বলতন্ত্রে আজ সব স্তব্ধ হয়ে গেছে : এরশাদ

ershadসুরমা টাইমস ডেস্কঃ ‘জাতির সবকিছুই আজ বলতন্ত্রের কাছে স্তব্ধ হয়ে গেছে’ বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ। তিনি বলেছেন, ‘দেশের মানুষ আজ ভয়াবহ দুর্বিষহ জীবন-যাপন করছে। কারো জীবনেই স্বস্তি নেই।’
রবিবার দুপুরে যশোর জিলা স্কুল অডিটরিয়ামে জেলা জাতীয় পার্টির দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন। দেশের চলমান পরিস্থিতির প্রেক্ষিতে কটাক্ষ করে এরশাদ বলেন, ‘দেশে এমনই সুশাসন চলছে যে, মায়ের গর্ভে থাকা শিশু পর্যন্ত রেহাই পাচ্ছে না। তাদেরও গুলিতে আহত হতে হচ্ছে। দিনদুপুরে শিশুকে পিটিয়ে হত্যা করা হচ্ছে। আর এসব গর্হিত কাজের সঙ্গে যারা জড়িত, ক্ষমতাসীন হওয়ায় তারা সবকিছু থেকে পার পেয়ে যাচ্ছে।’
নিজের শাসনামলের ফিরিস্তি তুলে সাবেক স্বৈরাচার খ্যাত এরশাদ বলেন, ‘দেশের এ অবস্থা থেকে উত্তরণে আজ জাতি আমাদের দিকে চেয়ে আছে। এ জন্য দেশ ও দেশের গণতন্ত্রের স্বার্থে জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীদের এগিয়ে আসতে হবে।’
জেলা জাতীয় পার্টির সাবেক সভাপতি ও সম্মেলন প্রস্তুত কমিটির আহ্বায়ক শরিফুল ইসলাম সরু চৌধুরীর সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন দলের মহাসচিব জিয়াউদ্দীন আহমেদ বাবলু, সিনিয়র প্রেসিডিয়াম সদস্য পানিসম্পদমন্ত্রী ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, প্রেসিডিয়াম সদস্য সুনীল শুভরায়, আলহাজ তাজ রহমান ও যুগ্ম মহাসচিব রেজাউল ইসলাম ভূঁইয়া।
জাতীয় পার্টির প্রধান বলেন, ‘দেশের গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে জাতীয় পার্টি ছাড়া এখন আর কেউ মাঠে নেই। অসহায় জনগণের পাশে একমাত্র আমরাই আছি।’
বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, ‘তারা এখন শিয়ালের গর্তে পালিয়েছে। আর এ সুযোগে আওয়ামী লীগ লুটপাট আর দখলবাজিতে ব্যস্ত।’
প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত এরশাদ দেশের মানুষের কল্যাণে বিএনপি-আওয়ামী লীগ কিছুই করছে না দাবি করে বলেন, ‘শিয়ালের গর্ত থেকে মাথা উঁচু করে কিছু সময়ের জন্যে বের হয়ে রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডের নামে কেবল বিবৃতি, বক্তব্য আর নিন্দা জানিয়ে ফের গর্তে ঢুকে যাচ্ছেন বিএনপির কতিপয় নেতা। আর আওয়ামী লীগ ব্যস্ত লুটপাটে।’
একমাত্র জাতীয় পার্টিই গণতন্ত্র রক্ষার সংগ্রাম চালিয়ে যাচ্ছে বলে তিনি মন্তব্য করেন।
প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে এরশাদ বলেন, ‘আমরাও জাতির জনকের প্রতি শ্রদ্ধা জানাই। তিনি বাংলাদেশের একজন মহান নায়ক। তবে তার মৃত্যুদিবসকে কেন্দ্র করে কেউ চাঁদাবাজি করলে আমাদের বড় কষ্ট হয়। এ দেশের ব্যবসায়ীরা ১৫ আগস্ট উপলক্ষে কী পরিমাণ চাঁদা দিয়েছে সেটি হয় তো আপনি জানেন না।’
তিনি বলেন, ‘বেগম খালেদা জিয়া নির্বাচনের আগে জনসভায় বলেছিলেন, তিনি ক্ষমতায় গেলে আমাকে জীবিত জেলে পাঠাবেন এবং মৃত বের করবেন। অথচ এখন পর্যন্ত জনগণের ভালোবাসায় আমি বেঁচে আছি। ভবিষ্যতে জাতি দেখতে পাবে কে জীবিত অবস্থায় জেলে ঢোকে আর কী অবস্থায় বের হয়।’
এরশাদ আরো বলেন, ‘দেশটাকে বিএনপি-আওয়ামী লীগই ধ্বংস করেছে। আমার আমলের রাস্তাঘাট সব ধ্বংস করে জনগণের চলাচলের পথ রুদ্ধ করা হয়েছে।’
তিনি বর্তমান সংসদীয় গণতন্ত্রের কথা উল্লেখ করে বলেন, ‘আমরা এমন সংসদীয় গণতন্ত্র চাইনি, যেখানে আইনের শাসন অনুপস্থিত থাকবে। মানুষের কথা বলার অধিকার থাকবে না।’
সরকার ব্যবস্থার সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘দেশে এখন এককেন্দ্রিক সরকার চলছে। পৃথিবীর কোথাও এমন সরকারের নজির নেই। ১৬ কোটি মানুষের প্রতিনিধি একজন হতে পারে না। দেশের জনগণের সুবিধার্থে প্রাদেশিক সরকার গঠন করতে হবে।’
সম্মেলনে জাপা চেয়ারম্যান শরিফুল ইসলাম সরু চৌধুরীকে সভাপতি ও মিনহাজুল আবেদিনকে সাধারণ সম্পাদক করে যশোর জেলা জাতীয় পার্টির কমিটি ঘোষণা করেন। একই সঙ্গে আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ কমিটি করতে নেতাদের নির্দেশ দেন।
এর আগে বেলা সাড়ে ১১টায় যশোর জিলা স্কুল অডিটরিয়ামে জেলা জাতীয় পার্টির সম্মেলন শুরু হয়। সকালের ফ্লাইটে এরশাদসহ দলের নেতারা যশোরে আসেন।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close