জাসাস নেতা জালাল উদ্দিন শামীমের বাসায় পুলিশী তল্লাশী : জেলা ও মহানগর বিএনপির নিন্দা

সিলেট মহানগর জাসাস এর সাংগঠনিক সম্পাদক জালাল উদ্দিন শামীম-এর বাসায় পুলিশী তল্লাশী ও তার পরিবারের মহিলা সদস্যের সাথে অসৌজন্যমুলক আচরনের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপি নেতৃবৃন্দ। অবিলম্বে কথিত যৌথ বাহিনীর অভিযানের নামে নিরীহ নেতাকর্মীদের গোটা সিলেট জুড়ে বিএনপি অঙ্গ-সংগঠনের নেতাকর্মীদের গণগ্রেফতার, বাসা-বাড়ী, অফিস ও ব্যাবসা প্রতিষ্ঠানে তল্লাশীর নামে পুলিশী হয়রানীর বন্ধ করার আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারি বাহিনীর কতিপয় দলবাজ অতিউৎসাহী সদস্যের প্রতি আহ্বান জানান তারা।
নেতৃবৃন্দ বলেন, মানুষের জানমালের নিরাপত্তায় নিয়োজিত আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারি বাহিনীর কতিপয় অতিউৎসাহী সদস্য সাধারন মানুষের কাছে মুর্তিমান আতংকের মত সৃষ্টি হয়েছেন। এই অবস্থায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারিবাহিনীর ভাবমুর্তি চরমভাবে ক্ষুন্ন হচ্ছে। বুধবার রাতে জাসাস নেতা জালাল উদ্দিন শামীমের বাসায় ব্যাপক তল্লাশী চালায় পুলিশ। এসময় বাসায় তাকে না পেয়ে তার বৃদ্ধা মাতাসহ পরিবারের অন্যান্য নারী সদস্যকে অকথ্য বাসায় গালিগালাজ করে এবং পরিবারের সবার সাথে অসৌজন্যমুলক আচরন করে পুলিশ। বাসায় ঘন্টাব্যাপী তল্লাশীর নামে প্রয়োজনীয় আসবাবপত্র ভাংচুর করে উপস্থিত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। মহিলা সদস্যের সাথে জনগনের জানমালের নিরাপত্তায় নিয়োজিত বাহিনীর এমন বর্বর আচরন পাক হানাদার বাহিনীর বর্বরতাকেও হার মানাচ্ছে। এই সরকারই শেষ সরকার নয়। জনগনের সরকার প্রতিষ্ঠিত হলে অন্যায় অপকর্মের সাথে জড়িতদের অবশ্যই বিচারের মুখোমুখি দাঁড়াতে হবে।
গতকাল শুক্রবার এক যৌথ বিবৃতিতে সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপি নেতৃবৃন্দ এই নিন্দা জানান। বিবৃতি প্রদান করেন-
জেলা বিএনপি:
সিলেট জেলা বিএনপির আহ্বায়ক এডভোকেট নুরুল হক, সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক সাবেক এমপি দিলদার হোসেন সেলিম, যুগ্ম আহ্বায়ক এডভোকেট আব্দুল গাফফার, যুগ্ম আহ্বায়ক আবুল কাহের চৌধুরী শামীম, যুগ্ম আহ্বায়ক মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রাজ্জাক, যুগ্ম আহ্বায়ক আলী আহমদ, এডভোকেট সামসুজ্জামান জামান, যুগ্ম আহ্বায়ক আব্দুল মান্নান ও যুগ্ম আহ্বায়ক এমরান আহমদ চৌধুরী।
মহানগর বিএনপি:
সিলেট মহানগর বিএনপির সাবেক সভাপতি আলহাজ্ব এম.এ হক, সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি নাসিম হোসাইন, সাবেক সাধারন সম্পাদক আব্দুল কাইয়ুম জালালী পংকী, মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য অধ্যাপক মকসুদ আলী, আজমল বখত্ চৌধুরী সাদেক, হুমায়ুন কবির শাহীন, রেজাউল হাসান কয়েস লোদী, মিফতাহ সিদ্দীকি, সৈয়দ মিসবাহ উদ্দিন, সৈয়দ মঈনুদ্দিন সোহেল, সৈয়দ তৌফিকুল হাদী, ডা: নাজমুল ইসলাম, এডভোকেট হাদিয়া চৌধুরী মুন্নি, রেজাউল করিম আলো, আব্দুল জব্বার তুতু, মুকুল মোর্শেদ ও এডভোকেট জাহেদুর রহমান প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close