ডাক্তারের প্রাইভেট কার ছিনতাইয়ে ব্যবহার! হাতেনাতে আটক

shushil-singha2সুরমা টাইমস ডেস্কঃ নগরীর হুমায়ূন রশীদ চত্বর এলাকায় ছিনতাই করতে গিয়ে সিলেট নগরীর পনিটুলার ডা. বিজিত কুমার দে’র প্রাইভেট কারসহ (ঢাকা মেট্রো ক ০৩-৮৭৯৪) চালক আটক হয়েছে। তবে কারে থাকা অপর ৪ ছিনতাইকারী পালিয়ে যায়। গতকাল সকালে নগরীর হুমাইয়ুন রশিদ চত্ত্বর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
ছিনতাইয়ের ঘটনায় আটক চালকের নাম সুশীল সিংহ (৩০)। তিনি মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জ উপজেলার তারুয়া বিল গ্রামের মৃত তাবাউ মউ’র ছেলে। বর্তমানে তিনি সিলেট নগরীর জালালাবাদ থানাধীন পনিটুলায় বসবাস করছেন।
ছিনতাইর অভিযোগে আটক সুশীল সিংহ জানান, তিনি পনিটুলার ডা. বিজিত কুমার দে’র গাড়ি চালান। বন্ধুদের পাল্লায় পড়ে তিনি ছিনতাইর কাজে জড়িয়েছেন বলে দাবি করেন।
ঘটনার বিবরনে প্রকাশ, দক্ষিণ সুরমা স্কলার্স হোমের ভাইস প্রিন্সিপাল রোমানা চৌধুরী গতকাল ছিনতাইকারীর কবলে পড়েন। ওই শিক্ষিকার প্রচেষ্টায় একজনকে আটক করার পাশাপাশি প্রাইভেট কারও উদ্ধার করা হয়। তবে প্রাইভেটকারে থাকা বাকি ৪ ছিনতাইকারী পালিয়ে যায়। ছিনতাইকারীর কবলে পড়া ওই শিক্ষিকা স্কলার্সহোম প্রিপারেটরি স্কুল দক্ষিণ সুরমা শাখার ভাইস প্রিন্সিপাল রুমানা চৌধুরী। এ ঘটনায় তিনি কোতোয়ালি থানায় গতকালই মামলা দায়ের করেছেন বলে নিশ্চিত করেছেন থানার ওসি সোহেল আহমদ।
শিক্ষিকা রুমানা চৌধুরী উপশহর এ ব্লকের ১২নম্বর রোডের ৭ নম্বর বাসার মহিবুর রহমান চৌধুরীর মেয়ে। তার গ্রামের বাড়ি চাঁদপুর জেলার শাহরাস্তি থানার রাঘই গ্রামে।
লিখিত অভিযোগে রুমানা চৌধুরী উল্লেখ করেন, গতকাল সকাল ৭টা ৪০ মিনিটের সময় তার মেয়ে রুবিয়া মেহজেবিন (১১) ও বোনের ছেলে আহমেদ হাসানকে (১০) নিয়ে একটি ব্যাটারিচালিত অটোরিকশাযোগে স্কলার্সহোম দক্ষিণ সুরমা শাখায় যাচ্ছিলেন। শাহজালাল ব্রিজের উপর যাওয়ার পর সামনে ডাক্তার লেখা একটি সাদা রঙের প্রাইভেট কার (ঢাকা মেট্রো-ক-০৩-৮৭৯৪) থেকে চালকসহ ৫ জন ছিনতাইকারী নেমে ভয়ভীতি দেখিয়ে নগদ ৪০ হাজার ২০০ টাকা, ৩৫ হাজার টাকা মূল্যের একটি স্যামসাং নোটপ্যাড, ৯ হাজার টাকা মূল্যের ১টি সিম্ফনি ট্যাব, ১টি মোবাইল ফোন সেট ও জরুরি কাগজপত্র ছিনিয়ে নেয়। হুমায়ূন রশীদ চত্বরস্থ ফুলকলি মিষ্টির দোকানের সামনে যাওয়ার পর ছিনতাইকারীদের প্রাইভেট কারটি দেখে তিনি চিৎকার করলে আশপাশের লোকজন ও দায়িত্বরত পুলিশ এগিয়ে আসলে কার থেকে নেমে ৪ জন ছিনতাইকারী নেমে দৌড়ে পালিয়ে যায়। তখন স্থানীয়রা কার চালককে আটক করে পুলিশে সোর্পদ করেন।
এ ব্যাপারে সিলেট কোতোয়ালি থানার ওসি সোহেল আহমদ গণমাধ্যমকে জানান, মামলা দায়ের করা হয়েছে। বাবি অপরাধিদের ধরতে পুলিশের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close