রমজানে দ্রব্যমূল্য স্থিতিশীল রাখতে ব্যবসায়ীদের প্রতি আহবান

5419সুরমা টাইমস ডেস্কঃ আসন্ন মাহে রমজানের পবিত্রতা রক্ষা, বাজারে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্য স্থিতিশীল রাখা, আইনশৃংখলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন, বিদ্যুত ও পানি সরবরাহ নিশ্চিতকরণ, সেহরী ও ইফতারের সময় সাইরেন বাজানোর ব্যবস্থা গ্রহনের লক্ষ্যেসিলেট সিটি কর্পোরেশনে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
রবিবার বেলা ১১টায় নগর ভবন মিলনায়তনে আয়োজিত এই সভায় সভাপতিত্ব করেন সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এনামুল হাবীব। এসময় তিনি বলেন, রমজান মাস হচ্ছে সংযমের মাস। এই তাৎপর্যকে সামনে রেখে সবাইকে বিশেষ করে ব্যবসায়ীদেরকে অধিক মুনাফার দিকে না ঝুঁকে দ্রব্যমূল্য স্থিতিশীল রাখার প্রতি গুরুত্বারোপ করেন তিনি।
রমজান মাসে সিটি কর্পোরেশনের সকল পানির পাম্প ২৪ ঘন্টা চালু থাকবে জানিয়ে এনামুল হাবীব বলেন, বিদ্যুত সরবরাহ নিশ্চিত থাকলে পানি সরবরাহ কার্যক্রম নিরবিচ্ছিন্নভাবে চলবে। রমজান মাসে সিটি কর্পোরেশনের ভ্রাম্যমান গাড়ীর মাধ্যমে নগরীর বিভিন্ন স্থানে পানি সরবরাহ করা হবে বলেও সভায় উল্লেখ করা হয়। ফুটপাতে যাতে ফলমূল, ইফতারীর দোকান না বসে সে ব্যাপারেও সিটি কর্পোরেশনের নজরদারি থাকবে।
নগরীর পরিচ্ছন্নতার স্বার্থে রাত ৮টা থেকে ১১টার মধ্যে ময়লা আবর্জনা সিটি কর্পোরেশনের নির্ধারিত ডাস্টবিনে ফেলারও অনুরোধ জানানো হয় সভায়। ছড়া, খাল ও ড্রেনের মধ্যে আবর্জনা না ফেলারও আহবান জানানো হয় নগরবাসীর প্রতি। নগরীর আইনশৃংখলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনের ক্ষেত্রে আইনশৃংখলা বাহিনীর সহযোগিতা কামনা করা হয় সভায়।
সভায় সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলরদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন আজাদুর রহমান আজাদ, সৈয়দ তৌফিকুল হাদী, আব্দুল মুহিত জাবেদ, মোহাম্মদ তৌফিক বকস। কাউন্সিলরদের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন শান্তনু দত্ত সন্তু, মো. ইলিয়াছুর রহমান, রকিবুল ইসলাম ঝলক, ছয়ফুল আমিন বাকের, দেলওয়ার হোসেন সজিব, আব্দুর রকিব তুহিন, মো: আব্দুল জলিল নজরুল, জাহানারা খানম মিলন, রেবেকা বেগম, আমেনা বেগম রুমি, সালেহা কবীর শেপী।
সিলেট সিটি কর্পোরেশনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সচিব রেজাই রাফিন সরকার, প্রধান প্রকৌশলী (ভারপ্রাপ্ত) নুর আজিজুর রহমান, প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা মো. শরীফুজ্জামান, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. সুধাময় মজুমদার, নির্বাহী প্রকৌশলী আলী আকবর, চীফ কনজারভেন্সী অফিসার মো. হানিফুর রহমান, প্রশাসনিক কর্মকর্তা লোকমান আহমদ, লাইসেন্স কর্মকর্তা চন্দন দাশ।
উপস্থিত ছিলেন সহকারী পুলিশ কমিশনার মো: আমিনুল ইসলাম, র‌্যাব-৯ সিলেটের ডিএডি হাশেমুল ইসলাম, ইমাম সমিতির সভাপতি মাওলানা হাবীব আহমদ শিহাব, পিডিবি বিবিবি-২ এর নির্বাহী প্রকৌশলী মো: নজরুল ইসলাম, পিডিজি বিবিবি-৩ এর নির্বাহী প্রকৌশলী উজ্জ্বল কুমার, রেস্টুরেন্ট মালিক সমিতির সভাপতি আতাউর রহমান, বন্দরবাজার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো: অলিউর রহমান, পাকসী রেস্টুরেন্টের পরিচালক মাওলানা ফারুক আহমদ, ব্যবসায়ী নেতা কয়ছর আলী, ফায়ার সার্ভিস কর্মকর্তা এস এম হুমায়ুন কবীর, মাংস ব্যবসায়ী সমিতির সহ সভাপতিসহ আরও অনেকে।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close