জগন্নাথপুরে ‘সে ফাউন্ডেশন’র শিক্ষা বৃত্তি ও শিক্ষক সম্মাননা পদক প্রদান

মেধাবী শিক্ষার্থীরা দেশ ও জাতির গর্বিত সম্পদ
—- অধ্যক্ষ ড. আবুল ফতেহ ফাত্তাহ

say-1স্টাফ রিপোর্টার : শিক্ষা উন্নয়ন ও মানবকল্যান মূলক সংগঠন ‘সে ফাউন্ডেশন’র তত্ত্বাবধানে ‘শাহ আশরাফুন্নেছা কামালী স্মৃতি প্রাইমারী শিক্ষা বৃত্তি এবং সে ফাউন্ডেশন শিক্ষক সম্মাননা পদক প্রদান-২০১৪’ উপলক্ষে আয়োজিত কৃতি শিক্ষার্থী ও গুণীজন সংবর্ধণা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি’র বক্তব্যে সিলেট মদন মোহন কলেজের অধ্যক্ষ ড. আবুল ফতেহ ফাত্তাহ বলেছেন, মেধাবী শিক্ষার্থীরা দেশ ও জাতির গর্বিত স¤পদ। তাদের উপর দেশের ভবিষ্যৎ নির্ধারণ করে। দেশ ও জাতির বৃহত্তর স্বার্থে তাদেরকে মূল্যায়ন করতে হবে। এক্ষেত্রে সে ফাউন্ডেশন অনন্য ভূমিকা পালন করছে।
তিনি বলেন, প্রকৃত শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে দেশের যোগ্য নাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে হলে ছাত্রছাত্রীদের আরো মনোযোগী হওয়া প্রয়োজন। তা না হলে সমৃদ্ধ দেশ ও সমাজ গড়া সম্ভব নয়। ছাত্রছাত্রীদের সৃজনশীল মেধা বিকাশে বৃত্তি পরীক্ষা শিক্ষা জীবনে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে। তাই সুশিক্ষিত জাতি গঠনে দেশের সকল সচেতন নাগরিক সমাজকে এগিয়ে আসতে হবে।
তিনি গতকাল বুধবার দুপুরে সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার শাহারপাড়াস্থ একটি কমিউনিটি সেন্টারে আয়োজিত অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন।
সিলেট মোগলাগাঁও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা ও সে ফাউন্ডেশনের উপদেষ্ঠা শাহজাদি খানমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সংবর্ধিত অতিথিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সিলেট এমসি কলেজের মনোবিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর মোঃ সালেহ আহমদ, মদন মোহন কলেজের বাংলা ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের প্রধান অধ্যাপিকা হোসনে আরা কামালী, জগন্নাথপুর আদর্শ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক বিনয় কুমার সরকার, শাহারপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষক সৈয়দ সৈয়দ আলী এবং বিশেষ অতিথি ছিলেন সিলেট সরকারি কলেজের রাষ্ট্র বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক প্রতাপ চৌধুরী, জগন্নাথপুর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি আতাউর রহমান কামালী, দৈনিক সিলেটের ডাক-এর স্টাফ রিপোর্টার এনামুল হক রেনু, শাহারপাড়া শাহ কামাল উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি মোঃ মোদাব্বির হোসেন কামালী ও শাহারপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি মোঃ মমিনুল হক কামালী।
মোঃ জুনেদ কামালীর সঞ্চালনায় শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন সে ফাউন্ডেশনের অন্যতম সদস্য হাফিজ মাহমুদ মাহবুবুর রহমান। যুক্তরাজ্যে অবস্থানরত সে ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক সৈয়দপুর আদর্শ কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ মুহাম্মদ শাহেদ রাহমানের পক্ষে স্বাগত বক্তব্য রাখেন শাহারপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ফরিদুল ইসলাম এবং শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন ফাউন্ডেশনের সদস্য শিক্ষানুরাগী আবুল হোসেন লালন।
অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, শিক্ষার্থীর সুপ্ত প্রতিভার বিকাশে প্রতিযোগিতা মূলক মনোভাব গড়ে তুলতে বৃত্তি মাইল ফলক হিসেবে কাজ করে। এতে শিক্ষার্থীরা উৎসাহিত হয়। নিজেকে যোগ্যতার মাপ কাঠিতে মাপতে শেখে। নিজেকে দক্ষ ও যোগ্য সুনাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে পারে।
শেষে অতিথিগণ বৃত্তিপ্রাপ্ত বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কৃতি শিক্ষার্থীদের মাঝে সনদ ও অর্থ বিতরণ করেন।
এছাড়া প্রধান অতিথি শিক্ষা ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ ৫ গুণী শিক্ষককে শিক্ষক সম্মাননার ক্রেষ্ট তুলে দেন। সম্মাননাপ্রাপ্ত শিক্ষকরা হচ্ছেন জগন্নাথপুর আদর্শ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আলহাজ্ব মোঃ আব্দুর রহিম (২০০৮), একই প্রতিষ্ঠানের অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক বিনয় কুমার সরকার (২০১০), মদন মোহন কলেজের বাংলা ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের প্রধান অধ্যাপিকা হোসনে আরা কামালী (২০১১), সিলেট এমসি কলেজের মনোবিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর মোঃ সালেহ আহমদ (২০১২) ও শাহারপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষক সৈয়দ সৈয়দ আলীর(২০১৩)।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close