দীর্ঘ ১৩ বছর পর আপন ঠিকানায় গোলাপগঞ্জ সদর ইউনিয়ন পরিষদ

Golapgonj Sador Unionকে, এম আবদুল্লাহ, গোলাপগঞ্জ থেকেঃ দীর্ঘ ১৩ বছর পর আপন ঠিকানা খোজে পেতে যাচ্ছে গোলাপগঞ্জ সদর ইউনিয়ন পরিষদ। এ উপলক্ষে গোলাপগঞ্জ সদর ইউনিয়নের সর্বত্র চলছে সাজ সাজ রব। আগামী মঙ্গলবার প্রায় এক কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত নতুন ভবনে তার কার্যক্রম শুরু হবে। সিলেট ৬ আসনের সংসদ সদস্য শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ আনুষ্ঠানিক ভাবে ভবনটির উদ্বোধন করবেন।
সিলেট জকিগঞ্জ সড়কে একাধিক তোরণ নির্মাণ করে অনুষ্ঠানকে সফল করার লক্ষ্যে সব ধরণের প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান লুৎফুর রহমান এ উপলক্ষে তার নিজ বাড়ীতে এক মধ্যাহ্ন ভোজের আয়োজন করেছেন।
এতে সরকারি বিভিন্ন বিভাগের কর্মকর্তা, জন প্রতিনিধিসহ উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের প্রায় ১০ হাজার মানুষকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। মধ্যাহ্ন ভোজ শেষে সর্বস্তরের জনতাকে সঙ্গে নিয়ে শিক্ষামন্ত্রী ইউনিয়ন কমপ্লেক্সের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন বলে আয়োজকদের পক্ষথেকে জানানো হয়েছে।
বিগত ২০০১ সালে গোলাপগঞ্জ পৌরসভা গঠিত হলে সদর ইউনিয়নের ৫টি ওয়ার্ড পৌরসভার অর্ন্তভুক্ত হলে মাত্র ৪টি ওয়ার্ডের সাড়ে ৭ হাজার ভোটারকে নিয়ে গোলাপগঞ্জ সদর ইউনিয়নের অস্তিত্ব রক্ষা করা হয়। পরবর্তীতে ৪টি ওয়ার্ডকে ৯টি ওয়ার্ডে ভাগ করে যাত্রা শুরু করে গোলাপগঞ্জ সদর ইউনিয়নের কার্যক্রম।
গোলাপগঞ্জ সদর ইউনিয়নের কার্যালয়টি পৌর এলাকার অর্ন্তভুক্ত হলে সেখানেই পৌর সভার কার্যক্রম শুরু হয়। এতে গোলাপগঞ্জ উপজেলা সদর থেকে রানাপিং বাজারে গোলাপগঞ্জ সদর ইউনিয়নের কার্যালয় স্থানান্তর করা হয়। দীর্ঘদিন ধরে একাধিক ভবনে ভাড়া নিয়ে কার্যক্রম পরিচালিত হতে থাকলে এক পর্যায়ে তৎকালীন চেয়ারম্যান মাখন মিয়া তার বাড়ীর সামনে গোয়াসপুর গ্রামের পূর্বাংশে ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স স্থাপনের উদ্যোগ নেন। বিষয়টি তখন ইউনিয়ন বাসীর মধ্যে বিভক্তির সৃষ্টি করে।
বেশির ভাগ লোকের মত ছিল সিলেট জকিগঞ্জ সড়কের পাশে সুবিধা জনক অবস্থানে যেন ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয় নির্মাণ করা হয়। এক পর্যায়ে বেশির ভাগ লোকের মতামতের উপর সরকারের পক্ষ থেকে গুরুত্বারোপ করে স্থানটি পরিবর্তনের পক্ষে মত পোষন করা হয়।
দীর্ঘ প্রায় ৫ বছর এভাবে ইউনিয়ন পরিষদ তার কার্যক্রম চালিয়ে যেতে থাকলে এক পর্যায়ে রানাপিং বাজারের অদূরে ঐতিহ্যবাহী পংকিটিল্লা নামক স্থানে তা নির্মাণের প্রদক্ষেপ নেয়া হয়। রানাপিং বাজারের আশপাশের বেশকজন লোক পর্যাপ্ত পরিমাণের ভূমি দান করার অভিপ্রায় ব্যক্ত করলে বর্তমান স্থানটিতেই প্রায় দেড় বছর পূর্বে নির্মান কাজ শুরু হয়। এ আলী নামক ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান তার কার্যক্রম শুরু করলে সম্প্রতি কমপ্লেক্সের নির্মাণ কাজ সমাপ্তি হয়।
ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স উদ্বোধন সংক্রান্ত বিষয়ে ইতিমধ্যে অত্র ইউনিয়নের চেয়ারম্যান লুৎফুর রহমান সর্বস্তরের জনতার উদ্যোগে এক সমাবেশের আয়োজন করলে তাতে বক্তব্য রাখেন গোলাপগঞ্জ উপজেলা কমিউনিটি পুলিশের সভাপতি হাজী আব্দুল ওয়াদুদ, সিলেট পল্লী বিদুৎ সমিতি-১ এর গোলাপগঞ্জ অঞ্চল পরিচালক আব্দুল আহাদ, রানাপিং আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা প্রধান শিক্ষক আব্দুল মুকিত, গোলাপগঞ্জ সদর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্দুস সামাদ জিলু, বিশিষ্ট সমাজসেবী ডা. আলাউদ্দিন, ইউপি সদস্য আব্দুস সবুর, ইসমাইল আলী, মাওলানা মাহফুজুর রহমান কাশেমী জসিম, মাওলানা আব্দুল হকসহ ইউনিয়নের বিশিষ্ট নাগরিকবৃন্দ।
এদিকে উদ্বোধন উপলক্ষে নবনির্মিত ভবনের সামনে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। ইউনিয়ন পরিষদ কর্তৃক আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে স্থানীয় সংসদ সদস্য শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বক্তব্য রাখবেন। গোলাপগঞ্জ সদর ইউনিয়ন কমপ্লেক্স নির্মাণে ৯৭ লক্ষ টাকা ব্যয় হয়েছে বলে উপজেলা প্রকৌশল বিভাগের পক্ষ থেকে জানা যায়।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close