সিলেটের রাজপথে শুয়ে পড়ল শতাধিক লোক : আসছে সিটি কর্পোরেশন ঘেরাও কর্মসূচী

মশা নিধন, জলাবদ্ধতা নিরসন, ফুটপাত দখলমুক্ত ও রিক্সা ভাড়া নির্ধারণের দাবীতে সিলেট কল্যাণ সংস্থা’র সমাবেশ ও ১০ মিনিট শোয়া কর্মসূচী অনুষ্ঠিত
আগামী এক মাসের মধ্যে নগরীর অন্যতম সমস্যা মশা নিধন, জলাবদ্ধতা নিরসন, ফুটপাত দখলমুক্ত ও রিক্সা ভাড়া নির্ধারণ করা না হলে সিলেট সিটি কর্পোরেশন ঘেরাও কর্মসূচী

SKS Photo-03, 19.04.2015সুরমা টাইমস ডেস্কঃ বৃহত্তর সিলেটের অরাজনৈতিক কল্যাণমূলক স্বেচ্ছাসেবী সামাজিক সংগঠন সিলেট কল্যাণ সংস্থা’র আয়োজনে ১৯ এপ্রিল ২০১৫ রবিবার সিলেট সিটি কর্পোরেশনের সামনে ‘‘মশা নিধনে বাস্তবভিত্তিক কার্যকর পদপে, বর্ষাকাল প্রারম্ভে জলাবদ্ধতা নিরসনে কার্যকর পদপে, নাগরিকদের ফুটপাত দখলমুক্ত করার দাবীতে কার্যকর পদপে ও নগরীতে চলাচলে রিক্সা ভাড়া নির্ধারনে কার্যকর পদপে গ্রহনের দাবীতে সকাল ১০টায় সমাবেশ ও বেলা ১১টায় ১০ মিনিট শোয়া কর্মসূচী’’তে বক্তারা বলেন, আমরা নগরীর জনসাধারণ অসংখ্য সমস্যায় নিমজ্জিত। সমস্যার মধ্যে থাকতে থাকতে আমরা নগরবাসী সমস্যা উপস্থাপনের ভাষা হারিয়ে ফেলেছি। ঘুম থেকে উঠে ঘুমানোর পূর্ব মুহুর্ত পর্যন্ত সর্বেেত্র বিভিন্ন সমস্যা ও প্রতিকুলতার সম্মুখীন হই বার বার। তারপরও উল্লেখযোগ্য কিছু সমস্যা উপস্থাপন না করে আমাদের কোন উপায় থাকে না। আমরা নগরবাসী বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের জন্য সিলেট সিটি কর্পোরেশন, সিলেট মেট্টোপলিটন পুলিশ সহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপকে অবগত করে আসছি ও বার বার বিভিন্ন ভাবে সমস্যাগুলি দাবী আকারে উপস্থাপন করে আসছি। কিন্তু মাঝে মাঝে মনে হয়, আমাদের সমস্যাদি সমাধানের সংশ্লিষ্ট কোন নির্দিষ্ট কর্তৃপ নেই। বিভিন্ন দাবীকে বিভিন্ন মহল বিভিন্ন েেত্র নিজ দায়বার এড়াতে অন্যান্য অহেতুক কর্তৃপরে দারস্থ হওয়ার কথা বলেন। আমরা নগরবাসীর জন্য, যা অত্যান্ত দুঃখজনক। বক্তারা আরো বলেন, আমরা নগরবাসী বর্তমান সময়ের অন্যতম সমস্যা ‘‘মশা নিধনে বাস্তবভিত্তিক কার্যকর পদপে, বর্ষাকাল প্রারম্ভে জলাবদ্ধতা নিরসনে কার্যকর পদপে, নাগরিকদের ফুটপাত দখলমুক্ত করার দাবীতে কার্যকর পদপে ও নগরীতে চলাচলে রিক্সা ভাড়া নির্ধারন”এর দাবীর ব্যাপারে পরিকল্পনা ভিত্তিক ভবিষ্যত অবস্থানকে সামনে রেখে কার্যকর পদপে গ্রহণ করা না হলে আগামী এক মাসের মধ্যে সিলেট কল্যাণ সংস্থা সিলেট নগরীর সচেতন নাগরিকবৃন্দদেরকে নিয়ে সিলেট সিটি কর্পোরেশন ঘেরাও কর্মসূচী পালন করবে। সমাবেশ ও শোয়া কর্মসূচী থেকে ১লা বৈশাখ ১৪২২ বাংলা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি চত্বরে নারী শ্লীলতাহানির ঘটনায় জড়িত দোষী ব্যক্তিদের অবিলম্ভে গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির জোর দাবী জানানো হয়। