বিনা ভোটে কেউ জয়লাভের স্বপ্ন দেখলে তিনি বোকার স্বর্গে বসবাস করবেন : জেলা প্রশাসক

14462কানাইঘাট প্রতিনিধি : সিলেট, নিউজমিরর :: ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিতব্য কানাইঘাট পৌরসভার নির্বাচনকে সামনে রেখে উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে মেয়র, কাউন্সিলার, মহিলা কাউন্সিলার ও নির্বাচনের দায়িত্বে থাকা প্রিজাইডিং, পুলিং অফিসার এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের উপস্থিতিতে আইন শৃঙ্খলা সংক্রান্ত এক মতিবিনময় সভা গতকাল বুধবার সকাল ১১টায় উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়।

উক্ত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে সিলেটের জেলা প্রশাসক মো. জয়নাল আবেদীন বলেন, ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিতব্য কানাইঘাট পৌরসভার নির্বাচন অবাধ সুষ্ঠু উৎসব মুখর ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে সম্পন্ন করতে প্রশাসন প্রস্তুত রয়েছে। ইতিমধ্যে নির্বাচনী এলাকায় নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট এবং আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের মোতায়েন করা হয়েছে। নির্বাচন যাতে নির্বিঘ্ণ ভাবে অনুষ্ঠিত হয় এবং ভোটাররা কেন্দ্রে উপস্থিত হয়ে নির্ভয়ে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারেন তার জন্য র‌্যাব, বিজিবি, পুলিশ বাহিনীর শত শত সদস্যদের দিয়ে গোটা পৌর এলাকা এবং ভোট কেন্দ্র নিরাপত্তার চাদরে ঢাকা হবে।

তিনি আরো বলেন, পেশি শক্তি ও প্রভাব খাটিয়ে নির্বাচনে কেউ বিজয়ী হতে পারবেন না। প্রশাসন সম্পূর্ণ নিরপেক্ষ থেকে নির্বাচনী কার্যক্রম পরিচালনা করবে। কেউ কেন্দ্র দখল, জাল ভোটের চেষ্টা ও ভোটারদের ভোট প্রদানে বাঁধা প্রদান করলে তাদের কটুর হস্তে দমন করা হবে। কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। কোন প্রার্থী বিনা ভোটে জয়লাভের স্বপ্ন দেখলে তিনি বোকার স্বর্গে বসবাস করবেন। মিডিয়া ও তথ্য প্রযুক্তির এ যুগে কারচুপি করে কেউ জয়লাভ করতে পারবে না।

প্রশাসন সকল দল ও স্বতন্ত্র প্রার্থীদের এক চোখে দেখবে। তিনি কোন ধরনের অপপ্রচারে কান না দিয়ে কেন্দ্রে উপস্থিত হয়ে সবাইকে ভোট দেওয়ার আহবান জানান।

উপজেলা রিটার্নিং অফিসার মো. খালেদুর রহমানের সভাপতিত্বে ও উপজেলা পরিষদের সিএ বিপ্লব কান্তি দাস অপুর পরিচালনায় উক্ত মতবিনিময় সভায় বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন- সিলেটের পুলিশ সুপার নুরে আলম মিনা পিপিএম তার বক্তব্যে বলেন- পৌর নির্বাচন নিয়ে উদ্বেগের কোন কারন নেই। কেউ নির্বাচন প্রভাবিত করতে পারবে না। গোটা পৌর এলাকায় পুলিশের একাধিক ট্রাইকিং ফোর্স চেকপোস্ট থাকবে।

কাউকে নির্বাচনী ভোট কেন্দ্রে সন্ত্রাস ও গোন্ডামী করতে দেওয়া হবে না। কেউ সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের চেষ্টা করে নির্বাচন প্রভাবিত করার চেষ্টা করলে তাদের কঠিন পরিস্থিতি ভোগ করতে হবে। বিশেষ অতিথি হিসাবে আরো উপস্থিত ছিলেন, বিজিবি’র সিলেট-৪১ ব্যাটালিওনের অধিনায়ক লেফটেনেন্ট কর্ণেল শাহ আলম, র‌্যাব-৯ এর উপ পরিচালক মেজর ফখরুল, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আশিক উদ্দিন চৌধুরী, জেলা আনসার কমান্ডেন্ট স্বপন কুমার দেবনাথ, সিলেট উত্তর সার্কেলের এএসপি ধীরেন্দ্র মহাপাত্র, সিনিয়র জেলা নির্বাচন অফিসার আজিজুল হক, কানাইঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ মো. হুমায়ুন কবির।

মেয়র প্রার্থীদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- আ’লীগ সমর্থিত মেয়র প্রার্থী লুৎফুর রহমান, বিএনপি সমর্থিত মেয়র প্রার্থী রহিম উদ্দিন ভরসা, জাপা সমর্থিত মেয়র প্রার্থী বাবুল আহমদ, খেলাফত মজলিস সমর্থিত মেয়র প্রার্থী ইসলাম উদ্দিন, স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী সোহেল আমীন, জাসদ মনোনীত মেয়র প্রার্থী তাজ উদ্দিন, কানাইঘাট প্রেসক্লাবের দপ্তর সম্পাদক সাংবাদিক নিজাম উদ্দিন, প্রিজাইডিং অফিসার মো. জার উল্লাহ, কাউন্সিলার প্রার্থীদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, মো. ইসলাম উদ্দিন, ফখর উদ্দিন শামীম, মাওলানা ফখর উদ্দিন, মাওলানা এবাদুর রহমান, সিরাজ উদ্দিন, হারুনুর রশিদ, মহিলা কাউন্সিলর গীতা রানী দাস প্রমুখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক জয়নাল আবেদীন আরও বলেন, কানাইঘাট হচ্ছে একটি ঐতিহ্যবাহী শান্তির জনপদ। এই জনপদে অসংখ্য আলেম উলামা ও দেশ বরণ্য ব্যক্তিবর্গের জন্ম হয়েছে। এ ঐতিহ্য ধরে রাখতে পৌরসভার নির্বাচন শান্তিপূর্ণভাবে উপহার দেওয়ার জন্য তিনি মেয়র ও কাউন্সিলার প্রার্থী সহ দলমত নির্বিশেষে সকলের সহযোগিতা কামনা করেছেন।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close