শ্রীমঙ্গলের ৩ পরিবারে চলছে শোকের মাতম

Sreemongol Mournমধু চৌবে,শ্রীমঙ্গল থেকেঃ ঈদের ছুটিতে সিলেটের জাফলংয়ে বেড়াতে গিয়ে জীবনাবসান হওয়া শ্রীমঙ্গলের ৩ পরিবারে চলছে শোকের বাতাস। তিন জনের পরিবারে স্বজনদের কান্নায় বাতাস ভারী হয়ে উঠছে। কেউ তাদের একমাত্র সন্তান হারিয়ে পাগল প্রায়, কেউ মেনে নিতে পারছেন না তাদের আদরের দুলাল আর কোন দিন তাদের কাছে ফিরবে না। মর্মান্তিক এই দুর্ঘটনাটি কিছুতেই মেনে নিতে পারছেন না তাদের বাবা মা সহ পরিবারের লোকজন। সন্তানের কথা চিন্তা করে বার বার তারা যাচ্ছেন মূর্ছা।
নিহত তিন জনের মধ্যে উপজেলার জেরিন চা বাগানের দিলবর নগরের মামুন ছিল পিতা মকাতার একমাত্র পুত্র সন্তান। সে চাকুরী কততো একটি প্রাইভেট সিকোরিটি ফোর্সে। তার বাবার নাম বশির মিয়ার । এদিকে দুর্ঘটনায় নিহত মামুন ছিল পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ছেলে। একমাত্র পুত্রকে হারিয়ে বাব বার মুর্চ্ছা যাচ্ছিলেন তিনি। তার মামাতো ভাই রমজান মিয়া জানান, তারা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌছে মৃতদেহ সনাক্ত করেন।
নৌকা ডুবিতে নিহত বাকী দুজন হলো শাখিল ও সাদেক। নিহত শাকিল ছিল তিন ভাই দুই বোনের মধ্যে সবার ছোট। সে ষিামনি এলাকার খোরশেদ আলমের ছেলে। অপরদিকে নিহত সাদেক ছিল ৫ ভাই ৪ বোনের মধ্যে সবার ছোট। সে ডুলুছড়া এলাকার রহিম মিয়ার ছেলে। তারা দু’জনই বিষামনি উচ্চ বিদ্যালয়ে দশম শ্রেণীতে পড়তো।
উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার ঈদের ছুটিতে শ্রীমঙ্গল থেকে একটি বাস নিয়ে ৩১ জনের একটি পর্যটক দল সিলেটের জাফলংয়ে বেড়াতে যায়। দুপুর আড়াইটায় জাফলং খাসিয়া পুঞ্জি থেকে একটি নৌকাযোগে বল্লা
ঘাট ফেরার পথে ১০/১২ জন যাত্রী নিয়ে নৌকাটি পিয়াইন নদীতে ডুবে যায়। এসময় নৌকাতে থাকা অন্য যাত্রীরা সাঁতার কেটে তীরে উঠলেও ওই তিনজন পানিতে তলিয়ে যায়। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের একটি টিম ঘটনাস্থলে পৌছে দীর্ঘ ৬ ঘন্টা অভিযান চালিয়ে তাদের মৃতদেহ উদ্ধার করে।
গতকাল শুক্রবার সকালে নিহত শাকিল এর লাশ নিয়ে আসা হয় তার স্কুল মাঠে। তার পাসেই টিলার উপরে তাদের বাড়িতে চলছিল শোকের মাতম। তার পিতা লেবু বাগান ব্যবসায়ী বিশামনি গ্রামের খুর্শেদ মিয়া আক্ষেপ করে বলেন, এমন ঘটনা ঘটবে জানলে ছেলেকে যেতে দিতামনা। তাকে হারিয়ে বাক রোদ্ধ তার অন্য সহ পাঠিরাও। সেখানে তাকে এক নজর দেখতে ভিড় করেন শত শত মানুষ। তার সহ পাঠিরা জানায় নৌকায় তারা ১০/১২ জন উঠেছিল। বেশি লোক উটার কারণে নৌকাটি নদীর মধ্যে এসে তলিয়ে যেতে থাকে। সবাই সাতরিয়ে পারে উঠলেও শাকিল সহ ৩ জন পানির নিচে তলিয়ে যায়।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close