ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা ও ডিগ্রি কলেজ ছাত্রদলের কর্মী সম্মেলন অনুষ্ঠিত

Studio_20151021_153757 copyসিলেট জেলা ছাত্রদলের উদ্যোগে ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা ও ফেঞ্চুগঞ্জ ডিগ্রী কলেজ ছাত্রদলের কর্মী সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। ২০শে অক্টোবর মঙ্গলবার বেলা ৩ টায় ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা সদরের বনছায়া কমিউনিটি সেন্টারে উক্ত কর্মী সম্মেলনটি অনুষ্ঠিত হয়। সিলেট জেলা ছাত্রদল সভাপতি সাঈদ আহমদের সভাপতিত্বে ও সাধারন সম্পাদক রাহাত চৌধুরী মুন্নার পরিচালনায় সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সংসদের সহসভাপতি নাজমুল হাসান বলেন, স্বৈরাচারী সরকারের হিংস্র থাবা থেকে দেশ ও গণতন্ত্রকে মুক্ত করতে হলে প্রয়োজন ঐক্যবদ্ধ ও সুসংগঠিত ছাত্রদল। বিএনপি চেয়ারপার্সন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান দেশনায়ক তারেক রহমানে নেতৃত্বে দূর্বার গণ-আন্দোলনের মাধ্যমে বহুদলীয় গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে ঝাঁপিয়ে পড়তে ছাত্রদলকেই অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে”। তিনি জেলা ছাত্রদলের উদ্যোগে ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা ও কলেজ ছাত্রদলের সম্মেলনে তৃনমূল ছাত্রদল নেতাকর্মীদের ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার প্রশংসা করে এ ধরনের কর্মসূচি সারাদেশ ব্যাপী ছড়িয়ে দিতে কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দকে অবহিত করবেন বলে জানান।
কর্মী সম্মেলনে প্রধান বক্তার বক্তব্যে সিলেট মহানগর ছাত্রদল সভাপতি নুরুল আলম সিদ্দিকী খালেদ বলেন, দায়িত্ব পাওয়ার পর থেকে সিলেট জেলা ও মহানগর ছাত্রদলকে সুসংগঠিত ও শক্তিশালী করতে প্রতিটি থানা, কলেজ, ওয়ার্ড ও ইউনিয়নে কর্মী সম্মেলনের মাধ্যমে কমিটি গঠনের কাজ করে যাচ্ছে। সিলেট জেলা ও মহানগর ছাত্রদলের ঐক্যবদ্ধ নেতৃত্বে আগামীতে বাকশাল পতনের আন্দোলন সিলেট থেকেই শুরু হবে।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সংসদের যুগ্ম সম্পাদক এবি.এম নাজিম মাহমুদ বলেন,সিলেট জেলা ছাত্রদল যেভাবে প্রতিটি থানায় ও কলেজে কর্মী সম্মেলনের মাধ্যমে তৃনমূল থেকে নেতৃত্ব গঠনে কাজ করছে যা সারাদেশে ছাত্রদলের জন্য রোল মডেল। তিনি সিলেট জেলা ছাত্রদলের আওতাধীন যেসকল ইউনিট বাকি রয়েছে সব গুলো ইউনিট কমিটি দ্রুত গঠনের জন্য জেলা নেতৃবৃন্দের প্রতি আহবান জানান।
সভাপতির বক্তব্যে জেলা ছাত্রদল সভাপতি সাঈদ আহমদ বলেন, তারেক রহমান বাংলাদেশের স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব ও গণতন্ত্রের পতাকা আঁকড়ে ধরেছিলেন বলে তাকে হত্যার ষড়যন্ত্র হয়েছিল। কিন্তু যতই ষড়যন্ত্র, চক্রান্ত হোক না কেন, তা দেশের মানুষ মানবে না। নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি আরো বলেন, আপনারা যদি সত্যিই তারেক রহমানকে স্বাধীন দেশে দেখতে চান, তাহলে বর্তমান ফ্যাসিস্ট, জালেম, গণতন্ত্র ও মানুষ হত্যাকারী সরকারের বির্বদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ার শপথ নিতে হবে। সাংগঠনিক বিষয়ে তিনি তার বক্তব্যে বলেন, কারো ব্যক্তিগত পছন্দ-অপছন্দ নয়, দেখতে হবে তাদের যোগ্যতা, বিপদের সময় তারা দলের আদর্শকে বহন করতে পারবে কিনা।
