নির্বাচনে পরাজিত হলেও পৌরসভার ওয়েবসাইট ফেসবুকে এখনও মেয়র তিনি!

Untitledমাহবুবুর রহমান চৌধুরী, সিলেট: সিলেটের গোলাপগঞ্জ পৌরসভার সাবেক মেয়র যিনি কখনও হীরক রাজা কখনও জ্বী হুজুর আবার মামলাবাজ গণদুশমন নামে কুখ্যাতি পেয়েছেন। তিনি জাকারিয়া আহমদ পাপলু গোলাপগঞ্জ পৌরসভার সাবেক মেয়র । গোলাপগঞ্জ পৌরসভার ওয়েবসাইট , ফেসবুকে এখনও মেয়র তিনি !
গত ৩০ ডিসেম্বর পৌরসভা নির্বাচনে যিনি ৪৫ কম ভোট পেলে ৪র্থ স্থান লাভ করতেন সেই পাপলু রাজ্য হারালেও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে তার অফিসিয়াল পেজের নাম এখনো ইংরেজীতে মেয়র জাকারিয়া আহমদ পাপলু লেখা রয়েছে। পাপলুর শোচনীয় পরাজয় ঘটেছে সেই সাথে নতুন মেয়র সিরাজুল জব্বার চৌধুরী শপথ নিয়ে দায়ীত্বভার গ্রহনের ২য় সপ্তাহ চলছে কিন্তু মেয়র পদবী ছাড়তে যেন কষ্ট হচ্ছে পাপলুর। এরিপোর্ট লেখা পর্যন্ত প্রায় ১৪ বছর পৌরসভার মেয়র থাকা পাপলুর পেজ সর্বশেষ ভিজিটে দেখা গেছে পেজটিতে ফলোওয়ারের সংখ্যা মাত্র ৮২৪টি। পেজের র্বণনায় ইংরেজীতে লেখা রয়েছে অফিসিয়াল পেজ অব জাকারিয়া আহমদ পাপলু, মেয়র গোলাপগঞ্জ পৌরসভা। পেজটির টাইমলাইনে রয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গোলাপগঞ্জে জনসভায় যে মঞ্চে ভাষণ দেন সেই মঞ্চের ছবি। প্রোফাইলে রয়েছে পাপলুর পোর্টেট ছবি। নির্বাচনে পরাজয়ের পর গত ১জানুয়ারী সর্বশেষ যে পোষ্ট দিয়েছেন তাতে নিজ সর্মথকদের উদ্দেশ্যে শান্তনামূলক বক্তব্য রয়েছে সেখানে তিনি উল্লেখ করেছেন “সব পরাজয় পতনের ঘন্টা বাজায়না, কিছু কিছু পরাজয় সৃষ্টির বাদ্য বাজায়।”
ফেসবুকে পেজে মেয়র পদবী রাখা সর্ম্পকে জানতে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে সাবেক মেয়র জাকারিয়া আহমদ পাপলু কল রিসিভি করেননি। এদিকে পৌরসভার ওয়েবসাইটে ((http://www.golapgonjmunicipality.org) কাউন্সিলরদের তালিকাও হালনাগাদ করা হয়নি। কাউন্সিলরবৃন্দ অপশনে সাবেক পরিষদের ১২ জনের মধ্যে ১০জন কাউন্সিলরের নাম ও মুঠোফোন নাম্বার রয়েছে । তালিকায় উল্লেখিত সাবেক কাউন্সিলর ৬জনই গত নির্বাচনে শোচনীয় পরাজয় বরন করেছেন। ৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রুহিন আহমদ খানেঁর নাম থাকলেও মুঠোফোন নাম্বার দেওয়া হয়নি । ৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হেলালুজ্জ্বামান হেলাল, ৭.৮.৯ নং সংরক্ষিত ওয়ার্ডের মহিলা কাউন্সিলর মনোয়ারা ফেরদৌসের নাম ও মুঠোফোন নাম্বার কিছুই নেই। অনুস্বন্ধানে জানাগেছে এই তিন কাউন্সিলরের সাথে সাবেক মেয়রের দা-কুমড়া সম্পর্কই এর কারন। এদিকে নগর অবকাঠামো উন্নয়নে ওয়ার্ড সমন্বয় কমিটি ও শহর সমন্বয় কমিটি, টেন্ডার কমিটি, প্যানেল মেয়রের তালিকা, পৌরসভার বিভিন্ন সেবার ফি সংশ্লিষ্ট বিধি মোতাবেক ফি এর পরিমান উল্লেক সহ সঠিক তথ অতীতের মতো হালনাগাদ কিংবা আপলোড করা হয়নি। এবিষয়ে বর্তমান মেয়র সিরাজুল জব্বার চৌধুরীর মন্তব্য জানতে মুঠোফোনে কল করা হলে সংযোগ বন্ধ পাওয়া যায়। পৌরসভার ওয়েব সাইটে কেন তথ্য হালানাগাদ করা হয়নি জানতে পৌরসভার ভারপ্রাপ্ত সচিব ও নির্বাহী প্রকৌশলী যুগেশ্বর চ্যাটার্জির মুঠোফোনে কয়েক দফা কল করা হলেও কল রিসিভ হয়নি। তবে কাউন্সিলর হেলালুজ্জ্বামান হেলাল এ প্রতিবেদককে জানান, পৌরসভার ওয়েবসাইটে তথ্য হালানাগাদ করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close