্রলীগ।
ছাত্রলীগের সভাপতি এইচএম বদিউজ্জামান সোহাগ এক বিবৃতিতে আওয়ামী লীগ নেতার ওই বক্তব্যকে অসত্য ও কল্পনাপ্রসূত বলে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়েছেন। সোমবার ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির দফতর সম্পাদক শেখ রাসেল স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে সোহাগ এ চ্যালেঞ্জ জানান।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close