কুলাউড়ায় ‘হায়-হায়’ কোম্পানী হাতিয়ে নিচ্ছে হাজার হাজার টাকা

2এম.এ. কাইয়ুম: কুলাউড়া উপজেলার পৃথিমপাশা ইউনিয়নে আবারও দেখা গেল শাহজালাল ইসলামী কো-অপারেটিভ সোসাইটি লি: নামে এক হায়-হায় কোম্পানীর। ইতিপূর্বে বিলিনি হয়ে যাওয়া এম.এল.এম ডেসটিনি, ইউনি পেটুইউ, গ্রেট ওয়ান, স্পিক এশিয়া, ইউনিগ্রেটওয়ে, গোল্ডেন ট্রি সহ বেশ কয়েকটি কোম্পানীর মত একগুণ, দিগুন ও তিনগুণ টাকার লোভ দেখিয়া হাতিয়ে নিচ্ছে হাজার হাজার টাকা। যে কোন সময় এটাও যে বিলীন হবে না। তার কোন ভরসা নেই। অন্যদিকে সরকারী বিধি নিষেধ অমান্য করে শাহজালাল ইসলামী কো- অপারেটিভ সোসাইটি লি: নামের এই কোম্পানী চালাচ্ছে তাদের কার্যক্রম। খোঁজ নিয়ে জানা যায় শাহজালাল ইসলামী কো-অপারেটিভ সোসাইটি নামের এই কোম্পানী বাংলাদেশ সরকারের সমবায় অধিদপ্তর কর্তৃক রেজি: প্রাপ্ত। তাদের রেজি নং ৩২৭)। তবে সমবায় অধিদপ্তর কর্তৃক রেজি প্রাপ্ত হলেও সমবায় অধিদপ্তরের কোন বিধি নিষেধ তুয়াক্কা করছে না। বাংলাদেশের জাতীয় বেশ কয়েকটি দৈনিকে সমবায় অধিদপ্তরের মহা পরিচালক কর্তৃক সতর্কীকরন বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করলেও কোন নিয়মই রক্ষা করছে না শাহজালাল কো- অপারেটিভ সোসাইটি লি: নামের এ কোম্পানী। সতর্কীকরণ বিজ্ঞাপ্তি অনুযায়ী কোন সমবায় সমিতি উহার কার্যক্রম পরিচালনার জন্য কোন শাখা খোলার অনুমতি না থাকলে শাহজালাল ইসলামী কোং অপারেটিভ সোসাইটি নামের এই হায় হায় কোম্পানীর একাধিক শাখা রয়েছে। জানা যায় রয়েল প্লাজা (২য় তলা) ভানুগাছ রোড শমশের নগর তাদের প্রধান কার্যালয় হিসাবে ব্যবহার করছে। এবং শাখা অফিস হিসাবে খান ম্যানশন ২য় তলা হাসপাতাল রোড রবিরবাজার ব্যবহার করছে যা সম্পন্ন সমবায় অধিদপ্তরের আইন বহির্ভুক্ত। সমবায় আইন ২০০১ (সংশোধিতহ ২০০২ ও ২০১৩) এর ২৩ (ক) (খ) ও ২৬ ধারার আলোকে কোন সমবায় সমিতি বাংলাদেশ ব্যাংকের অনুমোদন ছাড়া কোন ব্যাংকিং ব্যবস্থা করতে পারবে না এমন আইন থাকলে স্থানীয় রবিরবাজার পূবালী ব্যাংকে ব্যাংক একাউন্ট খুলে চলছে তাদের কার্যক্রম। অপরদিকে সমবায় অধিদপ্তরের আইন অনুযায়ী সমবায় সমিতির সদস্য ব্যতীত অন্য কোন ব্যক্তি বা প্রতিষ্টানের নিকট হতে আমানত গ্রহন বা ঋণ প্রদানের কোন আইন না থাকলেও শাহজালাল কো-অপারেটিং সোসাইটি লি: কোম্পানী পাস বই তৈরি করে রবিরবাজার এলাকার গরিব কয়েকশ মানুষেকে একে দিগুন টাকার লোভ দেখিইয়া ১০০, ৫০০, ১০০০, ২০০০ করে সঞ্চয় দেখিয়ে আদায় করছে। এদিকে শাহজালাল ইসলামী কো-অপারেটিভ সোসাইটি লি: দ্বিগুন ও তিনগুন টাকার লোভ দেখিয়ে কেন কয়েকটি প্যাকেজ দেখিয়ে আদায় করছে হাজার হাজার টাকা এমনকি আমানত কারী প্রতি মাসে ১০০০ টাকা হিসেবে ১০ বৎসর জমা করার পর পরবর্তী ৬ বৎসর প্রতি মাসে ৪০০০০ টাকা অথবা প্রতি মাসে ১৫০০ টাকা এবং ১০ বৎসর জমা রাখার পর পরবর্তী ৬০০০০ টাকা পরিশোধ করা হবে বলে প্রলোভন দেখাচ্ছে। এনিয়ে কুলাউড়া উপজেলা সমবায় অফিসার সালিক মিয়া বলেন, শাহজালাল ইসলামী কো-অপারেটিভ সোসাইটি লি: নামে কোন কোম্পানী কুলাউড়া উপজেলা নিবন্ধিত হয়নি। ইতিপূর্বে এনিয়ে অনেক অভিযোগ এসেছে তবে এদের কার্যক্রম সম্পূন্ন বেআইনী শাহজালাল কো-অপারেটিং সোসাইটি লি: কোম্পানী নামের কো: কার্যক্রম সম্পূন্ন সমবায় অধিদপ্তর আইনী বহির্ভুত। আমরা দ্রুত এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছি।

Pin It on Pinterest

Share This

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. more information

The cookie settings on this website are set to "allow cookies" to give you the best browsing experience possible. If you continue to use this website without changing your cookie settings or you click "Accept" below then you are consenting to this.

Close