১৫ বছরে আজ জকিগঞ্জ আ.লীগের সম্মেলন, কে হবেন উপজেলা আওয়ামীলীগের মাঝি?

AwamiLeage-Logoআল হাছিব তাপাদার, জকিগঞ্জ: দীর্ঘ ১৫ বছর পর আজ সোমবার জকিগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলন অনুষ্টিত হবে। ইতিমধ্যে উপজেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলনের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। সম্মেলনকে কেন্দ্র করে ঝিমিয়ে পড়া নেতাকর্মীদের মাঝে প্রাণচাঞ্চল্য ফিরে এসেছে। সম্মেলনে সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক পদ নিয়ে শুরু হয়েছে দৌড়ঝাপ। উপজেলা আওয়ামীলীগে সভাপতি পদে বর্তমান আহবায়ক আলহাজ্ব লোকমান উদ্দিন চৌধুরী ও যুগ্ম আহবায়ক ইউপি চেয়ারম্যান ইকবাল আহমদ চৌধুরী একলের নাম শুনা যাচ্ছে। সাধারণ সম্পাদক পদে উপজেলা আওয়ামীলীগ সাচিবিক যুগ্ম আহবায়ক মোস্তাকিম হায়দর, যুগ্ম আহবায়ক ফারুক আহমদ, এমএজি বাবর, রফিকুল ইসলাম, আবু জাফর মো. রায়হান, কবির আহমদ, অরবিন্দু বর্মণ বিন্দু, আব্দুল হাই, আতিকুর রহমান মনি, সাইফুল ইসলাম শিহাবের নাম শুনা যাচ্ছে। তবে শেষ পর্যন্ত তৃণমূল নেতাকর্মীরা কাকে তাদের কান্ডারি হিসেবে বেছে নিবেন তাই হচ্ছে দেখার বিষয়। উপজেলা আওয়ামীলীগের আহবায়ক আলহাজ্ব লোকমান উদ্দিন চৌধুরী গত ২০ জুলাই জকিগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের আহবায়ক ও পৌর মেয়র আনোয়ার হোসেনের মৃত্যুর পর সিলেট জেলা আওয়ামীলীগের বিশেষ সভায় তাকে আহবায়কের দায়িত্ব ও মোস্তাকিম হায়দরকে সাচিবিক যুগ্ম আহবায়কের দায়িত্ব প্রদান করা হয়। দলের দায়িত্ব নিয়েই এলোমেলো আওয়ামীলীগকে সুসংগঠিত করতে আলহাজ্ব লোকমান উদ্দিন চৌধুরী যেমন অর্থ ব্যায় করেন তেমন সময়ও ব্যায় করে আওয়ামীলীগের সকল ইউপি, পৌরসভা ও উপজেলা কমিটির সম্মেলনের পরিবেশ সৃষ্টি করেন। সম্মেলনে দু একটি ইউনিয়নে ও ওয়ার্ডে বির্তকিতও হন তিনি। অপর সভাপতি প্রার্থী উপজেলা আওয়ামীলীগ যুগ্ম আহবায়ক ইকবাল আহমদ চৌধুরী একল তিনিও বিগত দিনে রাজপথে আন্দোলন সংগ্রামে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন। বিগত দিনে তিনি উপজেলা আওয়ামীলীগের বিদ্রুহী কমিটির দায়িত্বশীল ছিলেন।
সাধারণ সম্পাদক পদে কেউ কারো থেকে পিছিয়ে নয় তবে উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম আহবায়ক ফারুক আহমদ রাজপথের নির্যাতিত কর্মী। তিনি ১৯৯৬ সালে বিএনপির ১৫ ফ্রেবুয়ারীর নির্বাচন ঠেকানোর আন্দোলনে গিয়ে বিষ্ফোরন মামলায় র্দীঘ ৫ বছর কারাভোগ করেন। ২০০৯ ও ২০১৪ সালেও তিনি রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে আরও দুইবার র্দীঘদিন কারাভোগ করেন। তিনি ছাত্রলীগের, যুবলীগের সাবেক যুগ্ম আহবায়ক ও বর্তমানে উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম আহবায়ক। উপজেলা জুড়ে তৃণমূলে রয়েছে তার বেশ জনপ্রিয়তা। ফারুক-খুররম গ্রুপ নামে রয়েছে শক্তিশালী রাজনৈতিক বলয়। আজকের কাউন্সিলে ২২৫ জন দলীয় কাউন্সিলরের মতামতের ভিত্তিতে নতুন কমিটির প্রতিফলন ঘটবে। তৃণমূলের প্রত্যাশা গণতান্ত্রিক ধারা বজায় রাখতে জেলা আওয়ামীলীগ ভূমিকা রাখবে। তৃণমূল নেতাকর্মীদের সাথে কথা বলে জানাগছে তারা প্রার্থীদের অতীত কর্মকান্ড হিসাব নিকাশ করে উপজেলা আওয়ামীলীগের মাঝি বেছে নিবেন। তবে সভাপতি পদে আলহাজ্ব লোকমান উদ্দিন ও যুগ্ম আহবায়ক ইকবাল আহমদ চৌধুরী একলের হাড্ডা হাড্ডি লড়াই হবে। সাধারণ সম্পাদক পদে ফারুক আহমদ, মুস্তকিম হায়দর, এমএজি বাবর, রফিকুল ইসলাম ও আবু জাফর মো. রায়হানের মধ্যে লড়াই হবে।
উল্লেখ্য ২০০৫ সালে আনোয়ার হোসেন সোনা উল্লাহকে সভাপতি অ্যাডভোকেট এমাদ উদ্দিনকে সাধারণ সম্পাদক করে উপজেলা আওয়ামীলীগের কমিটি গঠন করা হয়। একটি গ্রুপ তখন ভিবক্ত হয়ে পাল্টা কমিটি দিয়ে দলীয় কার্যক্রম চালিয়ে গিয়েছিল। সর্বশেষ ২০১৩ সালের ৭ অক্টোবর সিলেট জেলা আওয়ামীলীগ জকিগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের ৯৫ সদস্যের ঐক্যবদ্ধ আহবায়ক কমিটি ঘোষনা করে বির্তকিত উপজেলা আওয়ামীলীগের দীর্ঘ একযুগের আবসান ঘটান।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close