২০ দলীয় জোটের ডাকে আজকের হরতাল সফল করুণ

নেতা কর্মীদের গ্রেফতার-বাসা বাড়ী তল্লাসী নামে হয়রানী বন্ধ করুন
—-সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপি

20 dolio Jutবিরোধী দলের নেতা কর্মীদের উপর গুলি বর্ষণ হামলা গাড়ীতে আগুন বাসা বাড়ী ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে পুলিশী তল্লাসীর নামে হয়রানীর তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন সিলেট জেলা বিএনপির আহবায়ক এডভোকেট নুরুল হক, মহানগর বিএনপির সাবেক সভাপতি এম এ হক, জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক সাবেক সংসদ সদস্য দিলদার হোসেন সেলিম, জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক এডভোকেট আব্দুল গফ্ফার, বিএনপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক আবুল কাহের শামীম, মহানগর বিএনপির সাবেক সাধার সম্পাদক ও আহবায়ক কমিটি অন্যতম সদস্য হাজী আব্দুল কাইয়ুম জালালী পংকী, জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক আব্দুল রাজ্জাক, মহানগর বিএনপির আহবায়ক কমিটি সদস্য নাসিম হোসেন, এডভোকেট নোমান মাহমুদ, এডভোকেট হাবিবুর রহমান, জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক আলী আহমদ, এডভোকেট সামছুজ্জামান জামান, এম এ মান্নান, মহানগর বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য হুমায়ুন কবির শাহীন, আজমল বক্ত সাদেক, জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক ইমরান আহমদ চৌধুরী, মহানগর বিএনপির সদস্য রেজাউল হাসান কয়েছ লোদী, মিফতা সিদ্দিকী, এমদাদ হোসেন চৌধুরী, ওমর আশরাফ ইমন, হাদীয়া চৌধুরী মুন্নী, ডাঃ মোঃ নাজমুল ইসলাম, কাউন্সিলর সৈয়দ তৌফিকুল হাদী, কাউন্সিলর মিছবাহ উদ্দিন, মঈন উদ্দিন সুহেল, মাহবুব চৌধুরী, এম এ রহিম, ফয়জুর রহমান জাহেদ, অহাদুসামাদ, মুফতি বদরুনূর সায়েক, রেজাউল করিম আলো, মুফতি নেহাল, মুকুল মুর্শেদ, আলাউদ্দিন, আব্দুস সত্তার। নেতৃবৃন্দ এক যুক্ত বিবৃতিত বলেন, দেশ আজ আইনের শাসন নেই সমগ্র দেশকে আজ কারাগারে রূপান্তিত করা হয়েছে। প্রত্যেক দিন রাত বিরোধী দলের নেতা কর্মীদের বাসা বাড়ীতে তল্লাসী চালিয়ে সাধারণ জনগণ ও বিরোধী দলের নেতা কর্মীদের গ্রেফতার করা হচ্ছে, পরিবারের সদস্যদের সাথে অসৌজন্য মুলক আচরণ খারাপ বাসা গালিগালাদ অব্যাহত রয়েছে। অতি উৎসাহি কিছু সংখ্যা আইন শৃঙ্খলাবাহিনী নিবিচারে সাধারণ মানুষের উপর গুলি বর্ষণ করছে । বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্ঠা রিয়াজ রহমান‘র উপর গুলি চালিয়ে আওয়ামী বাহিনী তাদের ব্যবহারিত নিরাপত্তা বাহিনীর সহযোগিতা, এই হামলা চালানো হয়েছে বিরোধী দলের সকল নেতা কর্মীদের মধ্যে ভয় ভূতি সৃষ্ঠির জন্য। তাই সমগ্র দেশবাসীকে আজ ঐক্যবন্ধ হয়ে এই স্বৈরাচারী হানাদার আওয়ামী বাহিনীর বিরুদ্ধে আন্দোলন সংগ্রামে আর বেগবান করতে তুলতে হবে এবং বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াকে অবরুদ্ধ দশা থেকে গণ আন্দোলনের মধ্যে দিয়ে মুক্ত করে নিয়ে আসতে হবে।
নেতৃবৃন্দ বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, দলের ভাইস চেয়ারম্যান জাতীর শ্রেষ্ঠ সন্তান শমশের মবীন চৌধুরী বীর বিক্রম, বিএনপি কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও মহানগর বিএনপির আহবায়ক ডাঃ শাহরিয়ার হোসেন চৌধুরী, বিএনপি কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য আরিফুল হক চৌধুরী, মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব বদরুজ্জামান সেলিম, ছাত্রদল নেতা আহমদ চৌধুরী ফয়েজ, মাহফুজুল করিম জেহিন, এখলাছুর রহমান মুন্না সহ গ্রেফতার কৃত সকল নেতা কর্মীদের নিঃশর্ত মুক্তি দাবী জানান এবং গতকাল গভীর রাতে মহানগর বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য আব্দুল জব্বার তুতু ও ছাত্রদল নেতা রুবেল আহমদসহ বিরোধী দলের নেতা কর্মীদের বাসায় আফিসে পুলিশী তল্লাসীর তীব্র নিন্দা জানান এবং সিলেটবাসীকে আগামীকাল বৃহস্পতিবারের সকাল সন্ধ্যা হরতাল সফলের জন্য আহবান জানান। বিজ্ঞপ্তি

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close