সিলেটের কবি ও কবিতা-এর সংবর্ধনা

তরুণ প্রজন্মকে সুন্দর ভবিষ্যত গড়ার প্রেরণা দিতে জীবনমুখী সাহিত্য প্রয়োজন
———গবেষক কবি আতিক কাজী

Kobi 02বিশিষ্ট গবেষক কবি আতিক কাজী বলেছেন, প্রকৃত জীবনমুখী সাহিত্যই পারে মানুষকে হিংসা, হানাহানি, অন্ধকার থেকে আলোর পথ দেখাতে। তরুণ প্রজন্মকে সুন্দর ভবিষ্যত গড়ে তোলার প্রেরণা দিতে জীবনমুখী সাহিত্যের বিকল্প নেই। সাহিত্যিকরা সাহিত্য চর্চার মাধ্যমে একটা ভিন্ন জগতে পৌছে যাওয়ার সুযোগ পায়। সাহিত্য চর্চার মধ্য দিয়ে তারা একে অপরের কাছে আসতে পারে। এর মাধ্যমে উভয়ের সংস্কৃতিকে জানার সুযোগ ঘটে।

সিলেটের কবি ও কবিতা, সিলেট (অনলাইন গ্র“প)-এর উদ্যোগে আয়োজিত সংবর্ধনা সেমিনারে সংবর্ধিত অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। গত সোমবার নগরীর দরগাহ গেইটস্থ দেশের প্রাচিনতম সাহিত্য প্রতিষ্ঠান কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদ-এর শহীদ সোলেমান হলে এ সংবর্ধনা ও সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।
সংবর্ধিত অতিথির বক্তব্যে কবি আতিক কাজী আরো বলেন, যারা সাহিত্য চর্চাকে গুরুত্ব দেবে সেই সমাজকে কেউ দাবিয়ে রাখতে পারবে না। যারা এই সাহিত্য চর্চার মধ্য দিয়ে নিজের জীবনকে খুজে পাবে তাদের ভাষা ও সংস্কৃতির বিকাশ ঘটবেই। সাহিত্য ইতিহাস-ঐতিহ্যকে স্মরণ করে। ইতিহাস কথা বলে সাহিত্যের মধ্য দিয়েই, যা মানুষের মনে দাগ কাটে, প্রেরণার যোগায়।
সিলেটের কবি ও কবিতা, সিলেট (অনলাইন গ্রুপ)-এর প্রতিষ্ঠাতা এডমিন কবি আজমল সায়েমের সভাপতিত্বে সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদ-এর সাধারণ সম্পাদক গবেষক আবদুল হামিদ মানিক। গ্র“পের এডমিন গীতিকার কবি সাইয়িদ শাহীনের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সেমিনারে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদ-এর সহ-সাধারণ সম্পাদক গল্পকার সেলিম আউয়াল, দৈনিক সিলেটের ডাক-এর সাহিত্য সম্পাদক এডভোকেট কবি আব্দুল মুকিত অপি, ঔপন্যাসিক আলী সিদ্দিক, কবি মইনুদ্দিন ফিরোজ, কবি মেঘলা জান্নাত। এছাড়াও অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সিলেটের কবি ও কবিতা গ্র“পের এডমিন কবি ফরহাদ আহমদ, কবি শহিদুল ইসলাম, কবি অলক চন্দ্র দাস, কবি মোস্তফা মিয়া ও ব্যবসায়ি এইচ এ তাফাদার রুহেল প্রমুখ। গ্র“পের এডমিন কবি হাফিজ কাজী মারুফের তেলাওয়াতের মাধ্যমে শুরু হওয়া সেমিনারে স্বাগত বক্তব্য রাখেন এডমিন কবি সৈয়দ আব্দুল্লাহ আল হাসান ও সংবর্ধিত অতিথির পরিচিতি পেশ করেন এডমিন কবি আবুল কালাম জাকারিয়া। সেমিনারে কবি আতিক কাজীর কবিতা আবৃত্তি করেন গ্র“পের এডমিন কবি ছড়াকার মিনহাজ ফয়সল ও হুমায়রা জাহান হিয়া। এছাড়াও সেমিনারে অন্যান্যের মধ্যে কবিতা আবৃত্তি করেন ছড়াকার শাহ মিজান ইবনে আজিজ, কবি সোহাগ মিয়া, কবি শাহাব উদ্দিন আহমদ, কবি জালাল আহমেদ জয়, কবি জান্নাতুল শুভ্রা মনি, কবি তাসলিমা খানম বীথি, কবি নাইমা চৌধুরী, কবি এনামুল হক, কবি ফয়সল আহমদ সাগর ও ছড়াকার মাহমুদ পারভেজ প্রমুখ। অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা পাঠান প্রবাসী এডমিন কবি নজরুল ইসলাম, কবি সারওয়ার ফারুকী, গীতিকার রুবজ এ রহমান, গীতিকার মাহতাব শাহ ফকির, কবি শামীম আহমদ ও কবি বেলায়েত মাসুম প্রমুখ।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে গবেষক আবদুল হামিদ মানিক বলেন, কবিতা আমাদের মানবিক সুকুমার বৃত্তিকে জাগ্রত করে। কবিতা চর্চার মাধ্যমে মানুষের সুকুমার চর্চাকে জাগিয়ে তুলতে হবে। মানবিকতার পথে মানুষকে এগিয়ে নিয়ে আসতে হবে। সিলেটের কবি সাহিত্যিকদের একটি ঐতিহ্য রয়েছে। সেই ঐতিহ্যের হাত ধরেই কবি আতিক কাজী হেটে চলেছেন। তিনি ইতিহাস ও ঐতিহ্যকে হৃদয়ে ধারণ ও লালন করছেন ও তা বিকাশের জন্য চেষ্ঠা করছেন।
তিনি আরো বলেন, সাহিত্য চর্চার মাধ্যমে সকলের সাথে লেখকদের আত্মিক সম্পর্ক গড়ে উঠে। এই সম্পর্কের মাধ্যমেই সকলের সাথে লেখকদের সেতুবন্ধন তৈরী হয়। কবি আতিক কাজীর সাথে সকলের আত্মিক সম্পর্ক আছে বলেই এই সংবর্ধনার আয়োজন করা হয়েছে। একটি মহৎ উদ্দেশ্য নিয়ে এই সংগঠনাটির যাত্রা হয়েছে। সেই মহৎ উদ্দেশ্যের স্বার্থকতা কামনা করছি।
উল্লেখ্য, অনুষ্ঠানে গ্রুপের পক্ষ থেকে নিয়মিত ষান্মাসিক সাহিত্য ম্যাগাজিন বের করার ঘোষণা দেয়া হয়। এছাড়াও প্রতি সপ্তাহান্তে সেরা তিনজন লেখক নির্বাচন করা হবে। উক্ত অনলাইন গ্র“প ২০১৩ সাল থেকে অনলাইনে বৃহত্তর সিলেটের নবীন কবি সাহিত্যিকদের প্রধান প্ল্যাটফর্ম হিসেবে কাজ করে যাচ্ছে । বিজ্ঞপ্তি

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close