তাহিরপুরে বাদাঘাট উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন’ যেন শুভংকওে ফাঁিক

0507c25b-0f8d-470c-ac5e-37a6b50daad2প্রতিনিধি,তাহিরপুরঃ সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলার বাদাঘাট পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন ২০১৬ ইং নিয়ে চলছে বিভিন্ন টালবাহান এমন অভিযোগ করেছে সাধারণ ভোটর ও প্রঅর্থীরা। তাহিরপুর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস সূত্রে জানাযায়, স্মারক নং-উমাশিঅ/তাহির/সুনাম/২০১৬/১৬৬ তারিখঃ ০৯-০৩-২০১৬ ও সূত্রঃ ০৫.৪৬.৯০৯২.০০০.০৩.০০৪.১৬.২৭৯ তারিখঃ ০৩-০৩-২০১৬ খ্রিঃ সূত্রোক্ত স্মারকে আলোকে বাদাঘাট পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন/২০১৬ এর নির্বাচনী তপশীল প্রিজাইডিং অফিসার কর্তৃক গত ২০/০৩/১৬ ইং থেতে ২২/০৩/১৬ ইং তারিখে মনোনয়ন পত্র বিতরন ও জমাদান, ২৪/০৩/১৬ ইং মনোনয়ন পত্র বাছাই, ২৭/০৩/১৬ ইং মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার ও চুড়ান্ত প্রার্থী তালিকা প্রকাশ ও ০৬/০৪/২৬ ইং রোজ বুধবার উক্ত বিদ্যালয় কক্ষে সকাল ১০ টা থেকে বিকাল ৪ টার পর্যন্ত ভোট গ্রহনের কথা। কিন্তু গতকাল সরেজমিনে সকাল ১০ টার সময় বাদাঘাট পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ে গিয়ে দেখা যায় বিদ্যালয়ে সদস্য প্রার্থীরা ও অবিভাবক সদস্য ভোটাররা বিদ্যালয়ের আশপাশে ঘুরাঘুরি করছেন। এবং ওই দিন সকল থেকে সন্ধা পর্যন্ত বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষকের কক্ষসহ সব কক্ষে তালা জুলানো। ভোট গ্রহনের কথা থাকলেও বিদ্যালয়ে নেই কোন শিক্ষ,ম্যানেজিং কমিটির সদস্য বা প্রিজাইুডং অফিসার। এব্যপারে প্রার্থী শেখ শফিকুল ইসলাম, রেনু মিয়া, রহমত আলী বলেন, আমরা যাতরীতি নির্বাচনের আইন মোতাবেক মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ ও জমাপ্রদানসহ সব কিছু করেছি। কিন্তু ৬ এপ্রিল ভোটাভোটির ভোটগ্রহন)কথা ছিল। কিন্তু ওই দিন আমাদের না জানিয়েই রহস্যজনক কারনে বিদ্যালয় বন্ধ রাখেন। এব্যপারে ছাত্র অবিভাবক সদস্য ভোটার মঈন উদ্দিন, শামসুলহক, নজরুল সিকদার সহ অনেকেই বলেন, আমদের প্রার্থীসহ কমিটির লোকজন জানিয়েছে আজকে ভোটভোটি হবে। যার কারনে আমরা ব্যবসা বাণিজ্য ও কাজকাম পালাইয়া স্কুলে ভোট দিতাম আইছি। আইয়া দেখি স্কুল তালা মারা, স্কুলে কেঅই নাই। হেরা কি আমরার সাথে ডং করে নাকি। আজকে ভোট নিবনা আমরারে কইলেই পারত। এব্যপারে নির্বাচনী প্রিজাইডিং অফিসারের দায়ীত্বে থাকা তাহিরপুর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা র্কমকর্তা(ভারপ্রাপ্ত) রমা কান্ত দেবনথ এর মোবাইলে যোগাযোগ করাহলে তিনি বলেন, আজকে ভোট গ্রহনের কথা ছিল টিক। কিন্তু এব্যপারটা রাতের ৮টার সময় সমাধান হবে। রাতে কেন সমাধান হবে এ প্রশ্ন করাহলে তিনি বলেন, আমি একটু ব্যস্ত আছি রাতে কথা বলব বলে মোবাইলে লাই কেটেদেন। এব্যপারে বাদাঘাট পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শফিকুল ইসলাম দানুর মোবাইলে যোগাযোগ করাহলে তিনি কল রিচিভ করে কথা না বলে আবার মোবাইলে লাইন কেটেদেন।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close