হোটেল মেট্টো দখল নিয়ে দুই পরিচালকের মারামারি

Hotel Metro Sylhetডেস্ক রিপোর্টঃ নগরীর ধোপাদিঘীরপাড়ে হোটেল মেট্টো ইন্টারন্যাশনালের দখল নিয়ে পরিচালকদের দুই পক্ষের মধ্যে মারামারি হয়েছে। শুক্রবার রাত ১২টার দিকে হোটেলের ভেতরে এ ঘটনা ঘটে। ব্যবসায়ীক দ্বন্দ্বের জের ধরে প্রবাসী পরিচালক ও হোটেল তত্ত্বাবধায়কের পক্ষের মধ্যে মারামারির এ ঘটনা ঘটে। প্রবাসী পরিচালক আবদুল হাকিমসহ আরো কয়েকজন পরিচালক অভিযোগ করেন গত ৮ বছর ধরে হোটেল মেট্টো ইন্টারন্যাশনাল পরিচালনা করে আসছেন তাদের পার্টনার মাছুম আহমদ। তিনি অনেকটা জোরপূর্বক হোটেল কেয়ারটেকারের দায়িত্ব গ্রহণ করে পরিচালনা করে আসছেন। হোটেল উদ্বোধনের পর থেকে মাছুম আহমদ কোন হিসাব নিকাশ পরিচালকদের প্রদর্শন করছেন না। উল্টো পরিচালকদের বিভিন্ন সময় অপমান করেছেন। আবদুল হাকিম জানান, মুলতঃ ডেভলপার হিসেবে ওই ভবনটি করেন প্রবাসী উদ্যোক্তাদের সমন্বয়ে গঠিত পরিচালকরা। প্রায় কোটি টাকা করে একেকজন পরিচালক প্রদান করলেও আসলে হোটেল নির্মাণে ব্যয় কত টাকা হয়েছে তারও কোন হিসাব নেই। মাছুম আহমদ হোটেল চালুর পর থেকেই পরিচালকদের এড়িয়ে চলছেন। ফলে দীর্ঘদিন পর বাধ্য হয়েই তারা শুক্রবার রাতে হোটেল পরিচালনার দায়িত্ব গ্রহণ করেন বলে জানান আবদুল হাকিম।
প্রবাসী পরিচালকরা যখন হোটেলের দখল নেন, তখন পরিচালক মাছুম আহমদ ছিলেন হোটেলের বাইরে। খবর পেয়ে তিনি হোটেলে ছুটে আসেন। এসময় তার সাথে অর্ধশতাধিক যুবক হোটেলে ওঠেন। এর আগে প্রবাসী পরিচালকরা যখন হোটেলে ওঠেন তখন তাদের সাথেও অর্ধশতাধিক যুবক ছিলেন। একপর্যায়ে উভয় পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়।
পরে খবর পেয়ে হোটেলে ছুটে আসা কাউন্সিলর আজাদুর রহমান আজাদ, সাইফুল আমিন বাকের ও সিকন্দর আলীর হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি শান্ত হয়। বিষয়টি তারা আপোষ নিষ্পত্তির আশ্বাস দিলে পরিস্থিতি শান্ত হয়।
এসময় উপস্থিত লোকজনদের কাছে পরিচালক মাছুম আহমদ জানান- পরিচালকদের এই অসন্তোষ নিরসনের জন্য কারান্তরীণ মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী ও জাসদ নেতা লোকমান আহমদ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছিলেন। তাদের কথা মতো চার্টাড একাউনটেন্ট দিয়ে অডিট করা হয়েছে। এরপরও পরিচালকরা ব্যবসায়ী সুলভ আচরণ করছেন না। উল্টো তারা নানা মিথ্যে অভিযোগ দাঁড় করাচ্ছেন। একাধিক পরিচালকদের কাছে মাছুম টাকা পান বলেও জানান।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close