আ গা চৌধুরীর বক্তব্যে সচেতন সিলেটবাসীর বিবৃতি……

সিলেটবাসীকে কটাক্ষ করে আ গা চৌধুরীর বক্তব্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ: প্রকাশ্যে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান

হযরত শাহজালাল (র.). হযরত শাহপরান (র.) ও ৩৬০ আউলিয়ার স্মৃতি বিজড়িত বাংলাদেশের আধ্যাত্মিক রাজধানী খ্যাত পুন্যভুমি সিলেট-এর মানুষ তথা সিলেটীদের নিয়ে আব্দুল গাফফার চৌধুরীর কুরুচিপুর্ণ বক্তব্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন সিলেটের বিশিষ্টজন ও সচেতন সিলেটবাসীর নেতৃবৃন্দ। এই ধরনের কান্ডজ্ঞানহীন বক্তব্যের জন্য সিলেটবাসীর কাছে তাকে অবিলম্বে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাওয়ারও আহ্বান জানান তারা। অন্যথায় সিলেটের আপামর জনতা গর্জে উঠে রাজপথে নামতে বাধ্য হবে।
শুক্রবার এক যৌথ বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ উপরোক্ত কথা বলেন। নেতৃবৃন্দ আরো বলেন- ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলন থেকে শুরু করে মহান ভাষা আন্দোলন ও মহান মুক্তিযুদ্ধে সিলেটীদের রয়েছে বীরত্বগাথা ইতিহাস। স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে দেশ পরিচালনার ক্ষেত্রে সিলেটীরা ছিলেন অগ্রভাগে। যার ধারাবাহিকতা আজও বিদ্যমান রয়েছে। এই ইতিহাস গাফ্ফার চৌধুরীর মত ব্যাক্তিত্বদের জানা উচিত ছিল। ইতিহাস না জেনে সিলেটীদের নিয়ে এমন কান্ডজ্ঞানহীন বক্তব্য সারা পৃথিবীতে বসবাসরত সিলেটীদের ইতিহাস ঐতিহ্যের প্রতি বৃদ্ধাঙ্গুলি প্রদর্শনের শামিল। শুধু বাংলাদেশ নয় গোটা বিশ্বের বিভিন্ন রাষ্ট্রে সিলেটীদের রয়েছে অবাধ অংশ গ্রহন। লন্ডনে বর্তমানে সিলেটের একজন এমপি রয়েছেন। এছাড়া রয়েছেন কয়েক সিটির মেয়র ও কাউন্সিলার। যেখানে যুক্তরাজ্যের সরকার পরিচালনায় সিলেটীরা নেতৃত্ব দিচ্ছে সেখানে লন্ডনের সিলেটীদের নিয়ে গাফফার চৌধুরীর মন্তব্য মিথ্যাচার ও উদ্দেশ্যপ্রনোদিত। গত ১২ ডিসেম্বর চ্যানেল আই ইউরোপের একটি প্রোগ্রামে গাফফার চৌধুরী লন্ডনের সিলেটবাসীদের নিয়ে “লাঙ্গল টু লন্ডন” বলে কুরুচিপুর্ণ মন্তব্য করেন। এছাড়া তিনি সিলেটী ভাষা নিয়েও কটাক্ষ করেন। সিলেটবাসীদের নিয়ে এমন কুরুচিপুর্ন বক্তব্যে শুধু বাংলাদেশ কিংবা সিলেট নয় গোটা বিশ্বে অবস্থানরত সিলেটীদের হৃদয়ে রক্তক্ষরন শুরু করেছে। অবিলম্বে এই ধরনের বক্তব্যের জন্য গাফফার চৌধুরীকে তার বক্তব্য প্রত্যাহার করে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে হবে। ভবিষ্যতে সিলেটীদের নিয়ে বক্তব্য দেয়ার জন্য সতর্ক থাকারও আহ্বান জানান তারা। ইতিহাস স্বাক্ষী অতীতেও সিলেটীদের নিয়ে কুরুচিপুর্ন বক্তব্য করে কেউ রেহাই পায়নি। ক্ষমা চাইতে বাধ্য হয়েছেন। সিলেটের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট যে কোন বিষয়ে সচেতন সিলেটবাসী সব সময় স্বোচ্ছার ছিল ভবিষ্যতেও থাকবে।
বিবৃতি প্রদান করেন- সচেতন সিলেটবাসীর উপদেষ্টামন্ডলীর সদস্য বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ভাষা সৈনিক অধ্যক্ষ মাসউদ খান, ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) জুবায়ের সিদ্দীকি, লে: কর্নেল (অব.) আতাউর রহমান পীর, লে: কর্নেল (অব.) সৈয়দ আলী আহমদ, সচেতন সিলেটবাসীর আহ্বায়ক সিসিক প্যানেল মেয়র-১ রেজাউল হাসান কয়েস লোদী, যুগ্ম আহ্বায়ক সালেহ আহমদ খসরু, যুগ্ম আহ্বায়ক ডা: নাজমুল ইসলাম, সদস্য সচিব এডভোকেট আব্দুল মুকিত অপি, যুগ্ম সদস্য সচিব জাহেদ আহমদ তালুকদার ও এমজেএইচ জামিল প্রমুখ।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close