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র কাছ থেকে জাতীয় যুব দিবস ২০১০ এ জাতীয় যুব পুরস্কার ’’শ্রেষ্ঠ যুবসংগঠক পদকপ্রাপ্ত’’ সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মোঃ এহছানুল হক তাহেরের সভাপতিত্বে সংস্থার অন্যতম সদস্য মোঃ জহিরুল ইসলাম জহিরের পরিচালনায় শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সংস্থার অন্যতম সদস্য যুবনেতা সাদিকুর রহমান সাদিক। সমাবেশ চলাকালীন সময়ে একাত্মতা পোষণ করে বক্তব্য রাখেন, সংস্থার উপদেষ্টা যুক্তরাজ্য কমিউনিটি নেতা হাজী মোঃ রজব আলী দেওয়ান, প্রতিষ্ঠাতা সদস্য শাহ মোঃ আব্দুল মালিক, মোঃ তালেব হোসেন তালেব, বাংলাদেশ পুস্তক প্রকাশক ও বিক্রেতা সমিতি সিলেট জেলা শাখার সদস্য সচিব মাহবুবুল আলম মিলন, বৃহত্তর সিলেটের যুবনেতৃবৃন্দদের মধ্য থেকে সিলেট জেলার যুবনেতা মোঃ আজিজুর রহমান আজিজ, এ.কে কামাল হোসেন, বিপ্র দাস বিশু বিক্রম, সাচ্ছা মিয়া মুস্তাকীম, আব্দুর রহমান লিমন, আমীন তাহমীদ, মোঃ আবু সাদাত সায়েম, মোঃ রাশেদুজ্জামান রাশেদ, আব্দুল মুহিত, আব্দুর রহমান সাজু, সুনামগঞ্জ জেলার যুবনেতা হুমায়ুন রশিদ চৌধুরী, ফরিদ আহমদ, হবিগঞ্জের যুবনেতা মোঃ ফজলুল করিম চৌধুরী মিনহাজ, মোঃ নুরুল আমিন, মোঃ শরীয়ত উল্লাহ, মোঃ ছায়েম, শ্রী প্রদিপ চক্রবর্তী, রাজিকুল ইসলাম, বাবুল মিয়া, মোঃ আবুল কালাম আজাদ, হিন্দু মহাজোট’র কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক রাকেশ রায়, সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মধ্য থেকে কথা রাখেন মোঃ আনোয়ার হোসেন, রাহাত চৌধুরী শিমুল, সহ সিলেট জেলার বিভিন্ন উপজেলার সচেতন নাগরিকবৃন্দ ও যুববৃন্দদের মধ্য থেকে উপস্থিত ছিলেন ইদ্রিছ আলী, রুহুল আমীন নগরী, মোঃ আলিম উদ্দিন, আশিষ চন্দ্র দাস, আবু তায়্যিব রুবেল, সুলতান সুমন, মোঃ আলী হোসেন, সোহাগ হোসেন, ইফতেখার হোসেন, মানিক চন্দ্র সরকার, দেলোয়ার দিলু, মৌলানা মুহাঃ উসমান গনী, হাছান আহমদ, লিপু আহমদ, মোঃ রাইমুল ইসলাম, মোঃ ইমন আহমদ, মোঃ রাসেল আহমদ, মোঃ রনি আহমেদ, ওয়াহিদ আহমদ, লিটন মিয়া, মোঃ নাইমুল ইসলাম, আফজল আল-মামুন, জাহের আহমদ মারুফ, উজ্জল আহমদ, বিজিত চন্দ্র, মোঃ মুনির আহমদ, সুকান্ত তালুকদার, মোঃ ফলিকুর রহমান, মোহাম্মদ আখলু মিয়া, মোঃ আব্দুস সাত্তার, মিজানুর রহমান, মোঃ জয়নুল আবেদীন, মোঃ শামীম আহমদ, রিয়াজ আলী, মাওলানা আছলাম রহমানী, এম.এ জলিল, রেজা মিয়া, মখলিছুর রহমান লুদু ও মোঃ সোহেল মিয়া। সকাল ১০টার সমাবেশ ৬০মিনিট স্থায়ী হয়ে যথা সময় বেলা ১১টায় ১০ মিনিট শোয়া কর্মসূচী অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশ ও শোয়া কর্মসূচীতে সংস্থার সর্বস্তরের সদস্যসহ সিলেটপ্রেমী প্রায় দুই শতাধিক সচেতন নাগরিকবৃন্দ স্বতঃস্ফুর্তভাবে অংশগ্রহণ করেন।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close