সিলেটের শিশু নাঈম হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবীতে মানববন্ধন

MANOB BONDON PIC-12-1-16দক্ষিণ সুরমা উপজেলার তেতলী ইউনিয়নের পুরান তেতলী গ্রামের এম এ হকের শিশু পুত্র, লিটল স্টার কিন্ডারগার্টেনের ৪র্থ শ্রেণির মেধাবী ছাত্র মোজাম্মেল হোসেন নাঈম হত্যাকারীদের ফাঁসির দাবীতে মঙ্গলবার সিলেট-ঢাকা মহাসড়কের তেলিবাজার নামক স্থানে লিটল স্টার কিন্ডারগার্টেনের শিক্ষক, অভিভাবক ও শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে এক মানবববন্ধন কর্মসূচী পালিত হয়।
লিটল স্টার কিন্ডারগার্টেনের অধ্যক্ষ মোঃ আব্দুল কাইয়ুম এর সভাপতিত্বে মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন ও বক্তব্য রাখেন বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি মকবুল আলী, সদস্য আজাদ মিয়া, খলিলুর রহমান, রেজওয়ান আহমদ চৌধুরী, সায়েম আহমদ, হাজী আব্দুস সালাম মর্তু, ডাক্তার মিফতাহুল হোসেন সুইট, হাজী সুনাহর আলী, হাজী জয়নাল আহমদ, গোলাম মোস্তফা কামাল, মকবুল মিয়া, ওলিওর খান, হাজী আবুল বশর, আহমদ হোসেন রেজা, কুতুব উদ্দিন, হাবিব মিয়া, মানিক মিয়া, সাহাব উদ্দিন, মাজহারুল ইসলাম শাকিল, লায়েক আহমদ, আব্দুল মছব্বির, নিজাম উদ্দিন, মাসুক মিয়া, আব্দুল কাইয়ুম, মঞ্জুরুল ইসলাম, জমিরুল হোসেন টুনু, জামাল উদ্দিন, নিজাম খান, আফজল হোসেন মুন্না, আব্দুল হক, আকবর হোসেন মুক্তা, ফখরুল ইসলাম, হেলাল উদ্দিন, হোসেন মিনহাজ, হাসন মিয়া, মোস্তফা মিয়া, নেছার আহমদ, ইমরুল হোসেন, মনসুর আহমদ, কামরুল হোসেন, ছাবিব হাসান ছানিম বদরুল হোসেন
অভিভাবকদের পক্ষে আব্দুস সালাম, জামাল আহমদ, বাবুল আহমদ, মুমিন আহমদ, কামার আহমদ, রুমন আহমদ, সুমন আহমদ, শিক্ষকদের মধ্যে অনুপম ঘোষ, মুজিবুর রহমান, রোকেয়া আহমদ, শেখ শারমিন, ধনঞ্জয় সরকার, শাহির উদ্দিন, আইরিন বেগম, শারমিন বেগম, আব্দুল্লাহ আল মামুন, রীমা বেগম, আব্দুল মুতিন, ফারুক আহমদ, ফুয়াদ আহমদ, নাজমা বেগম, তাছলিমা বেগম প্রমুখ। মানববন্ধনে কিন্ডারগার্টেরে সকল ছাত্র-ছাত্রী উপস্থিত ছিলেন।
বক্তারা বলেন, মেধাবী ছাত্র নাঈম তারাবী নামাজে যাওয়ার পথে বিগত ২০১১ সালের ১৪ আগস্ট ঘাতকরা অপহরণ করে নির্মম ভাবে হত্যা করে। সাত দিন পর ঘাতকদের স্বীকারোক্তির মাধ্যমে নাঈমের গলিত লাশ উদ্ধার করা হয় তার বাড়ির পার্শ্ববর্তী জঙ্গল থেকে। এ সময় ঘাতক মিঠুন ও ইসমাঈলকে জনতা আটক করে পুলিশের কাছে সোপর্দ করে।
বক্তারা আরো বলেন, দীর্ঘ ৫ বছর পেরিয়ে গেলেও হত্যকান্ডের রায় এখনো আলোর মুখ দেখেনি। পুলিশ প্রশাসনের দীর্ঘসূত্রিতার কারণে মামলাটি থমকে আছে। বক্তারা বলেন, ঘাতকরা এত নিষ্ঠুর যে, মেধাবী স্কুল ছাত্র ছোট নাঈমকে হত্যা করতে তাদের বুক কেঁপে উঠলনি। নাঈম ছিল স্কুলের সকলের প্রিয়। সবার সাথে ছিল তার সখ্যতা। বক্তারা নাঈম হত্যাকারী ঘাতকদের আইনের মাধ্যমে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির জোর দাবী জানান।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close