অর্থনৈতিক বৈষম্যহীন জাতি গঠনে বঙ্গবন্ধুকে জানতে হবে: ড. মোমেন

ড.এ.কে. আব্দুল মোমেন (2) ছবি ৯-১২-২০১৫জাতিসংঘের বাংলাদেশের সাবেক স্থায়ী প্রতিনিধি ও রাষ্ট্রদূত প্রফেসর ড. এ.কে.আব্দুল মোমেন বলেছেন, বঙ্গবন্ধু সত্যিকারের বাংলার স্রষ্টা। তিনি আমাদের স্বাধীন দেশ উপহার দিয়েছেন। তিনি একটি অসাম্প্রদায়িক, গণন্ত্রাতিক আর শান্তির বাংলাদেশ চেয়েছিলেন। তার সুযোগ্য উত্তরাধিকার শেখ হাসিনার নেতৃত্বে তাঁর স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ এখন বাস্তবে পরিণত হতে যাচ্ছে।
মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে ‘বর্তমান ও আগামী প্রজন্মের কাছে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও রাজনৈতিক দর্শন’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি আরো বলেন- সোনার বাংলা পুরোপুরি বাস্তবায়নে সবচেয়ে বেশী প্রয়োজন সোনার মানুষ। এই সোনার মানুষের হয়ে ওঠতে ছাত্রদেরকে ভূমিকা নিতে হবে। জ্ঞান-বিজ্ঞান-নৈতিকতা আর যুগোপযোগী দক্ষতায় গড়ে ওঠতে হবে।
ড. মোমেন আরো বলেন- বঙ্গবন্ধু ছিলেন বিশ্বের শোষিত ও নির্যাতিত মানুষের মুক্তির প্রতীক। তিনি শোষিত বাঙালীদের মুক্ত করেছেন এবং আজীবন তাদের হয়ে কাজ করে গেছেন। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা আর অর্থনৈতিক বৈষম্যহীন জাতি গঠনে বঙ্গবন্ধুকে জানতে হবে। তার আদর্শকে লালন করতে হবে।
গতকাল বুধবার সন্ধ্যায় সিলেট নগরীর দরগাহ গেইটস্থ শহীদ সোলায়মান হলে আয়োজিত অনুষ্ঠানে তিনি বলেন- প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০২১ সালের বাংলাদেশকে মধ্য আয়ের দেশ এবং ২০৪১ সালের মধ্যে একটি উন্নত সমৃদ্ধশালী জাতি উপহার দেয়ার চ্যালেঞ্জ নিয়েছে। সেই চ্যালেঞ্জে তাকে জয়ী সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে।
অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধু গবেষণা কেন্দ্রের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও বাংলা টাইমস এর প্রধান সম্পাদক টি এইচ এম জাহাঙ্গীর সম্পাদিত ‘আমাদের বঙ্গবন্ধু’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন করা হয়।
বঙ্গবন্ধু গবেষণা কেন্দ্রের সিলেট জেলা শাখার সভাপতি ও সিলেট জেলা জজ কোর্টের এডিশনাল পিপি এডভোকেট শামসুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট আলাউদ্দিন ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট মিয়া মোহাম্মদ লিটনের যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন- শহীদ সোহ্রাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ও বঙ্গবন্ধু গবেষণা কেন্দ্রের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ডা. উত্তম কুমার বড়–য়া, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের লিভার বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ও বঙ্গবন্ধু গবেষণা কেন্দ্রের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. মামুন আল মাহতাব (স্বপ্নীল), বঙ্গবন্ধু গবেষণা কেন্দ্রের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক টি এইচ এম জাহাঙ্গীর, বঙ্গবন্ধুর সহচর রহমত উল্লাহ জাহাঙ্গির, সিলেট মহানগর আ.লীগের সহ-সভাপতি এডভোকেট রাজ উদ্দিন, যুগ্ম যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফয়জুল আনোয়ার আলাওর, সাংগঠনিক সম্পাদক এ টি এম হাসান জেবুল, শিক্ষা সম্পাদক কাউন্সিলর আজাদুর রহমান আজাদ।শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন- বঙ্গবন্ধু গবেষণা কেন্দ্রের সিলেট জেলা শাখার সহ-সভাপতি আফজাল হোসেন।
এসময় আরো বক্তব্য রাখেন মিসেস সেলিনা মোমিন, মহানগর আওয়ামীলীগ নেতা নজমুল ইসলাম এহিয়া, আব্দুস সোবহান, আব্দুস শহিদ মুহিত, কবি শামীমা কামাল, জাবেদ সিরাজ, এজিপি এডভোকেট হোসেন আহমদ, এপিপি এডভোকেট সুজিত বৈদ্য, এপিপি এডভোকেট জুবায়ের বখত, এডভোকেট বদরুল ইসলাম জাহাঙ্গীর, এডভোকেট মাসুম আহমদ, বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন সিলেট মহানগরের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এনামুল হক লিলু, এডভোকেট প্রসেন কান্তি প্রনয়, এডভোকেট কানন, এডভোকেট সাকি ফরিদী, এডভোকেট বাবুল, এডভোকেট ইমরান আহমদ, দিরাই থানা যুবলীগ নেতা মো. রিপন মিয়া, মহানগর যুবলীগ নেতা মাসুম বিল্লাহ, কিশোর ভট্টাচার্য জনি, হাফিজ জাকির, মাহফুজ চৌধুরী জয়, মনির মুন্সি, মুজিব মালদার, ফয়জুর রহমান ফয়েজ, ছালুদ্দিন, তানবীর শাহীন প্রমুখ।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথিসহ বিশেষ অতিথিদের ক্রেষ্ট দিয়ে সম্মাননা জানান এডিশলাল পিপি এডভোকেট শামসুল ইসলাম। এছাড়াও সকল মুক্তিযোদ্ধাদের স্মরণে করে ১ মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close