এর আগে দীর্ঘ ১২ বছর পর ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা ও ডিগ্রী কলেজ ছাত্রদলের কর্মী সম্মেলনকে ঘিরে ফেঞ্চুগঞ্জ উৎসব মুখর পরিবেশের সৃষ্টি হয়। সকাল থেকেই সম্মেলন স’লে জমায়েত হতে থাকে হাজার-হাজার নেতাকর্মী। বেলা ৩ ঘটিকায় পবিত্র কোরআন তেলোয়াতের মাধ্যমে কর্মী সম্মেলনের কার্যক্রম শুরু হয়। সম্মেলনের শুরুতেই একে একে বক্তব্য রাখেন উপজেলা ও কলেজ ছাত্রদলের নেতৃবৃন্দ। স্থানীয় নেতৃবৃন্দ তাদের বক্তব্যে ত্যাগী, নির্যাতিত ও রাজপথের নেতাদের দিয়ে কমিটি গঠনের অনুরোধ জানান। জবাবে জেলা ছাত্রদলের সভাপতি সাঈদ আহমদ খুব শিগ্রই সবগুলো ইউনিটে আন্দোলনমুখী কমিটি দেওয়ার ঘোষনা দেন।এছাড়া সম্মেলনে বক্তারা নিঁখোজ কেন্দ্রীয় বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক এম. ইলিয়াস আলী ও সিলেট জেলা ছাত্রদলের সাবেক সহসাধারন সম্পাদক নিঁখোজ ইফতেখার আহমদ দিনারকে অক্ষত অবস্থায় ফিরিয়ে দেওয়ার দাবি জানান।
সম্মেলনে বিশেষ অতিথি হিসেবে আরো বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সাবেক সহসভাপতি আব্দুল আহাদ খাঁন জামাল, মৌলভীবাজার জেলা ছাত্রদলের আহবায়ক জাকির হোসেন উজ্জ্বল, জেলা ছাত্রদল সহসভাপতি চৌধুরী মোঃ সোহেল,জেলা ছাত্রদলের সিনিয়র ছাত্রনেতা মিফতাউল কবির মিফতা, জয়নাল আহমদ।বিশেষ বক্তার বক্তব্য রাখেন সিলেট মহানগর ছাত্রদলের সাংগঠনিক আব্দুর রকিব চৌধুরী। এছাড়াও সম্মেলনে জেলা ছাত্রদলে পক্ষে বক্তব্য রাখেন জেলা ছাত্রদলের ১ম যুগ্ম সম্পাদক মকসুদ আহমদ, যুগ্ম সম্পাদক মিজানুর রহমান নেছার।
স্থানীয় নেতৃবৃন্দের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সাবেক থানা ছাত্রদল সভাপতি এনায়েতুর রহমান রুহেল, সদ্য সাবেক আহবায়ক ওহীদুজ্জামান চৌধুরী সুফি, সাবেক থানা ছাত্রদল নেতা রেজাউল করিম রায়হান,সাবেক থানা ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়ক গোলাম কীবরিয়া খান, শহীদুর রহমান নোমান, মোয়াজ্জেম হোসেন সাহেদ, ফেঞ্চুগঞ্জ ডিগ্রি কলেজ ছাত্রদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ রিয়াজ আহমদ, দিলাল আহমদ, লুৎফুর রহমান,ফেঞ্চুগঞ্জ ডিগ্রি কলেজ ছাত্রদলের সদ্য সাবেক আহবায়ক ওয়ালিদ আহমদ বিলাস, ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা ছাত্রদলের সদ্য সাবেক যুগ্ম আহবায়ক মাজহারুল ইসলাম রাসেল, এম.জে জাবেদ, ইমরানুল করিম মিঠু, রাশেদুল হাসান, এনামুল হক মুন্না, শেখরুল হাসান,কাজী নাদের হোসেন এমু, সাইফুল ইসলাম খাঁন, বদরুল ইসলাম খাঁন, শাহীন আহমদ, টুটুল আহমদ, দিনার আহমদ শাহ, খালেদ আহমদ, রাজীব হোসেন রাজীব, দেলোয়ার হোসেন লিপু।
ফেঞ্চুগঞ্জ ডিগ্রি কলেজ ছাত্রদল নেতাদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সৈয়দ তায়েফুজ্জামান তায়েফ, তপু আহমদ খাঁন, মিল্টন আহমেদ মিথুন, মুহিবুর রহমান নাহিদ, সজল আহমদ, শাহিন আহমদ, আমিন আহমদ, রেজোয়ান আহমদ।
এছাড়া কর্মী সম্মেলনে আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ও বক্তব্য রাখেন ফেঞ্চুগঞ্জ থানা বিএনপির সভাপতি সুফিয়ানুল করিম চৌধুরী,থানা বিএনপির সাধারন সম্পাদক তছলিম আহমদ নেহার, থানা বিএনপির সাবেক আহবায়ক মাহবুবুর রহমান বাবু, ফেঞ্চুগঞ্জ থানা বিএনপির সাবেক সভাপতি আজমল আলী, ফেঞ্চুগঞ্জ থানা বিএনপির সহসভাপতি ইফতেখার উদ্দিন ফেদল, ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান শহিদুর রহমান রুমান, বালাগঞ্জ থানা বিএনপির সাধারন সম্পাদক মুজিবুর রহমান মুজিব প্রমুখ।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close