মেয়র আরিফের এনজিওপ্লাস্ট সম্পন্ন : কলিমা পড়ছিলেন আরিফ

Arif angioplastiসুরমা টাইমস রিপোর্টঃ সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর এনজিওপ্লাস্ট সম্পন্ন হয়েছে। ঢাকার ইউনাইটেড হাসপাতালের কার্ডিওলজি বিভাগের চিফ কনসালটেন্ট ডা. মোমিনুজ্জামানের তত্ত্বাবধানে তার এনজিওগ্রাম করা হয়। এনজিওগ্রাম শেষে চিকিৎসকরা পরিবারের সদস্যদের জানিয়েছেন, মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর হার্টে একটি ব্লক ধরা পড়েছে।
পরিবারের সদস্যদের সিদ্ধান্তক্রমে পরে বেলা পৌনে ১১টায় মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর হার্টের ব্লকে এনজিওপ্লাস্টের মাধ্যমে রিং (স্টেইনইং) লাগানো হয়েছে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, বর্তমানের মেয়রের শারীরিক অবস্থার অনেক উন্নতি হয়েছে। তবে তাকে এখনও পুরোপুরি বিশ্রামে থাকতে হবে। কবে নাগাদ মেয়রকে হাসপাতাল ত্যাগ করতে হবে সে ব্যাপারে এখনও চিকিৎসকরা কোন কিছু জানাননি।

মেয়র আরিফ তখন কলিমা পড়ছিলেন

সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী তখন কলিমা পড়ছিলেন এবং এসময় গাড়ির ভেতরে থাকা সকলকে তিনি আমারে তাড়াতাড়ি ডাক্তার লইয়া যাওরে বলতে থাকেন। গতকাল শুক্রবার রাতে মেয়র আরিফ অসুস্থ হয়ে পড়লে এ অবস্থার সৃষ্টি হয়। এইডেড হাইস্কুলে তিনি তখন একটি অনুষ্টানে যাচ্ছিলেন। জিন্দাবাজারে সবুজ বিপনীর সামনে তিনি বুকে ব্যথা অনুভব করলে তিনি গ্যাসট্রিকের ব্যথা মনে করেছিলেন। কিন্তু এইডেড হাইস্কুলের গেটের ভেতর প্রবেশ করার সাথে বুকের ব্যথা প্রচন্ড অনুভূত হতে থাকলে তিনি কলেমা পড়তে শুরু করেন। সাথে সাথে গাড়ী ঘুরিয়ে মেয়রকে নগরীর মাউন্ট এডোরা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। এসময় হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসকরা মেয়র হৃদরোগে আক্রাšত হয়েছেন বলে জানান।

arif at air ambulanceসেখানে তাৎক্ষণিকভাবে মেয়রের চিকিৎসার জন্য একটি মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়। মেডিকেল বোর্ড মেয়রকে আরও উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় স্থানান্তরের পরামর্শ দেন। বোর্ডের পরামর্শ অনুযায়ী আজ শনিবার সকালে ঢাকা স্কায়ার হাসপাতালের একটি বিশেষ এয়ার এম্বুলেন্স যোগে থাকে ঢাকার ইউনাইট্রেড হাসপাতালে পাঠানো হয়। সকাল ৭টায় এয়ার এম্বুলেন্সটি সিলেট স্টেডিয়ামে অবতরণ করে। সাথে সাথে এম্বলেন্সে করে মাউন্ট এডোরা থেকে স্টেডিয়ামে নিয়ে আসা হয়। ৭টা ১৯ মিনিটে এয়ার এম্বুলেন্স যোগে মেয়রকে ঢাকায় পোঠানো হয়েছে। এয়ার এম্বুলেন্সে মেয়রের পতœী শামা হকও ঢাকায় গিয়েছেন। জাতীয় অধ্যাপক ব্রিগেডিয়ার (অব:) ডা: এম এ মালিক মেয়রের চিকিৎসার তত্বাবধান(সুপারভিশন) করছেন।

আরিফুল হকের পারিবারিক সূত্র জানায়, শুক্রবার সন্ধ্যা পৌণে ৮টায় সিলেট ডায়াবেটিক হাসপাতালের মাসিক সভা শেষে বাসায় ফেরার পথে মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী অসুস্থ হয়ে পড়েন। গাড়ীতে থাকা অবস্থায় তিনি প্রচন্ড বুকে ব্যথা অনুভূত করেন। এক পর্যায়ে শারীরিক অবস্থার চরম অবনতি হলে নয়াসড়কস্থ মাউন্ট এডোরা হসপিটালে ভর্তি করা হয়। প্রাথমিক চিকিৎসার পরই ডাক্তাররা মেয়রের হার্ট এ্যাটাক হয়েছে জানিয়ে তাকে নিবিড় পর্যবেক্ষণ ইউনিটে (সিসিইউ) নিয়ে যান। মেডিকেল বোর্ডে ছিলেন ডা: এম এ রকিব, ডা: এম এ আহবাব, ডা: পবিত্র কুমার কুন্ডু, প্রফেসর ডা: সাহাবুদ্দিন,ডা: শিশির বসাক, ডা: সুধাংশু রঞ্জন দে, ডা: আমিনুর রহমান লস্কর, ডা: নজরুল ইসলাম, ডা: আখতারুজ্জামান। সিলেট সিটির প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা: সুধাময় মজুমদার জানিয়েছেন, মেডিকেল বোর্ডের সিদ্ধান্ত মোতাবেক মেয়রকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। বর্তমানে তার অবস্থা স্থিতিশীল থাকলেও এখনো তিনি বিপদমুক্ত নন। ডা: মজুমদার জানান, সিলেট সফররত মালয়েশিয়ান হেলথ কেয়ারের একটি বিদেশী বিশেষজ্ঞ টিমও মেয়রের চিকিৎসা কার্যক্রম গতকাল পর্যবেক্ষন করেছেন এবং তাদের পরামর্শ দিয়েছেন। এদিকে,মেয়রের সুস্থতার জন্য সিলেটবাসীসহ দেশবাসীর কাছে দোয়া কামনা করেছেন মেয়রের সহধর্মিনী সামা হক চৌধুরী। সিলেট সিটি কাউন্সিলরদের পক্ষ থেকে আজ শনিবার বাদ যোহর দরগাহ মসজিদে এক মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close