শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষা শুরুর আগেই প্রশ্নপত্র ফাঁস

proshnoসুরমা টাইমস ডেস্কঃ এইচএসসি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র পাশ নিয়ে যখন সারাদেশে সমালোচনা ও প্রতিবাদের ঝড় বইছে। এমন সময়ে এবার শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগ উঠেছে। আজ শুক্রবার সকাল ৯টা থেকে সারাদেশে একযোগে এই পরীক্ষাটি অনুষ্ঠিত হবে। এদিকে, পরীক্ষার আগের প্রশ্নপত্র ফাঁসের গুজব রটেছে। ফাঁস হওয়া প্রশ্নপত্রের ফটোকপি নগরীর বিভিন্ন স্থানে বিক্রি হয়েছে বলেও খবর পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার দুপুর থেকেই নগরীর বিভিন্ন স্থানে শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার কথিত প্রশ্নপত্র বিলি হতে দেখা যায়। অনেক পরীক্ষার্থীর হাতেও পৌঁছে যায় আজকের পরীক্ষার প্রশ্ন। নগরী ও দক্ষিণ সুরমার বিভিন্ন সাইবার ক্যাফেতে বৃহস্পতিবার এই প্রশ্নপত্র বিক্রি হতে দেখা যায়।
কিছুতেই প্রশ্নপত্র ফাঁস ঠেকাতে পারছেনা শিক্ষা মন্ত্রণালয়। পরীক্ষার আগেই শিক্ষার্থীদের হাতে হাতে পৌঁছে যাচ্ছে প্রশ্নপত্র। চলামান এইচএসসি পরীক্ষায় এ ভয়ঙ্কর আকার ধারণ করেছে। এইচএসসির প্রায় সবকটি পরীক্ষার আগের দিনই ফাঁস হয়ে যায় প্রশ্নপত্র। ফেইসবুকসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রশ্নপত্র তুলে দেন অনেকেই। অনলাইনের মাধ্যমে পরীক্ষার আগেই পরীক্ষার্থীদের ঘরে পৌঁছে যায় প্রশ্ন। এনিয়ে দেশজুড়ে চলছে সমালোচনা। প্রশ্নপত্র ফাঁস রোধে শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে উচ্চ পর্যায়ের একটি কমিটিও গঠন করা হয়েছে। তবুও ঠেকানো যাচ্ছেনা প্রশ্ন ফাঁসের মতো ভয়ঙ্কর ঘটনা। সর্বশেষ বৃহস্পতিবার আজ শুক্রবার অনুষ্ঠিতব্য ‘শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার’ প্রশ্ন বৃহস্পতিবার বিলি হতে দেখা যায়।
অভিযোগ রয়েছে শিক্ষা সংশ্লিষ্ট কিছু কর্মকর্তাদের প্রশ্নপত্র ফাঁসের সাথে জড়িত রয়েছেন। ফলে নানা উদ্যোগ সত্ত্বেও প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনা বন্ধ হচ্ছে না। বৃহস্পতিবার বিকেলে নগরী ও দক্ষিণ সুরমার বিভিন্ন সাইবার ক্যাফেতে শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার প্রশ্নপত্র বিক্রি হতে দেখা যায়। পরীক্ষার্থীদের অনেকেই উচ্চ দামে কিনে নিচ্ছেন এসব প্রশ্ন। সাইবার ক্যাফের ব্যবসায়ীরা জানান akash143bd@gmail.com এই ঠিকানা থেকে ই-মেইল করে তাদের প্রশ্নপত্রটি প্রেরণ করা হয়েছে। এছাড়া ফেইসবুকে বিভিন্ন আইটি থেকেও প্রশ্নটি প্রচার করা হচ্ছে বলে জানান সাইবার ব্যবসায়ীরা। সাইবার ক্যাফে বিলিকিত প্রশ্নপত্র ঘেটে দেখা যায় দুই পৃষ্ঠার প্রশ্নপত্রে মোট ৬৫টি প্রশ্ন রয়েছে। প্রশ্নের পাশে সঠিক উত্তরও লেখা রয়েছে। এতে প্রথম প্রশ্ন হলো- ‘সাধু ও চলিত ঋতুর পার্থক্য কোন পদে বেশি?
শেষ প্রশ্ন হলো ‘কচুশাকের বিশেষ ভাবে উপস্থিত…?’
এ ব্যাপারে প্রশ্ন সংগ্রহ করা এক পরীক্ষার্থী নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, নিবন্ধন পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁস হয়েছে জেনে একটি সাইবার ক্যাফে থেকে ৫শ’ টাকা দিয়ে এক সেট প্রশ্নপত্র কিনেছি। এখন শুনছি, ফেসবুকে নাকি বিনামূল্যেই প্রশ্নটি পাওয়া যাচ্ছে।
শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসের অভিযোগ সম্পর্কে জানতে বৃহস্পতিবার রাতে সিলেট শিক্ষাবোর্ডের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান একেএম গোলাম কিবরিয়া তাপাদারের সঙ্গে একধিকবার যোগযোগ করার চেষ্ট করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি।

আগামীকাল শনিবার সকাল ৯টা হতে দুপুর ১টা পর্যন্ত কলেজ পর্যায়ের পরীক্ষা (কোড নং ৪০১-৪৩৫) অনুষ্ঠিত হবে। শুক্রবার ঢাকা টিচার্স ট্রেনিং কলেজে শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শন করবেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। একটানা মোট চারঘণ্টার পরীক্ষার মধ্যে প্রথম ১ (এক) ঘণ্টা আবশ্যিক বিষয় নৈর্ব্যক্তিক (এমসিকিউ) পদ্ধতিতে এবং পরবর্তী তিনঘণ্টা ঐচ্ছিক বিষয়ের লিখিত (বর্ণনামূলক) পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। ইতোমধ্যে বৈধ প্রার্থীদের প্রবেশপত্র প্রেরণসহ যাবতীয় প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close