দেশে গুনীর চেয়ে খুনীর কদর বেশী- ডাঃ ইরান

সোহরাওর্য়াদীর ৫১ তম মৃত্যুবার্ষীকিতে মাজারে শ্রদ্ধাঞ্জলী ও আলোচনা সভা

unnamed 1২০ দলীয় জোটের নেতা ও লেবার পার্টির চেয়ারম্যান ডাঃ মোস্তাফিজুর রহমান ইরান বলেছেন, যেখানে গুনের কদর নেই সেখানে গুনিজন জন্মে না। আমরা ইতিহাসের জাতীয় বীরদের সম্মান জানাতে পারছি না। এটা আমাদের জাতীয় দৈন্যতায় পরিনত হয়েছে। দেশে গুনীর চেয়ে খুনীর কদর বেশী। দেশ আজ চরম ক্রান্তিকাল অতিক্রম করছে। গনতন্ত্রের মানষপুত্র সোহরাওর্য়াদীরা আজ চরম অবহেলিত। গনতন্ত্রে মুখোশধারী অবৈধ সরকার দিন বদলের নামে গনতন্ত্রকে গলাটিপে হত্যা করেছে। দেশে গনতন্ত্র, সংবিধান, মানবাধিকার ও আইনের শাসনের বদলে হাসিনাতন্ত্র চলছে।

তিনি বলেন, দেশমাতৃকায় হোসেন শহীদ সোহরাওর্য়াদী ভুমিকা জাতি চিরকার স্মরন করবে। তিনি অংশিদারিত্বের গনতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় আলোকবর্তিকা হয়ে থাকবেন। বতর্মান তাবেদার ফ্যাসিবাদী দখলদার সরকারের কবল থেকে গনতন্ত্রকে পুনঃপ্রতিষ্ঠার সংগ্রামে সোহরাওর্য়াদী চেতনার উৎস। তাই দুর্নীতি দুঃশাসন ও প্রতিহিংসার রাজনীতি বদলে সাম্যবাদী সমাজ প্রতিষ্ঠায় তরুন প্রজন্মকে জেগে উঠতে হবে। মুক্তিযুদ্ধের পরাজিত বাকশালী অপশক্তিকে ঐক্যবদ্ধ ভাবে রুখে দাড়াতে হবে।
তিনি আজ (শুক্রবার) সকাল ১০ টায় হোসেন শহীদ সোহরাওর্য়াদীর ৫১ তম মৃত্যুবার্ষীকিতে ফুলেল শ্রদ্ধানিবেদন শেষে মাজার চত্বরে সংক্ষিপ্ত আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তাব্যে এ কথা বলেন।
ইঞ্জিনিয়ার ফরিদ উদ্দিনের সভাপতিত্বে সভায় বক্তাব্য রাখেন লেবার পার্টির মহাসচিব হামদুল্লাহ আল মেহেদী, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ ফারুক রহমান, ঢাকা মহানগর সদস্য সচিব মাহমুদ খান, কবি পরিষদ সভাপতি কাজী নিজাম উদ্দিন, ছাত্রফোরাম আহবায়ক কামরুল ইসলাম সুরুজ, যুগ্ম আহবায়ক ইমরান হোসেন প্রমুখ।
সভা শেষে মরহুমের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করে দোয়া ও মোনাজাত করা হয়

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close