তাহিরপুরে ত্রান বিতরনে অনিয়ম : বিক্ষোভ মিছিল, জেলা প্রশাসক বরাবরে স্মারকলিপি

tahirpurতাহিরপুর প্রতিনিধিঃ তাহিরপুরে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থদের ত্রান বিতরনের তালিকা তৈরীতে স্বজনপ্রীতি ও অনিয়ম দূর্নীতির প্রতিবাদে উপজেলা সদরে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ও এলাকার সচেতন মহলের পক্ষ থেকে মিছিল ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারের মাধ্যমে সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসক বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান। জানা যায়,সম্প্রতিকালের বন্যায় তাহিরপুর উপজেলায় বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থদের সাহায্যার্থে তাহিরপুরে সিএনআরএস এর সহযোগিতায় অক্সফাম উপজেলার ৭ টি ইউনিয়নের মধ্যে ৫ টি ইউনিয়নের ১ হাজার ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারকে নগদ ২ হাজার ৫,শ ও ৭,শ টাকার আনুসাংগিক নিত্যপ্রয়োজনীয় ত্রানসামগ্রী নির্ধারন করে গতকাল মঙ্গলবার সকালে উপজেলার দক্ষিনশ্রীপুর ইউনিয়নে নির্ধারিত ২৩৫ পরিবারের মধ্যে ত্রান বিতরন শুরু করে। এবং অবশিষ্ট ইউনিয়ন তাহিরপুর সদর ২শ ১৫, উত্তরবড়দল ২শ, উত্তরশ্রীপুর ২শ ও বালিজুরী ইউনিয়নে ১শ ৫০ পরিবারকে অর্থ ও ত্রান সামগ্রী দেয়ার তালিকা করে অক্সফামের সহযোগী সংগঠন সিএনআরএস। এলাকার সচেতন মহল ও বন্যায় প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্থদের অভিযোগ স্থানীয় এনজিও সিএনআরএস ঘরে বসে ৩ দিনের মধ্যে প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্থদের বাদ দিয়ে স্বজনপ্রীতি ও অনিয়ম দূর্নিতীর মাধমে তালিকা তৈরী করে বন্যায় ক্ষগ্রিস্থদের মধ্যে অর্থ ও ত্রান সামগ্রী বিতরণ শুরু করেছে।এর প্রতিবাদে গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে একটি বিক্ষোভ মিছিল করে প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্থ ও এলাকার সচেতন মহল। মিছিল শেষে তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সাধ্যমে সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসককে একটি স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। মঙ্গলবার দুপুরে দক্ষিনশ্রীপুর ইউনিয়ন পরিষদ প্রাঙ্গনে ত্রান বিতরণ কালে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের নোয়াগাও গ্রামের কৃপা সিন্দু সরকার, বিমল সরকার, সেতুবালা সরকার,আনন্দ নগর গ্রামের মৌজ আলী, মরম আলী, লামাগাও গ্রামের সবুজ মিয়া, রামুসিংহপুর গ্রামের তারা মিয়া, ছয়ফুল মিয়া, সন্তোষপুর গ্রামের ¯েœহলতা, দুমাল গ্রামের সাকিরুল সহ শত-শত প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারারের লোকজন অভিযোগ করে বলেন,বন্যার সময় কিংবা পরবর্তীতে এনজিওর লোকজন সরজমিনে এসে ক্ষগ্রিস্থদের চিন্নিত করে তালিকা করে নি। বর্তমান তালিকায় যাদের নাম রয়েছে তারা বেশীরভাগ লোক এনজিও কর্মকর্তা ইয়াহিয়ার পছন্দের লোক । অপরদিকে দক্ষিন বড়দল ও বাদাঘাট ইউনিয়নের লোকজনের অভিযোগ বন্যায় যাদুকাটা ও মাহরাম নদী দিয়ে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে তাদের ইউনিয়নে সর্বাধিক ক্ষতি হয়েছে কিন্তু তাদের দু ইউনিয়নের মধ্যে একটি ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারেরও নাম অর্ন্তভূক্তি হয়নি অক্সফাম ও সহযোগি প্রতিষ্টান সিএনআরএসএর ত্রান সামগ্রী বিতরণ তালিকায়। দক্ষিন বড়দল ইউনিয়নের ঠাকাঠুকিয়া গ্রামের বিকাশ সরকার বলেন,আমাদের ইউনিয়নে সমস্ত কৃষকের রোপা আমান ও ঘরবাড়ি ভেঙ্গে ক্ষতি হলেও আমাদের ইউয়িনের ক্ষতিগ্রস্থদের তালিকা তারা নেয় নি। দক্ষিন বড়দল ইউনিয়ন চেয়ারম্যান সবুজ আলম বলেন,আমার ইউনিয়নে বেশী ক্ষতি হয়েছে সিএনআরএসকে আমরা তালিকাও দিয়েছিলাম কিন্তু তারা আমার দক্ষিনবড়দল ইউনিয়ন ও বাদাঘাট ইউনিয়নে বন্যায় ক্ষতি হয়নি বলে বাদ দিয়েছে।নাম প্রকাশ না করার শর্তে একাধিক ব্যাক্তি জানান, সিএনআরএস সমন্বয়কারী ইয়াহিয়া সাজ্জাদ জামালগঞ্জ উপজেলার এক প্রভাবশালী আওয়ামীলীগ নেতার ছোট ভাই হিসেবে প্রভাব কাটিয়ে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা তৈরীতে স্বজনপ্রীতি ও অনিয়ম দূর্নিতী করেছে।
অক্সফাম প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর মূখলেছুর রহমান স্বপনের ফোনে (০১৬৭২৫৭৫২৫৩)একাধিকবার ফোন দিয়ে কথা বলা সম্ভব হয় নি।
সিএনআরএস তাহিরপুর উপজেলা সমন্বয়কারী ইয়াহিয়া সাজ্জাদ বলেন,চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্যদের সম্পৃক্ত করে নিয়ম অনুযায়ী তালিকা করা হয়েছে।
তাহিরপুর উপজেলা অতিরিক্ত দায়িত্বপ্রাপ্ত নির্বাহী অফিসার খন্দকার মোহাম্মদ আব্দুল্লা আল মাহমুদ বলেন,দাতা সংস্থাদের কিছু নিয়মনীতি থাকায় সেই সাথে পরিমান কম থাকায় কিছুটা সমস্যা হলেও হতে পারে।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close