বাহান্নর চেতনা সর্বত্র ছড়িয়ে দেওয়ার অঙ্গীকার সম্মিলিত নাট্য পরিষদের

32100. (2)রফিক, সালাম, বরকত, জব্বারদের আত্ম ত্যাগের বিনিময়ে একুশের অর্জনকে বিশ্ব ব্যাপী বাঙ্গালীর চেতনার অগ্নিমশাল হিসাবে সর্বত্র ছড়িয়ে দেওয়ার অঙ্গীকারের মধ্য দিয়ে বরণ করা হলো মহান ভাষা আন্দোলনের মাসকে। সিলেটের সাংস্কৃতিক আন্দোলনের অন্যতম চালিকাশক্তি সম্মিলিত নাট্য পরিষদ সিলেট গতকাল সোমবার নগরীতে আয়োজন করে বর্ণমালার মিছিল। ২০১৪ সালে দেশে প্রথমবারের মতো ভাষার মাস বরণে বর্ণমালার মিছিল আয়োজন করে নাট্যপরিষদ, সিলেট। এবার তৃতীয়বার উদ্যাপিত হলো ব্যতিক্রমী এই আয়োজন।
32100. (7)গতকাল ১৯ মাঘ ২০১৪ বঙ্গাব্দ ১লা ফেব্রুয়ারী ২০১৬ইং সকাল সাড়ে ১০টায় সিলেট জেলা পরিষদ প্রাঙ্গন থেকে স্বরবর্ণ ও ব্যঞ্জন বর্ণের অক্ষর নিয়ে সাজানো হয় বর্ণমালার মিছিল। সম্মিলিত নাট্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রজত কান্তি গুপ্তের সঞ্চালনায় ভাষা সৈনিক অধ্যাপক মোঃ আব্দুল আজিজ বর্ণমালার মিছিলের শুভ সূচনা করেন। অধ্যাপক আজিজ বলেন, ভাষা আন্দোলনের হাত ধরে বাঙ্গালীর মহান মুক্তিযুদ্ধের অর্জন। বার বার বাঙ্গালী জাতি রক্ত দিয়ে অধিকার প্রতিষ্ঠার সংগ্রামী জয়ী হয়েছে। বাঙ্গালী জাতির এই জয় যাত্রা আর কেউ কখনও থামাতে পারবে না। তিনি সম্মিলিত নাট্য পরিষদকে ভাষা আন্দোলনের মাসকে বরণ করতে এই উদ্যোগকে স্বাগত জানান এবং মাতৃভাষা প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে সকল শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান।
বর্ণমালার মিছিলটি জেলা পরিষদ প্রাঙ্গন থেকে শুরু হয়ে জিন্দাবাজার হয়ে সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে গিয়ে শেষ হয়। মিছিলে সর্বাঙ্গে ছিল লাল সবুজের বিশাল পতাকা। মিছিলে উচ্ছারিত হয়- একুশের কথামালা ও গান। সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে বর্ণমালার মিছিল পৌঁছানোর পর একুশ ও বাঙ্গালীর চেতনার উপর পরিবেশিত হয় বাহান্ন জন নৃত্যশিল্পীর পরিবেশনায় ছন্দ নৃত্যালয়ের দেশাত্ববোধক নৃত্য। এটি পরিচালনা করেন নৃত্য প্রশিক্ষক বিপুল শর্মা।
বর্ণমালার মিছিল উপলক্ষে আয়োজিত সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন- নাট্য পরিষদের সভাপতি অনুপ কুমার দেব। বক্তব্য রাখেন- মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সিলেট মহানগর ইউনিট কমান্ডার ও সম্মিলিত নাট্য পরিষদের প্রাক্তন পরিচালক ভবতোষ রায় বর্মণ রানা, সিলেটের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আই.সি.টি) শহীদ মোহাম্মদ সাইদুল হক, বিশিষ্ট সাংবাদিক জেলা প্রেসকাবের সভাপতি আজিজ আহমেদ সেলিম। আলোচনা অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সম্মিলিত নাট্যপরিষদের প্রাক্তন প্রধান পরিচালক ব্যারিষ্টার মোঃ আরশ আলী, বাংলাদেশ নৃত্যশিল্পী সংস্থা সিলেট বিভাগের সভাপতি অনিল কৃষণ সিংহ, সাংবাদিক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব আল আজাদ, সিলেট প্রেসকাবের সভাপতি ইকরামুল কবির, বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদের সহ-সভাপতি মোকাদ্দেস বাবুল, জেলা কালচারাল অফিসার অসিত বরণ দাশ গুপ্ত, সম্মিলিত নাট্য পরিষদের পরিচালক তথ্যচিত্র নির্মাতা নিরঞ্জন দে, রওশন আরা মনির রুনা, প্রাক্তন পরিচালক আমিনুল ইসলাম লিটন, প্রাক্তন সাধারণ সম্পাদক শামসুল বাছিত শেরো, প্রাক্তন সভাপতি সৈয়দ মনির হেলাল, সাংস্কৃতিক সংগঠক সৈয়দ বহলুল আহমদ, নাট্য পরিষদের সহ সভাপতি খোয়াজ রহিম সবুজ, প্রচার সম্পাদক সাইফুর রহমান চৌধুরী, নির্বাহী সদস্য ইসমাইল তফাদার, রকিবুল হাসান রুমন। অনুষ্ঠানের শেষভাগে সম্মিলিত নাট্যপরিষদের সাধারণ সম্পাদক রজত কান্তি গুপ্ত ফেব্রুয়ারী মাসে নাট্য পরিষদের কর্মসূচী ঘোষণা করেন।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close