হাসিনাকে একদিন সকল গুম, খুন ও অন্যায়-অপকর্মের জবাব দিতে হবে

– শমসের মোবিন চৌধুরী বীর বিক্রম

DSC_2851 copyবিএনপি কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান শমসের মোবিন চৌধুরী বীর বিক্রম বলেছেন, শেখ হাসিনা গায়ের জোরে ক্ষমতায় টিকে থাকতে গুম, খুন, হত্যার, রাজনীতির চুড়ান্ত পর্যায়ে পৌছে গেছে। জনগণের ধৈর্যের বাধ ভেঙ্গে গেছে। যেকোন সময় গণবিষ্ফোরন ঘটতে পারে। তখন শেখ হাসিনা পালাবার পথ খুজে পাবেনা। শেখ হাসিনাকে একদিন সকল গুম, খুন ও অন্যায়-অপকর্মের জবাব দিতে হবে দেশবাসীর কাছে। তিনি অনতিবিলম্বে সিলেটবাসীর প্রিয় নেতা বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক সংসদ সদস্য জননেতা এম ইলিয়াস আলীকে জনতার মাঝে ফিরিয়ে দেওয়ার পাশাপাশি গাজায় ফিলিস্তিনের উপর ইসরাঈলী হামলা বন্ধে বিশ্ববাসীর কাছে আহ্বান জানান।

তিনি গতকাল রোববার সিলেট মহানগর বিএনপির উদ্যোগে আয়োজিত ইফতার ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহ সভাপতি নাসিম হোসাইনের সভাপতিত্বে ও আজমল বক্ত চৌধুরী সাদেকের পরিচালনায় স্বাগত বক্তব্যে মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাইয়ুম জালালী পংকী বলেন, আওয়ামীলীগ কখনো সুস্থ ধারার রাজনীতিতে বিশ্বাসী নয়। তারা ক্ষমতাসীন হওয়ার পর থেকে বিএনপি ও বিএনপি’র জনপ্রিয় নেতাদের নিশ্চি‎হ্ন করার সু-গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। ঈদের পরে বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার ডাকে যে সকল কর্মসূচি আসবে তাতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে সকল আন্দোলন সংগ্রামে ঝাপিয়ে পড়ার আহ্বান জানান।
বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, জেলা বিএনপির আহ্বায়ক এডভোকেট নুরুল হক, যুগ্ম আহ্বায়ক দিলদার হোসেন সেলিম, ২০ দলীয় জোটের সদস্য সচিব হাফিজ আব্দুল হাই হারুন, কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য মিজানুর রহমান চৌধুরী মিজান, তারেক আহমদ চৌধুরী, মহানগর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক রেজাউল হাসান কয়েস লোদী, ইসলামী ঐক্যজোট মহানগর সভাপতি মাওলানা ফয়জুল হক জালালাবাদী, খেলাফত মজলিশ সিলেট মহানগর সহ সভাপতি আব্দুল হান্নান তাপাদার, সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ আব্দুল হান্নান, সহ সাধারণ সম্পাদক কে এম আব্দুল্লাহ আল মামুন, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম মহানগর সহ সভাপতি মাওলানা মাহমুদুল হাসান, লেবার পার্টি মহানগর সভাপতি মাহবুবুর রহমান খালেদ, জাতীয় পার্টি (পার্থ)’র জেলা সভাপতি মোয়াজ্জেম হোসেন লিটন, মহানগর বিএনপি নেতা এডভোকেট আতিকুর রহমান সাবু, হুমায়ুন আহমদ মাসুক, কামাল মিয়া, এমদাদ হোসেন চৌধুরী, এডভোকেট আখতার বকস জাহাঙ্গীর, ডাঃ আশরাফ আলী, এডভোকেট বদরুল ইসলাম, আফজল হোসেন, শেখ নুরুল মুত্তাকিন, আবুল হোসেন, আব্দুর রহিম, মির্জা বেলায়েত হোসেন লিটন, আলাউদ্দিন বাদশা, আব্দুল আহাদ হেলাল, মহানগর জামায়াত নেতা নুরুল ইসলাম বাবুল, মাওলানা আব্দুল মুকিত, জেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাফেক মাহবুব, মহানগর ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক নুরুল আলম সিদ্দিকী খালেদ, সহ সভাপতি সালাউদ্দিন মামুন, বিএনপি নেতা ইশতিয়াক আহমদ চৌধুরী, হাবিব আহমদ চৌধুরী শিলু, আমির হোসেন, শ্রমিকদল নেতা সুরমান আলী, ইউনুস মিয়া, বিএনপি নেতা আশরাফ গাজী, আব্দুস সাত্তার আমিন, জেবুল হোসেন ফাহিম, মুফতি নেহাল, রেজাউল করিম আলো, আলাউদ্দিন সওদাগর, শাহজাহান সেলিম বুলবুল, লায়েছ আহমদ, আব্দুল হাকিম, মুকুল মুর্শেদ, লিয়াকত আলী, জাকির হোসেন, খছরুজ্জামান, আশরাফ উদ্দিন, শেখ কবির আহমদ, এডভোকেট তারেক আহমদ, রুহুল কুদ্দুস চৌধুরী হামজা, সুহেল বাসিত, সেলিম আহমদ, সিরাজ খান, কয়েস আহমদ সাগর, শেখ ইলিয়াস, পিয়ার উদ্দিন পিয়ার, জালাল উদ্দিন শামীম, ছাত্রদল নেতা রাশেদুল হাসান খালেদ, বেলায়েত হোসেন মোহন, লিটন আহমদ, মির্জা সম্রাট, মলয় লাল ধর, জাহেদ আহমদ, আখতার হোসেন ভিরু, পারভেজ খান জুয়েল, আব্দুল হাসিব, মোঃ শামীম রেজা, শাহরিয়ার জালালী কাইজার প্রমুখ। সভায় ফিলিস্তিন সহ বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর শান্তি কামনা করে মোনাজাত পরিচালনা করেন হাফিজ আব্দুল আজিজ।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close