আওয়ামী লীগ শক্তিশালী হলেই শেখ হাসিনার স্বপ্ন বাস্তবায়ন হবে- সৈয়দ আশরাফ

1454245874আকরাম উদ্দিন, সুনামগঞ্জ :: দীর্ঘ ১৯ বছর পর সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। কমিটির সভাপতি করা হয়েছে জেলা সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মতিউর রহমানকে। সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে সুনামগঞ্জ জেলা পরিষদের প্রশাসক ও যুবলীগের কেন্দ্রীয় প্রেসিডিয়াম সদস্য এনামুল কবির  ইমনকে।
গতকাল বৃহস্পতিবার বিকালে সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে দুই সদস্যের এই কমিটির ঘোষণা দেন দলের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক ও জনপ্রশাসন মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম। সুনামগঞ্জ পৌর শহরের সরকারি জুবিলী উচ্চবিদ্যালয় মাঠে এই সম্মেলন হয়।
সম্মেলনের প্রধান অতিথি সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বলেন, আওয়ামী লীগ দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। শেখ হাসিনার স্বপ্ন হচ্ছে দেশকে আরও এগিয়ে নিয়ে যাওয়া। এ জন্য আওয়ামী লীগকে আরও শক্তিশালী করতে হবে। আওয়ামী লীগ শক্তিশালী হলেই শেখ হাসিনার স্বপ্ন বাস্তবায়ন হবে।
কমিটির দুই নেতার নাম ঘোষণার আগে সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজে জেলা-উপজেলাসহ সকল পর্যায়ে সংগঠন ও নেতা-কর্মীদের খোঁজ রাখেন। নেতৃত্ব নির্বাচনে আমরা বসে সব কিছু বিচার-বিশ্লেষন করি। শেখ হাসিনা তাঁর নিজের সোর্স থেকেও সেটি যাচাই-বাছাই করেন।
তিনি বলেন,‘সুনামগঞ্জে আসার আগের দিন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমার কাছে দুইটি নাম দিয়ে বলেছেন, আমি যেন তাঁর পক্ষ থেকে এই নাম দুটি আপনাদের সামনে প্রস্তাব করি। এটা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রস্তাব। আশা করি আপনারা সবাই নাম দুটি গ্রহণ করবেন। এরপর তিনি সভাপতি হিসেবে মতিউর রহমান এবং সাধারণ সম্পাদক হিসেবে এনামুল কবির ইমনের নাম ঘোষণা করেন। এ সময় মাঠে আওয়ামী লীগের বিপুল সংখ্যক নেতা-কর্মী উপস্থিত ছিলেন। সৈয়দ আশরাফ নতুন নেতৃত্বের প্রতি সমর্থন চাইলে নেতা-কর্মীরা হাত তুলে সমর্থন জানান।
সম্মেলনকে ঘিরে পদপ্রত্যাশীদের ব্যানার-ফেস্টুনে শহর ছেয়ে যায়। অতিথি নেতাদের স্বাগত জানিয়ে তৈরি করা হয় অসংখ্য তোরণ। সকাল থেকে শহরের ডিএস রোড, স্টেশন রোডে যান চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়। সকাল থেকে খ-খ- মিছিল নিয়ে নেতা-কর্মীরা সম্মেলনস্থলে আসেন।
জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মতিউর রহমানের সভাপতিত্বে এবং ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক নুরুল হুদা মুকুটের সঞ্চালনায় সম্মেলনে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন দলের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাংসদ মাহবুবুল আলম হানিফ, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক সাংসদ হাছান মাহমুদ, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক বদিউজ্জামান ভুইয়া, কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মিসবাহউদ্দিন সিরাজ, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য এবং অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী সাংসদ এম এ মান্নান প্রমুখ। মঞ্চে সুনামগঞ্জ জেলার ক্ষমতাসীন দলের চারজন সাংসদ উপস্থিত ছিলেন।
মাহবুবুল আলম হানিফ তাঁর বক্তব্যে বলেন, তারেক রহমান মুফতি হান্নান, আবদুর রহমান, বাংলা ভাইকে নিয়ে দেশকে একটি জঙ্গি রাষ্ট্রে পরিণত করেছিল। একদিকে জঙ্গি আর অন্যদিকে দুর্নীতিÑএই দুইয়ে মিলে দেশ অন্ধকারে চলে গিয়েছিল। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় এসে দেশকে সেই অন্ধকার থেকে আলোর পথে নিয়ে এসেছে।
হাছান মাহমুদ বলেছেন, জনগণ না চাইলে আওয়ামী লীগ এক মিনিটও ক্ষমতায় থাকবে না। উন্নয়নের স্বার্থেই ক্ষমতার ধারাবাহিকতা দরকার। এ জন্য আওয়ামী লীগকে শক্তিশালী ভিত্তির ওপর দাঁড় করাতে হবে। জনগণ চাইলে আওয়ামী লীগ ২০৪১ সাল পর্যন্ত ক্ষমতায় থাকবে।
সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সর্বশেষ সম্মেলন হয়েছিল ১৯৯৭ সালে। মতিউর রহমান ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হিসেবে গত নয় বছর দায়িত্ব পালন করেন। নুরুল হুদা মুকুট ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ছিলেন ১৫বছর।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close