প্রতিবন্ধী সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার বাহার উদ্দিন সকলের কাছে সাহায্য প্রার্থী

bahar uddinকানাইঘাট উপজেলার বাণীগ্রামের মৃত আব্দুল গনির ছেলে বাহার উদ্দিন। তার অনেক বড় স্বপ্ন ছিল সে বাংলাদেশের অনেক বড় বৈজ্ঞানিক হবে। কিন্তু ভাগ্য তার বিপরিত। ১৯৮৯ সালে অজ্ঞাত এক রোগে আক্রান্ত হয়ে সু-চিকিৎসার অভাবে তার ২টি পা চিরতরে অচল হয়ে যায়। এরপরও সে বসে থাকেনি। সে কষ্ট করে তার লেখাপড়া চালিয়ে যেতে থাকে। বাহার উদ্দিন ১৯৯৯ সালে এস.এস.সিতে কৃর্তীতের সাথে উর্তীণ হয়। সে লেখাপড়ার পাশাপাশি একটি প্রতিষ্ঠানে কম্পিউটার প্রশিক্ষণ নেয়। বাহার উদ্দিন ঘরে বসে কম্পিউটার সহায়ক বই পড়ে পড়ে কম্পিউটার ডিপ্লোমা শিখেন। পরবর্তীতে তার নিজ বাড়িতে কুইজ লাক কম্পিউটার একাডেমী নামে একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেন। সে একজন ক্ষুদে বৈজ্ঞানিক ও বাংলাদেশের স্বাবলম্বী শারিরীক প্রতিবন্ধী। সে কম্পিউটারের দু’টি সফটওয়্যার আবিষ্কার করেছে। বাংলা সফটওয়্যার যার নাম মাহিনা বাহার সাকি-২০০৯ এবং অন্যটি মাল্টিমিডিয়া সফটওয়্যার যার নাম মার্জিয়া বাহার আকি-২০১০। পরে এই রোগটি দু’হাতে দেখা দেয়। বাহার ২০০৮ সালে বিবাহ করেন, তার এক ছেলে ও দুই মেয়ে। তার দু’হাতে রোগটি আক্রান্ত হওয়ার কারণে দু’বছর যাবৎ প্রতিষ্ঠানটি বন্ধ হয়ে যায়। বাহার উদ্দিন দেশের অনেক ডাক্তারের কাছে চিকিৎসা নিয়েছেন। কিন্তু কোন সুফল না পেয়ে সে ভারতে চিকিৎসার জন্য গিয়েছিলেন। ভারতের ডাক্তাররা তাদের পরীক্ষা নিরীক্ষা করে বলেছে দু’হাতে অপারেশন করতে হবে। এজন্য প্রায় ১০/১২লক্ষ টাকা লাগবে। এত টাকা যুগার করার মত ক্ষমতা নেই তার। তাই সে দেশ ও বিদেশের ধনী বৃত্তবান স্বÑহৃদয় মানুষের কাছে সাহায্য সহযোগীতা প্রার্থনা করছে। তার একাউন্ট হল- বাহার উদ্দিন ,পূবালী ব্যাংক লি. গাছবাড়ি, কানাইঘাট অ/ঈ. ৩৮৪২১০১০০৯৬১০ ও বিকাশ +৮৮ ০১৭১৫-১৩৭৪০০, যোগাযোগের জন্য +৮৮ ০১৭১৫-১৩৭৪০০।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close