বিষেরবাঁশীর ২৪ বছর পূর্তি উৎসব ও গুণীজন সংবর্ধনা

“বিকশিত হই জ্ঞানে, আনন্দে” স্লোগানে

DSC_9607নিজস্ব প্রতিবেদক: অনলাইন নিউজ পোর্টাল বিষেরবাঁশীডটকম ও সাপ্তাহিক বিষেরবাঁশীর ২৪ বছর (দুই যুগ) পূর্তি উৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছে নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদ মিলনায়তনে ৩রা মে রোববার।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রেস কাউন্সিলের সাবেক চেয়ারম্যান বিচারপতি কাজী এবাদুল হক, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সংরক্ষিত মহিলা আসনের মাননীয় সাংসদ ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রনালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য এডভোকেট হোসনে আরা বাবলী, জেলা পরিষদ প্রশাসক আব্দুল হাই।
অতিথি হিসেবে আরও উপস্থিত ছিলেন, নারায়ণগঞ্জ জেলার আলোচিত ইউএনও ও সদ্য পদোন্নতি প্রাপ্ত অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক গাউছুল আযম, মাইকো ফাইভার গ্রুপের পরিচালক ড. মো: কামরুজ্জামান কাওসার।
অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, বিষেরবাঁশী সম্পাদক ও প্রকাশক সুভাষ সাহা।
অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি প্রেস কাউন্সিলের সাবেক চেয়ারম্যান বিচারপতি কাজী এবাদুল হক বলেন, আমার মনে হয় বিষেরবাঁশী সম্পাদকের নেশা সাংবাদিকতা। আর এ কারণেই একজন সফল ব্যবসায়ী হয়েও ২৪ বছর ধরে তিনি একটি জনপ্রিয় পত্রিকা পরিচালনা করে আসছে। সাংবাদিকতা সমাজের দর্পন আর তাই সাংবাদিকরা দেশ, জাতী ও সমাজের অনিয়ম ও অব্যবস্থাপনা তুলে ধরে এর প্রতিকারে ভূমিকা রাখবে বলে আমি দৃঢ় ভাবে বিশ্বাস করি। সিটি নির্বাচন প্রসঙ্গে প্রধান অতিথি বলেন, নির্বাচন সুষ্ঠ ও অবাধ হয়েছে যার কারণে বিরোধীরা ভোট বর্জন করার পরও এক লাখের বেশি ভোট পেয়েছে। সাংবাদিকরা ভোট বর্জন ও অনিয়ম নিয়েই শুধু লিখেছেন পরের অংশ কিভাবে বিরোধীরা এত ভোট পেল সে বিষয়ে লিখলোনা, আমি আশা করবো সাংবাদিক বন্ধুগণ ভালো এবং মন্দ উভয় বিষয়েই লিখবে যাতে করে দেশ ও জাতী উপকৃত হয়।
মাননীয় সাংসদ এড. হোসনে আরা বাবলী তার বক্তব্যে বলেন, বিষেরবাঁশীর মুক্ত চিন্তার প্রকাশ করে তার স্বকীয়তা বজায় রেখে নারায়ণগঞ্জে নিরপক্ষভাবে সংবাদ পরিবেশন করে আসছে। সুষ্ঠ ও নিরপেক্ষ সংবাদ প্রকাশ করে বিষেরবাঁশী নারায়ণগঞ্জে বিশেষ ভূমিকা পালণ করবে বলেআমি আশাবাদ ব্যাক্ত করছি।
জেলা পরিষদ প্রশাসক আব্দুল হাই তার বক্তব্যে বলেন, বিষেরবাঁশী সম্পাদক সুভাষসাহার টাকার প্রতি অনিহা আছে বলেই সে ভালো সাংবাদিকতা করে থাকে। তিনি আরও বলেন, নারায়ণগঞ্জের সাংবাদিক ভাইয়েরা নারায়ণগঞ্জের নানা সমস্যা তুলে ধরবেন তাদের পত্রিকায় এই আশা ব্যক্ত করি। সংবাদ পত্র সৎভূমিকা পালণ করবে আমি আশাবাদ ব্যক্ত করছি।
গাউছুল আযম তার বক্তব্যে বলেন, নারায়ণগঞ্জের মানুষ খুব ভালো। আপনি আমি যদি কাজ করি তাহলে এই এলাকাকে মাদক ইভটিজিং মুক্ত করতে পারবো। সকলের সহযোগিতায় সুন্দর নারায়ণগঞ্জ গড়ে তুলতে পারবো।
মাইকো ফাইভার গ্রুপের পরিচালক ড. মো: কামরুজ্জামান কাওসার তার বক্তব্যে বলেন, বিষেরবাঁশী শিল্প উন্নয়নে বিশেষ ভুমিকা রাখছে বলে আমি মনে করি। বিষেরবাঁশী নারায়ণগঞ্জের সমাজ পরিবর্তনে ব্যাপক ভূমিকা রাখবে বলে আমার বিশ্বাস।
বিষেরবাঁশী সম্পাদক সুভাষ সাহা তার বক্তব্যে বলেন, প্রধান অতিথি হিসেবে যিনি আছেন বিচারপতি কাজী এবাদুল হক তাঁর অনুপ্রেরনা আমাকে পথ চলতে সাহস জুগিয়ে চলছে। যারা ভালো কাজ করে তাদের উৎসাহিত করলে তারা ভালো কাজে অনুপ্রেরনা পায়। ভালো মানুষ গুলো তাদের কাজে উৎসাহ পায় আমরা সেই প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখছি। সবাই আমাদের পাশে থেকে অনুপ্রেরণা জোগাবেন এই আশাবাদ ব্যক্ত করছি।

সম্মাননা প্রাপ্তরা হলেন, সৈয়দ ইশতিয়াক রেজা মিডিয়া ব্যক্তিত্য ও ৭১ টিভির বার্তা পরিচালক।
নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সদ্য পদোন্নতিপ্রাপ্ত নারায়ণগঞ্জ জেলার অতিরিক্ত প্রশাসক গাউছুল আজম।
অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনায় ছিলেন জীবন কৃষ্ণ মোদক। অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন, বিষেরবাঁশীর যুগ্ম সম্পাদক কাজী কবির হোসেন, নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর খোদেজা খানম নাসরিন, রমজান বিন মোজাম্মেল, কাজী আনিসুল হক হীরা, বাপ্পি সাহা, মডেল বৃষ্টি সাহা, শীলা আহমেদ, কাজী ইয়াসিন ইকবাল ক্যানী, রেজাইল হৃদয় ও ওসমান গনী।
অনুষ্ঠান শেষে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়। অনুষ্ঠানে গান পরিবেশন করেন শিল্পী বিশ্বাস, সম্পা কাওসার ও তাদের দল।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close