শুধু অপসারণ নয়, ওসি সাখাওয়াতের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যাবস্থা গ্রহণের দাবী

sobuj_sylhet_18-04-2015_S

ছবিঃ ফাহাদ আহমেদ

sabuj-sylhet

ছবিঃ ফাহাদ আহমেদ

5

ছবিঃ ফাহাদ আহমেদ

13

ছবিঃ ফাহাদ আহমেদ

16

ছবিঃ ফাহাদ আহমেদ

সিলেটের শাহপরান থানায় সবুজ সিলেট পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক, সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের উপদেষ্টা মুজিবুর রহমানের বিরুদ্ধে উদ্ভট অভিযোগে দায়ের করা মামলা সাংবাদিক সমাজের জন্য মানহানিকর বলে অভিহিত করেছেন বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা। তারা বলেছেন, এ জন্য শাহপরান থানার ওসি সাখাওয়াতের শুধু অপসারণ নয়, তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।
শনিবার সিলেট নগরীর কোর্ট পয়েন্টে বিশাল মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। দুপুর সাড়ে ১২টায় মানবাধিকার তথ্য ও পর্যবেক্ষন সোসাইটির উদ্যোগে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। সংগঠনের কেন্দ্রীয় যুগ্ম-মহাসচিব, সুরমা টাইমস্ সম্পাদক হাবিবুর রহমান তাফাদারের সভাপতিত্বে মানববন্ধন কর্মসূচিতে একাত্ম হয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন ন্যাপ’র কেন্দ্রীয় প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দ আব্দুল হান্নান।
তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন, একটি সনামধন্য দৈনিক পত্রিকার সম্পাদক ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মুজিবুর রহমানের বিরুদ্ধে কল্পিত মামলা রেকর্ড করে শাহপরান থানার ওসি সাখাওয়াৎ প্রমান করেছেন তিনি গণমাধ্যমের দুষমন। সাধারণত কোনো ব্যক্তি যেকোনো অভিযোগ থানায় 1 8 দায়েরের পর একজন বিজ্ঞ এসআই এর মাধ্যমে পুলিশ তা তদন্ত করে। কিন্তু শাহপরান থানার ওসি কোন তদন্ত ছাড়াই একজন বর্গাচাষীকে ফাঁদে ফেলে গ্রেপ্তার করে সনামধন্য সম্পাদক মুজিবুর রহমানকে মামলায় জড়িয়ে প্রমান করেছেন ওসি কারও কাছ থেকে অবৈধ ফায়দা হাসিলের মাধ্যমে তদন্ত ছাড়া তড়িঘড়ি করে মিথ্যা মামলা রেকর্ড করেন। তাই অবিলম্বে এই মামলা প্রত্যাহার করে ঘটনার সাথে জড়িত থানার ওসিসহ চিহিৃত অপরাধিদের গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় নিয়ে আসতে হবে।
মানবাধিকার তথ্য পর্যবেক্ষণ সোসাইটির প্রচার সম্পাদক ও সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের সদস্য নুরুল হক শিপু’র পরিচালনায় মানববন্ধনে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ছামির মাহমুদ, নির্বাহী কমিটির সদস্য এস সুটন সিংহ, সাংবাদিক ট্রেড ইউনিয়ের সভাপতি নজরুল ইসলাম সিপার, বাংলাদেশ ফটো জার্নালিষ্ট এসোসিয়েশনের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বিলকিস আক্তার সুমি, বাংলাদেশ ফটো জার্নালিষ্ট এসোসিয়েশন ও সিলেট প্রেসক্লাবের সদস্য কয়েছ আহমদ, জাতীয় দৈনিক সোনালী কণ্ঠ’র ব্যবস্থাপনা সম্পাদক ও বাংলাদেশ নাগরিক অধিকার বাস্তবায়ন পরিষদের সভাপতি ইসলাম আলী, মানবাধিকার তথ্য পর্যবেক্ষণ সোসাইটির সহ-সভাপতি (সিলেট) ডা. বাপ্পি চৌধুরী, হিন্দু মহাজোটের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক রাকেশ রায়, সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক কামরুল হাসান জুলহাস, বাংলাদেশ নাগরিক অধিকার বাস্তবায়ন পরিষদ সিলেট জেলার আহবায়ক হানিফ আহমদ, অন্যতম সদস্য ফারুক আহমদ।
অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, মানবাধিকার কর্মী ও সাংবাদিক আছমা উল হুসনা, জহুরা ইসলাম নাজনিন, শিউলী আক্তার, হাবিবুর রহমান হৃদয়, গোলাপগঞ্জ প্রেসক্লাবের সদস্য কেএম আব্দুল্লাহ, দৈনিক সংবাদের সিলেট অফিসের স্টাফ ফটো সাংবাদিক ইদ্রিছ আলী, সাপ্তাহিক কানাইঘাটের ডাক’র স্টাফ ফটো সাংবাদিক জাকির হোসেন দিপু, সাংবাদিক বিপ্লব রায়, দৈনিক যুগভেরী পত্রিকার প্রতিনিধি আব্দুর রহমান হিরা, সাংবাদিক ইউনিয়ন সিলেটের সহ-সভাপতি শাহান আহমদ চৌধুরী, সহ-সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ আহমদ সাজু, অর্থ সম্পাদক আক্তার হোসেন সায়মন, ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক অপু দাশ, সদস্য, এম মামুন আহমদ, সাব্বির হোসেন, মৃনাল কান্তি বৈদ্য, দিনার আহমদ, কবির আহমদ, শামিম আহমদ, জেলা ছাত্র সমিতির সভাপতি ফখরুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক সালেহ আহমদ, এমসি কলেজ ছাত্র সমিতির আহবায়ক ফয়েজ আহমদ রিপন, সদস্য নাসির আহমদ, ছাত্রলীগ নেতা শিব্বির আহমদ, কুয়ারপাড় এলাকার বিশিষ্ট মুরব্বী কালা মিয়া, শেখঘাট এলাকার ব্যবসায়ী ও সমাজ সেবক আব্দুল মতিন, ব্যবসায়ী প্রদিপ কর, সেলিম আহমদ, সুমন ইসলাম, সিলেট উন্নয়ন সংস্থার সাংগঠনিক সম্পাদক আলী আকবর রাজন, সদস্য পাপ্পু চৌধুরী, রিপন আহমদ, তুফায়েল আহমদ, সিলেট কল্যাণ সংস্থার মহানগর কমিটির অর্থ সম্পাদক, মো. জহিরুল ইসলাম, দপ্তর সম্পাদক বিপ্ল দাস বিক্রম প্রমুখ।
এদিকে, মানবাধিকার তথ্য পর্যবেক্ষণ সোসাইটি’র আয়োজনে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে একাত্মতা পোষণ করে মিছিল সহকারে বাংলাদেশ নাগরিক অধিকার বাস্তবায়ন পরিষদ ও হিন্দু মহাজোটের নেতৃবৃন্দ অংশ গ্রহণ করেন।
এ সময় বক্তারা বলেন, দৈনিক সবুজ সিলেটের সম্পাদক ও প্রকাশক মুজিবুর রহমানকে হয়রাণী করতেই সাজানো মিথ্যা মামলা করিয়েছেন শাহপরান থানার ওসি সাখাওয়াৎ হোসেন। কোনো রকম তদন্ত ছাড়াই ষড়যন্ত্রমুলক ভাবেই একজন বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সম্পাদকের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। এ থেকে প্রমানিত হয় থানার ওসি বড় অঙ্কের টাকার বিনিময়ে শুধুমাত্র সবুজ সিলেট’র সম্পাদকের সম্মানহানি করার জন্যই ধান চুরির মামলা রেকর্ড করেছেন। অবিলম্বে এই মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করে শাহপরান থানার ওসি সহ এঘটনার সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানান তাঁরা। বিজ্ঞপ্তি

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close