বড়লেখা হয়ে ভারতের সাথে চালু হবে আরো একটি রেল যোগাযোগ

বাংলাদেশ-ভারত দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক উন্নয়নে শ্রীমঙ্গলে তিন দিনব্যাপী সম্মেলন : দুই দেশের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট একাধিক বিষয়ে সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষরিত

SAMSUNG CAMERA PICTURESজীবন পাল, শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি: বাংলাদেশ-ভারত দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক উন্নয়নে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে শেষ হয়েছে তিন দিনব্যাপী ডিসি-ডিএম সম্মেলন।
সম্মেলনে দু’দেশের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়। এর মধ্যে মৌলভীবাজারের বড়লেখার শাহবাজপুর থেকে ভারতের লাতু হয়ে করিমগঞ্জে রেলযোগাযোগ, সুনামগঞ্জের সীমান্ত হাটের অগ্রগতি, বড়লেখায় নুতুন আরও একটি সীমান্ত হাট চালু, আইসিপির উন্নয়ন, মাদক, চোরাচালান ও সীমান্তে শান্তিপূর্ণ সহাবস্থানসহ ১১টি প্রস্তাবনা সম্পাদন ও সহজতরকরণ বিষয়ে উভয়ে একমত পোষন করে সোমবার দুপুরে একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেন।
শ্রীমঙ্গল গ্র্যান্ড সুলতান টি-রিসোর্ট এন্ড গলফে সম্মেলনে বাংলাদেশের পক্ষে ১৩ সদস্য বিশিষ্ট দলের নেতৃত্ব দেন মৌলভীবাজারের জেলা প্রশাসক মো. কামরুল হাসান। ভারতের পক্ষে ৮ সদস্য দলের নেতৃত্ব দেন কাছাড় জেলার জেলা ম্যাজিস্ট্র্যেট শ্রী এস বিশ্বনাথন।
এছাড়াও সম্মেলনে বিগত জানুয়ারী মাসে ভারতের শিলচরে ডিসি-ডিএম পর্যায়ের বৈঠকে গৃহিত সিন্ধান্ত গুলোর অগ্রগতি নিয়ে আলোচনা হয়।
এ ব্যাপারে শ্রীমঙ্গলস্থ ৪৬ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্ণেল নাসির উদ্দিন এ প্রতিবেদকক জানান, উল্লেখিত ১১ বিষয় ছাড়াও বৈঠকে বন্যা নিয়ন্ত্রণ ও সীমান্ত এলাকার নদী পাড় সংরক্ষণ, দু’দেশের সংস্কৃতি ও ক্রীড়া বিনিময়, সাজা শেষ হওয়া জেলবন্দীদের বিনিময় বর্ডারের পিলার মেরামত সহ একাধিক বিষয় গুরুত্বের সাথে আলোচনা আসে।
এ ব্যপারে শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শহিদুল হক জানান, দুই দেশের প্রতিনিধিদের মধ্যে অতন্ত বন্ধুত্বপূর্ণ আলোচনা হয়েছে। উভয়ের প্রয়োজন অনুযায়ী একাধিক বিষয় উঠে আসে । বিষয় গুলোর ব্যাপারে দুই দেশের প্রতিনিধি দলই একমত হন।
ভারতীয় প্রতিনিধি দলে আরো রয়েছেন করিমগঞ্জের ডেপুটি কমিশনার সঞ্জিব কুমার বড়ুয়া, জেলা শাসক (ডিএম) কবির দাশ চৌধুরী, কাছাড়ের পুলিশ সুপার রাজিভর সিংহ, কমান্ডেন্ট অফিসার সঞ্জিব যোশি, করিমগঞ্জের পুলিশ কমিশনার প্রদিপ রঞ্জন কর, শিলচরের এডিসি এনকে দাশ প্রমুখ।
বাংলাদেশের প্রতিনিধি দলে আরো রয়েছেন মৌলভীবাজার এডিএম ফারুখ আহমদ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক রাজস্ব প্রকাশ কান্তি চৌধুরী, মৌলভীবাজার পুলিশ সুপার মো. শাহজালাল, সিলেটের পুলিশ সুপার নুরে আলম মিনা, ৪৬ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্ণেল নাসির উদ্দিন ও ৫২ এর ভার প্রাপ্ত অধিনায়ক মেজর আবদুল্লাহ আল মাহমুদ, শ্রীমঙ্গল উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা শহিদুল হক প্রমুখ।
এর আগে শনিবার দুপুর পৌনে ২টায় ভারতীয় প্রতিনিধি দল বিয়ানীবাজারের সুতারকান্দি চেকপোষ্ট দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করেন। এসময় মৌলভীবাজারের জেলা প্রশাসক, সিলেটের পুলিশ সুপার নুরে আলম মিনা, সিলেটের এডিএম সৈয়দ মো: আমিনুর রহমান, বিজিবি-৫২ ব্যাটেলিয়ন ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক মেজর আবদুল্লাহ আল মাহমুদ ভারতীয় প্রতিনিধি দলকে স্বাগত জানান। বিয়ানীবাজারে কিছুক্ষণ যাত্রা বিরতি শেষে সন্ধায় শ্রীমঙ্গলে পৌছেন অতিথিরা। এসময় বাংলাদেশের উষ্ণ আথিতেয়তার মুগ্ধতা প্রকাশ করেন ভারতীয় প্রতিনিধি দলের সদস্যরা।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close