বাঁচবো ভাবিনি, এখনো নিজেকে নিরাপদ মনে করি না

rizwana and her husbandসুরমা টাইমস রিপোর্টঃ পরিবেশ আইনবিদ সমিতির (বেলা) প্রধান নির্বাহী সৈয়দা রিজওয়ানা হাসানের স্বামী আবু বকর সিদ্দিক বলেছেন, আমি বেঁচে আসতে পারবো তা ভাবিনি। এখনো নিরাপদ বোধ করতে পারছি না। পরিস্থিতি বুঝেই চলতে হবে। আজ শুক্রবার বেলা আড়াইটার দিকে আবু বকর সিদ্দিক আদালতে জবানবন্দি শেষে বের হয়ে সাংবাদিকদের সামনে একথা বলেন। নারায়ণগঞ্জ মুখ্য বিচারিক হাকিম আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন তিনি
জবানবন্দি শেষে আবু বকর সিদ্দিক নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার দিকে রওয়ানা দেন। পথে বেলা তিনটার কয়েক মিনিট আগে নারায়নগঞ্জের হামিদ ফ্যাশান নামের নামের পোশাক কারখানায় ঢোকেন। এ প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহীর দায়িত্বে রয়েছেন আবু বকর সিদ্দিক।
এদিকে আদালত থেকে বের হয়ে আবু বকরের স্ত্রী সৈয়দা রিজওয়ানা হাসান বলেন, এখন আইনি ব্যাপারগুলো চলতে থাকবে। তবে আগে যে রকম পরিবেশ নিয়ে আন্দোলন চালিয়েছিলেন ঠিক তেমনটাই আন্দোলন এখনো চালাবেন বলে মন্তব্য করেন তিনি।
বুধবার বেলা আড়াইটার দিকে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডের ভূঁইয়া ফিলিং স্টেশনের সামনে থেকে একদল দুর্বৃত্ত অস্ত্রের মুখে আবু বকরকে অপহরণ করে৷ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ তারা সেখানেই এখন যাচ্ছেন বলে জানা গেছে।
এর আগে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয় থেকে আবু বকর সিদ্দিককে আদালতে নিয়ে যাওয়া হয়। আদালতে ১৬৪ ধারায় তার জবানবন্দি নেয়া হয়।
বেলা ১১টা থেকে আবু বকর নারায়নগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে ছিলেন। সেখানে দুপুর পৌনে ১২টার দিকে তার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়। স্বাস্থ্য পরীক্ষা করেন নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসা কর্মকর্তা মো. ফরহাদ। আবু বকরের ব্যক্তিগত গাড়ি থেকে নমুনা সংগ্রহ করেছেন পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) ফরেনসিক শাখার কর্মকর্তারা। সকালে রাজধানীর সেন্ট্রাল রোডের বাসা থেকে পুলিশের পিকআপ ভ্যানে আবু বকর ও তার স্ত্রী সৈয়দা রিজওয়ানা হাসান নারায়ণগঞ্জের উদ্দেশে রওয়ানা দেন।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close