সন্ধ্যার পর নগরীতে ৪ গাড়ীতে আগুন : ককটেল বিষ্ফোরন : পথচারী আহত : ছাত্রদল কর্মী আটক

vehicles on fireসুরমা টাইমস ডেস্কঃ সিলেট নগরীতে সোমবার সন্ধ্যার পর ফের সহিংস হয়ে পরে অবরোধ সমর্থনকারীরা। কদমতলী এলাকায় বেশ কয়েকটি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে দুর্বৃত্তরা। অল্প সময়ের ব্যবধানে বেশ কয়েকবার হাতবোমার বিস্ফোরণে এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। এছাড়া একটি ইজিবাইকে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা।
প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে কদমতলী বাস টার্মিনাল এলাকায় ৪-৫টি হাতবোমার বিস্ফোরণ ঘটিয়ে পালিয়ে যায় দুবৃর্ত্তরা। এ ঘটনায় একজন পথচারী আহত হন। তাকে উদ্ধার করে ওসমানী মেডিক্যাল কলেজে প্রেরণ করেন স্থানীয়রা।
সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে নগরীর সুবিদবাজারে একটি মাইক্রোবাস ও একটি সিএনজি অটোরিক্সায় আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। স্থানীয়দের প্রচেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রনে আসে। এসময় সন্দেহভাজন হিসেবে মুন্না নামের এক ছাত্রদল কর্মী আটক করেছে পুলিশ।
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়- সোমবার সন্ধ্যায় সাড়ে ৭টার দিকে সুবিদবাজারস্থ তারাদিন রেষ্টুরেন্টের পার্শ্ববর্তী একটি গলি থেকে কয়েকজন যুবক মূল সড়কে এসে একটি মাইক্রোবাস (সিলেট হ-১১-০৩৩৫) ও সিএনজি অটোরিক্সায় (সিলেট থ-১২-৮৮০৬) আগুন দেয়। মাইক্রোবাসটি বিদেশ থেকে আগত যাত্রী নিয়ে সিলেট থেকে সুনামগঞ্জ যাচ্ছিল। অন্যদিকে সিএনজি অটোরিক্সাটি আম্বরখানা দিকে যাচ্ছিল। পরে স্থানীয় লোকজনের প্রচেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়।
এ ব্যাপারে বিমানবন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা গৌছুল আলম জানান- খবর পেয়ে তিনি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ ঘটনায় সন্দেহভাজন হিসেবে মুন্না নামের এক যুবককে আটক করা হয়েছে।
রাত সাড়ে আটটার দিকে কদমতলী পয়েন্টে ৬-৭টি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায় দুর্বৃত্তরা। একই সময় রাস্তার অগ্নিসংযোগ করে এবং একটি ইজিবাইকে আগুন দিয়ে পালিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। এসময় পুরো কদমতলী এলাকায় আতংক ছড়িয়ে পড়ে।
রাত সোয়া নয়টায় কদমতলী ওভারব্রীজে ২টি ও ব্রীজের নিচে ২টি এবং নাঈম সিএনজি পাম্পের সামনে ২টি ককটেল বোমা বিস্ফোরণের খবর পাওয়া গেছে। একইসময় মুক্তিযোদ্ধা চত্বরে একটি ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটায় দুর্বৃত্তরা।
দক্ষিণ সুরমা ফাঁড়ি পুলিশ ইনচার্জ শফিকুল ইসলাম জানান- ঘটনাস্থলগুলো পুলিশ পরিদর্শন করেছে এবং কদমতলী এলাকায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। তবে এ ঘটনায় কাউকে আটক করা যায়নি।
এদিকে সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে নগরীর বালুচর থেকে যুবদল নেতা আল মামুনকে গ্রেফতার করেছে শাহপরান থানা পুলিশ। মামুনকে গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন শাহপরান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাখাওয়াত হোসেন।
এদিকে সিলেট-ঢাকা মহাসড়কে ও গোয়াইনঘাট উপজেলার সিলেট-তামাবিল সড়কের সারিঘাট এলাকায় রাস্তায় চলাচলকারী যানবাহনে ব্যাপক তাণ্ডব চালায় অবরোধ সমর্থনকারীরা। এসময় অবরোধকারীরা ১৮/২০টি ট্রাক, হিউম্যানহলার ও সিএনজি অটোরিকশা ভাঙচুর করে।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close