গোলাপগঞ্জের ওসি’র গায়ে স্পর্শ লাগায় বিস্ফোরন মামলায় কারাগারে ব্যবসায়ী

Suhed Ahmedসুরমা টাইমস ডেস্কঃ ওসির গায়ে স্পর্শ লাগায় এক নিরীহ ব্যসায়ীকে মাসাধিককাল ধরে জেল খাটতে হচ্ছে। তাকে অন্যায়ভাবে আটকের পর পুলিশের দেয়া সিলিন্ডার বিস্ফোরন মামলায় আসামী করা হয়েছে। গত ১৮সেপ্টেম্বর সিলেটের গোলাপগঞ্জ থানার রানাপিং তহিপুর এম.আর ব্রিক ফিল্ড থেকে আটকের এ ঘটনা ঘটে। অন্যায় লাভের আশায় থানা পুলিশ তাকে হয়রানী করছে বলে ব্যবসায়ীর স্বজনরা অভিযোগ করেছেন।
জানা গেছে, গত ১৮ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় গোলাপগঞ্জ থানার রানাপিং এলাকার তহিপুর গ্রামস্থ হাজী ইসমাইল আলীর মালিকানা এম.আর ব্রিক ফিল্ড কক্ষে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরনের ঘটনা ঘটলে অগ্নিকান্ড ঘটে। ঘটনায় ব্রিকফিল্ডের ৩কর্মচারী দগ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হন। আহতদের মধ্যে আখলিছ নামের এক জনের মৃত্যুও ঘটে। ঘটনার খবর পেয়ে ফায়ার ব্রিগেড, পুলিশ ও এলাকার লোকজন আগুন নেভাতে ও দগ্ধদের উদ্ধারে এগিয়ে যান। লোকজনের সাথে ওই এলাকায় থাকা ব্যবসায়ী সুহেদ আহমদও এগিয়ে যান। সুহেদ আহমদ ঘটনাস্থলের অনেক দূরে থানার টিকরবাড়িস্থ আদিল মার্কেটের ব্যবসায়ী। মানবিক কারনে দগ্ধদের সাহায্যে এগিয়ে যান তিনি। এসময় লোকজনের ভিড়ে পড়ে গোলাপগঞ্জ থানার ওসি একেএম ফজলুল হকের গায়ে সুহেদের স্পর্শ লাগলে তিনি তেলে বেগুনে জ্বলে উঠেন এবং ব্যসায়ী সুহেদকে আটক করে থানায় নিয়ে যান। পরে তাকে ৫৪ধারায় আদালতে প্রেরন করেন। পরবর্তীতে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরন ঘটনায় থানার এসআই কাজী মোক্তাদির হোসেন বাদী হয়ে গোলাপগঞ্জ থানায় একটি মামলা (নং-১১(৯)১৫) করেন। এ মামলার সুহেদ আহমদকে প্রধান আসামী করে গ্রেফতার দেখানো হলে মাসাধিককাল ধরে কারাবন্দী রয়েছেন ব্যবসায়ী সুহেদ।
সুহেদ আহমদের স্বজন ও এলাকাবাসীর অভিযোগ। অন্যায় লাভের আশায় ওসি এ,কে.এম ফজলুল হক সুহেদকে অযথা আটক করে এ মামলায় আসামী করিয়ে হয়রানী করছেন। ঘটনাস্থলের ব্যবসা প্রতিষ্টান এর সাথে সুহেদ আহমদ এর নুন্যতম কোন সম্পর্ক নেই। তার ব্যবসা প্রতিষ্টান অনেক দূরে টিকরবাড়িতে। শুধুমাত্র মানবিক সাহায্যে এগিয়ে গিয়ে ওসি’র গায়ে তার স্পর্শ লাগার ‘অপরাধে’ তাকে জেল খাটতে হয়েছে। এলাকাবাসী অবিলম্বে ব্যবসায়ী সুহেদ আহমদের মুক্তিসহ মামলা থেকে তাকে অব্যাহতি এবং অন্যায় মামলায় জড়িয়ে অযথা হয়রানীর দায়ে ওসি এ.কে.এম ফজলুলহক সহ সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহনে উর্ধতন কর্তৃপক্ষের আশু সুদৃষ্টি কামনা করেছেন।
এদিকে সিলিন্ডার দূর্ঘটনায় দগ্ধ হয়ে নিহত আখলিছের পরিবার এফিডেভিট করে জানিয়েছে এটা একটা নিছক দূর্ঘটনা । এ ঘটনার জন্য মামলার আসামী কেউ দায়ী নয় বলে জানান তারা।
এ ব্যাপারে ওসি একেএম ফজলুল হক-এর সাথে শনিবার (২৪অক্টোাবর) বিকেলে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি এ মূহুর্তে কোন বক্তব্য দিতে অপারগতা প্রকাশ করেন।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close